• নিজস্ব সংবাদদাতা 
সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে

মুখ্যমন্ত্রীর তহবিলে দান বিজেপি সদস্যার

TMC
প্রতীকী ছবি

রাজনীতির গণ্ডি সরিয়ে করোনা-মোকাবিলায় রাজ্য সরকারের লড়াইয়ের পাশে দাঁড়ালেন ঝালদা ১ পঞ্চায়েত সমিতির এক বিজেপি সদস্য। নয়াডি পঞ্চায়েতের বিরুডি গ্রামের বাসিন্দা বিজেপির পঞ্চায়েত সদস্য জাম্বুবতী কুমার শনিবার ঝালদা ১ ব্লকের বিডিও রাজকুমার বিশ্বাসের হাতে দশ হাজার টাকার চেক তুলে দিলেন। তিনি বলেন, ‘‘করোনা পরিস্থিতির বিরুদ্ধে সবাইকে এক সঙ্গে লড়তে হবে। এক জন নাগরিক হিসেবে এই লড়াইয়ে পাশে থাকা প্রয়োজন বলে মনে হয়েছে।’’

মুখ্যমন্ত্রীর ত্রাণ তহবিলে এক মাসের ভাতা তুলে দিয়েছেন পুরুলিয়া পুরসভার ২৩ নম্বর ওয়ার্ডের তৃণমূল কাউন্সিলর প্রদীপ দাগা। তিনি জানান, ১৬ হাজার টাকা মুখ্যমন্ত্রীর ত্রাণ তহবিলে দিয়েছেন।’’ পুরুলিয়া জেলা বাস মালিক সমিতির জেলা সম্পাদক প্রতিভারঞ্জন সেনগুপ্ত বলেন, ‘‘করোনা-লড়াইয়ে মুখ্যমন্ত্রী পাশে থাকতেই পঞ্চাশ হাজার টাকা ত্রাণ তহবিলে দিয়েছি।’’ ওই তহবিলে সাড়ে ১৪ হাজার টাকা দান করেছে ‘পশ্চিমবঙ্গ অতিথি অধ্যাপক সংগঠন’-এর পুরুলিয়া জেলা শাখা। সংগঠনের তরফে রাজেশ দান জানান, তিন মাসের মাইনে পাননি অতিথি অধ্যাপকেরা। তা স্বত্ত্বেও শিক্ষামন্ত্রীর আহ্বানে মুখ্যমন্ত্রীর লড়াইয়ে পাশে থাকতেই তাঁরা সাধ্যমতো সাহায্য করেছেন।

এ দিকে, বৃত্তি হিসেবে পাওয়া টাকা দিলেন ছাত্রীরা। বই লিখে পাওয়া পুরস্কারের টাকা দুঃস্থদের জন্য দান করলেন লেখিকা। শনিবার বাঁকুড়ার গঙ্গাজলঘাটির লাগাপাড়ার বাসিন্দা দুই বোন, শুভ্রা ও শিপ্রা মহাদানি মেজিয়া তাপবিদ্যুৎ কেন্দ্রের উদ্যোগে গড়া করোনা তহবিলে অর্থ দান করেন। শুভ্রা, বাঁকুড়া সারদামণি গার্লস কলেজের ছাত্রী। শিপ্রা এ বার উচ্চ মাধ্যমিক দিচ্ছেন। উচ্চ মাধ্যমিক ও মাধ্যমিকে ভাল ফলের জন্য স্কলারশিপে পাওয়া টাকাই এ দিন তাপবিদ্যুৎ কেন্দ্রের ত্রাণ তহবিলে তাঁরা দান করেন। অন্য দিকে, মেজিয়া তাপবিদ্যুৎ কেন্দ্রের কর্মী দেবশ্রী বন্দ্যোপাধ্যায় একটি বই লিখে পুরস্কার হিসেবে কুড়ি হাজার টাকা পেয়েছিলেন। পুরস্কারের টাকার সঙ্গে আরও কিছু টাকা তহবিলে দান করেন। তিন জনই এ দিন তাপবিদ্যুৎকেন্দ্রের চিফ ইঞ্জিনিয়ার (প্রকল্প প্রধান) নিখিলকুমার চৌধুরীর হাতে অর্থসাহায্য তুলে দেন। 

অন্য দিকে, গঙ্গাজলঘাটির অমরকানন গোবিন্দপ্রসাদ মহাবিদ্যালয়ের ২৬ জন শিক্ষক ও শিক্ষাকর্মী প্রত্যেকে তাঁদের এক দিনের বেতন রাজ্য সরকারের ত্রাণ তহবিলে দান করেছেন। বাঁকুড়া জেলা পরিষদের মেন্টর অরূপ চক্রবর্তী জানান, বিভিন্ন স্তরের মানু্ষের কাছে সংগ্রহ করা চার লক্ষ টাকা জেলাশাসক এস অরুণপ্রসাদের মাধ্যমে রাজ্য সরকারের ত্রাণ তহবিলে দিয়েছেন।

সবাই যা পড়ছেন

সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে
আরও পড়ুন

সবাই যা পড়ছেন

আরও পড়ুন