• নিজস্ব সংবাদদাতা 
সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে

‘ধার শোধে’ কমিটি গড়বেন শুভেন্দু

Suvendu Adhikari tom form committee to waive Loan at Kaliagunj
মুখোমুখি: বাসিন্দাদের ধন্যবাদ জানাচ্ছেন শুভেন্দু অধিকারী। নিজস্ব চিত্র

Advertisement

কালিয়াগঞ্জের উন্নয়নে ‘উপদেষ্টা কমিটি’ গঠনের কথা বললেন রাজ্যের পরিবহণমন্ত্রী শুভেন্দু অধিকারী।

রবিবার তৃণমূলের তরফে কালিয়াগঞ্জ শহরের নাটমন্দির চত্বরে কৃতজ্ঞতা সভায় তিনি বলেন, ‘‘কালিয়াগঞ্জের সার্বিক উন্নয়নে আমি উপদেষ্টা কমিটি গড়ে দেব। এখানে কী উন্নয়ন দরকার, আপনারা কমিটিকে জানাবেন। সে সব প্রস্তাবের তালিকা তৈরি করা হবে। তা দেখে রাজ্য সরকার যতটা সম্ভব কালিয়াগঞ্জের উন্নয়নের চেষ্টা করবে।’’ তিনি জানান, ওই কমিটিতে কালিয়াগঞ্জের বিভিন্ন এলাকার জনপ্রতিনিধি ও বিশিষ্ট ব্যক্তিরা থাকবেন। কমিটির মাথায় থাকবেন স্থানীয় বিধায়ক তপন দেবসিংহ। প্রতি মাসে কমিটির সদস্যরা এক বার করে বৈঠক করবেন। 

কয়েক দিন আগে ওই বিধানসভা কেন্দ্রের উপনির্বাচনের প্রচারে এসে তৃণমূলের উত্তর দিনাজপুর জেলা পর্যবেক্ষক শুভেন্দু বলেছিলেন, ‘‘তৃণমূলকে ঋণ হিসেবে ভোট দিন। দল জয়ী হলে উন্নয়নের মাধ্যমে আপনাদের ঋণ মিটিয়ে দেব।’’ 

গত লোকসভা নির্বাচনের নিরিখে কালিয়াগঞ্জ বিধানসভা কেন্দ্রে বিজেপি তৃণমূলের থেকে প্রায় ৫৭ হাজার ভোটে এগিয়ে ছিল। কিন্তু সাম্প্রতিক বিধানসভা উপনির্বাচনে বিজেপি প্রার্থী কমলচন্দ্র সরকারকে প্রায় আড়াই হাজার ভোটে পরাজিত করেন তৃণমূল প্রার্থী তপন।

এ দিন সেই প্রসঙ্গ তুলে শুভেন্দু দাবি করেন, লোকসভা নির্বাচনে কালিয়াগঞ্জ ও রায়গঞ্জ বিধানসভা কেন্দ্রে বিজেপি তৃণমূলের থেকে বিপুল ভোটে এগিয়ে ছিল। তার জেরে তিনি কালিয়াগঞ্জ ও রায়গঞ্জ পুরসভার দুই পুরপ্রধান কার্তিকচন্দ্র পাল ও সন্দীপ বিশ্বাসের সঙ্গে কথা বলতেন না। তাঁরা কলকাতায় দেখা করতে গেলে দেখাও করতেন না। তাঁর কথায়, ‘‘কার্তিক ও সন্দীপ আমাকে কোনও ফাইল পাঠালে কখনও অভিমানে সে সব সরিয়ে রাখতাম। কিন্তু কালিয়াগঞ্জের উপনির্বাচনে ওঁরা এবং তৃণমূলের নেতা-কর্মীরা খুব ভাল কাজ করেছেন। তাই আজ থেকে কার্তিক ও সন্দীপের উপর থেকে সব অভিমান তুলেনিলাম।’’ তিনি জানান, খুব শীঘ্রই কার্তিকের প্রস্তাব অনুযায়ী রাজ্য সরকারের তরফে কালিয়াগঞ্জ শহরে একটি টাউন হল তৈরির কাজ শুরু করা হবে।

কার্তিক ও সন্দীপের বক্তব্য, ‘‘শুভেন্দুদা আমাদের উপর অভিমান না করলে হয়তো উপনির্বাচনে কালিয়াগঞ্জে দলকে জেতানোর জন্য এত মরিয়া হয়ে উঠতাম না।’’

শুভেন্দু জানান, এ দিন তিনি জেলাশাসককে কালিয়াগঞ্জের ১০টি গ্রাম পঞ্চায়েত এলাকায় চাষিদের স্বার্থে জলসেচের কী উন্নয়ন প্রয়োজন, সেই ব্যাপারে দ্রুত তাঁর কাছে প্রস্তাব পাঠানোরও নির্দেশ দিয়েছেন।

সবাই যা পড়ছেন

Advertisement

সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে
আরও পড়ুন

সবাই যা পড়ছেন

আরও পড়ুন