• নিজস্ব সংবাদদাতা
সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে

গেলেন সাংসদ, আসরে এ বার বিজেপি

MP talking to people
জমিহারাদের সঙ্গে কথা বলছেন সাংসদ সুভাষ সরকার। রঘুনাথপুরে ডিভিসির বিদ্যুৎকেন্দ্রের বাইরে বুধবার। নিজস্ব চিত্র

পুরুলিয়ার রঘুনাথপুরে ডিভিসি-র তাপবিদ্যুৎ প্রকল্পে কর্মসংস্থানের দাবিতে জমিহারাদের কমিটি গড়ে আন্দোলনে নেমেছে তৃণমূল। এ বার আসরে নামল বিজেপিও। রঘুনাথপুর বাঁকুড়া লোকসভা-কেন্দ্রের মধ্যে পড়ে। বুধবার বাঁকুড়ার বিজেপি সাংসদ সুভাষ সরকার বিদ্যুৎকেন্দ্রে যান। বিদ্যুৎকেন্দ্রর চিফ ইঞ্জিনিয়ার তথা ‘হেড অফ দ্য প্রজেক্ট’ অনন্ত চক্রবর্তীর সঙ্গে আলোচনা
হয়েছে তাঁর। 

এ দিন সুভাষবাবু বলেন, ‘‘প্রকল্পের বর্তমান পরিস্থিতি নিয়ে আলোচনা হয়। জমিহারাদের কর্মসংস্থানের কথা উঠেছে।’’ ডিভিসির রঘুনাথপুর তাপবিদ্যুৎকেন্দ্রর চিফ ইঞ্জিনিয়ার অনন্তবাবু বলেন, ‘‘সাংসদের সঙ্গে প্রকল্পের পরিস্থিতি সংক্রান্ত নানা বিষয়ে কথা হয়েছে।’’

জমিহারা পরিবারগুলির পরিযায়ী শ্রমিকেরা ‘লকডাউন’-এ কাজ হারিয়ে ফেরার পরে, গত দু’সপ্তাহে রঘুনাথপুরে ডিভিসি-র তাপবিদ্যুৎকেন্দ্রে কর্মসংস্থানের দাবিতে আন্দোলন নতুন করে দানা বাঁধছে। জমিহারাদের কর্মসংস্থানের দাবি নিয়ে আসরে নেমে তাঁদের সমর্থন আদায় করতে সচেষ্ট হয়েছে তৃণমূল। তারই মাঝে বিজেপির সাংসদের এই পদক্ষেপ অনেকের নজর কেড়েছে। তবে সুভাষবাবুর দাবি, তাঁর এ দিনের কর্মসূচি রাজনৈতিক ছিল না। 

এ দিন বিজেপির সাংসদের আসার আগাম খবর পেয়ে তাপবিদ্যুৎকেন্দ্রের সামনে হাজির হয়েছিলেন দলের নেতা-কর্মীরা। ছিলেন দলের নিতুড়িয়া ব্লকের আহ্বায়ক সুভাষ মণ্ডল। তাঁকে নিয়েই ডিভিসির আধিকারিকদের সঙ্গে আলোচনায় বসেন সাংসদ। সুভাষ মণ্ডল বলেন, ‘‘দীর্ঘ সময় ধরে জমিহারাদের প্রকল্পে কাজ দেওয়া নিয়ে বঞ্চনা হয়েছে। এখন জমিহারারা কাজের দাবিতে ফের আন্দোলনে নেমেছেন। আমরা দলগত ভাবে তাঁদের পাশে আছি।”

রাজ্য সরকার তথা জেলা প্রশাসন জমিহারাদের কর্মসংস্থানের বিষয়ে সচেষ্ট নয় বলে অভিযোগ করেছেন সাংসদ সুভাষবাবু। তিনি বলেন, ‘‘আলোচনায় বিদ্যুৎকেন্দ্রের আধিকারিকেরা জানিয়েছেন, তাঁরা জমিহারাদের কর্মসংস্থানের বিষয়ে প্রশাসনকে নির্দিষ্ট পদ্ধতি স্থির করতে বলছেন। ফলে, জমিহারারা যাতে কাজ পান, সে বিষয়ে প্রশাসনকেও নিজেদের দায়িত্ব পালন করতে হবে।” পুরুলিয়ার জেলাশাসক রাহুল মজুমদার বলেন, ‘‘ডিভিসির তাপবিদ্যুৎ প্রকল্পে কাজ করবেন জমিহারারা। তাঁদের কাজের ব্যবস্থা করবেন ডিভিসি কর্তৃপক্ষ। দু’পক্ষের মধ্যে আলোচনায় সমস্যা মিটবে।’’

বাঁকুড়ার বিজেপির সাংসদের অভিযোগ, ‘‘অতীতে টাকার বিনিময়ে প্রকল্পে কাজ দেওয়া হয়েছে বলে আমাদের কাছে অভিযোগ এসেছে। আমরা চাইছি, স্বচ্ছ একটা নীতি অনুযায়ী জমিহারাদের কাজের ব্যবস্থা করা হোক।” জমিহারাদের কার্মসংস্থানের প্রশ্নে তৃণমূল আন্তরিক নয় বলেও অভিযোগ করেছেন তিনি। 

তবে সেই অভিযোগ ভিত্তিহীন বলে দাবি করে রঘুনাথপুরের তৃণমূল বিধায়ক পূর্ণচন্দ্র বাউড়ি বলেন, ‘‘রঘুনাথপুরে ডিভিসি-র তাপবিদ্যুৎকেন্দ্রের দ্বিতীয় পর্যায়ের শিলান্যাস হওয়ার পরেও কাজ স্থগিত হয়ে আছে। কেন্দ্রে বিজেপির সরকার। পারলে সুভাষবাবুরা রঘুনাথপুরে দ্বিতীয় পর্যায়ের কাজ শুরু করান। তা হলেই জমিহারাদের কাজের সমস্যার স্থায়ী সমাধান হয়ে যাবে।”

সবাই যা পড়ছেন

সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে
আরও পড়ুন

সবাই যা পড়ছেন

আরও পড়ুন