এ বার ডেঙ্গির থাবা একেবারে পুলিশের ঘরে। ডেঙ্গিতে আক্রান্ত হলেন জয়গাঁয় কর্মরত জেলা পুলিশের দুই শীর্ষ কর্তা। জয়গাঁ থানার বেশ কয়েকজন পুলিশ কর্মী ও সিভিক ভলান্টিয়ারও ডেঙ্গিতে আক্রান্ত হয়েছেন বলে পুলিশ সূত্রে খবর। তা নিয়ে চিন্তিত জেলা পুলিশের শীর্ষ কর্তাদের একাংশ। তবে এর ফলে এলাকায় আইন-শৃঙ্খলা রক্ষা বা অপরাধ দমনের কাজে কোনও প্রভাব পড়েনি বলেই দাবি করেছেন পুলিশকর্তারা।

গত কয়েকদিন ধরেই ভুটান সীমান্ত লাগোয়া জয়গাঁয় ডেঙ্গি মারাত্মক আকার নিতে শুরু করেছে। জেলা স্বাস্থ্য দফতরের কর্তাদের দাবি, মূলত সীমান্তের ওপারে থাকা ভুটানের ফুন্টশিলিং থেকেই ডেঙ্গি জয়গাঁয় ছড়িয়ে পড়ছে। ফুন্টশিলিংয়ে ডেঙ্গি নিয়ন্ত্রণ করতে ইতিমধ্যে সে দেশের চুখা জেলার স্বাস্থ্য দফতরের কর্তাদের সঙ্গে বৈঠক করেছেন আলিপুরদুয়ার জেলার স্বাস্থ্যকর্তারা। দুই জেলার স্বাস্থ্যকর্তারা যৌথভাবে নিজের নিজের এলাকায় ডেঙ্গির মশা নিধনে বিভিন্ন কর্মসূচি নেওয়ার সিদ্ধান্তও নিয়েছেন। গত কয়েকদিন ধরে কার্যত দিন-রাত এক করে জয়গাঁয় ডেঙ্গি নিয়ন্ত্রণের চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছেন আলিপুরদুয়ারের স্বাস্থ্যকর্তারা। কিন্তু তারপরেও ডেঙ্গি কমার কোনও লক্ষণ নেই। প্রতিদিনই লাফিয়ে লাফিয়ে তা বেড়ে চলছে।

পুলিশ সূত্রের খবর, সম্প্রতি জয়গাঁয় কর্মরত জেলা পুলিশের এক কর্তা ডেঙ্গিতে আক্রান্ত হন। শুক্রবার সেখানে থাকা জেলা পুলিশের আরেক কর্তা ডেঙ্গিতে আক্রান্ত হয়েছেন। সঙ্গে সঙ্গে চিকিৎসার জন্য তাঁকে শিলিগুড়িতে নিয়ে যাওয়া হয়। এর পাশাপাশি জয়গাঁয় কর্মরত বেশ কয়েকজন পুলিশকর্মী ও সিভিক ভলান্টিয়ারও ডেঙ্গিতে আক্রান্ত বলে পুলিশ সূত্রের খবর। খোদ পুলিশ কর্তা থেকে শুরু করে পুলিশ কর্মীরাও ডেঙ্গিতে আক্রান্ত হতে শুরু করলে এলাকার আইন-শৃঙ্খলা নিয়ন্ত্রণ বা অপরাধ দমনের কাজ কীভাবে হবে তা নিয়েও মহলে উদ্বেগ ছড়াচ্ছে। যদিও আলিপুরদুয়ারের পুলিশ সুপার নগেন্দ্রনাথ ত্রিপাঠী বলেন, ‘‘জয়গাঁয় ডেঙ্গি নিয়ন্ত্রণে জেলা প্রশাসন চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে। পুলিশকর্মীরা কেউ জ্বর বা ডেঙ্গিতে আক্রান্ত হলে সঙ্গে সঙ্গে তাঁদের চিকিৎসা করাতে বলা হচ্ছে। পুলিশের যাবতীয় কাজ স্বাভাবিকভাবেই চলছে।’’

মঙ্গলবার জয়গাঁয় ডেঙ্গিতে আক্রান্ত হয়ে পঞ্চম শ্রেণির এক স্কুলছাত্রীর মৃত্যু হয়েছিল। তার জেরে ডেঙ্গি নিয়ে এলাকায় মানুষের মনে আতঙ্ক কয়েকগুণ বেড়ে যায়। বাসিন্দাদের অভিযোগ, এলাকার বহু ছাত্র-ছাত্রীই জ্বরে আক্রান্ত। যার জেরে বিভিন্ন স্কুলে পড়ুয়াদের উপস্থিতির হারও কমছে। শুধু ছোটরাই নয়, যুবক থেকে শুরু করে এলাকার বয়স্করাও ডেঙ্গিতে আক্রান্ত হচ্ছেন। তা নিয়ে উদ্বিগ্ন অনেকেই। পুলিশকর্তাদের ডেঙ্গিতে আক্রান্ত হওয়ার খবরে সেই উদ্বেগ বেড়েছে। স্বাস্থ্য দফতরের এক কর্তা অবশ্য বলেন, ‘‘জয়গাঁয় কোনও পুলিশকর্তা বা কর্মী ডেঙ্গিতে আক্রান্ত হয়েছেন বলে শুনিনি। তবে এলাকায় অনেকেই ডেঙ্গিতে আক্রান্ত হচ্ছেন। সেইসঙ্গে ডেঙ্গি নিয়ন্ত্রণেরও চেষ্টা চলছে।’’