Follow us on

Download the latest Anandabazar app

© 2021 ABP Pvt. Ltd.

Advertisement

০৩ ডিসেম্বর ২০২১ ই-পেপার

বাঙালির মননে আলো ফেলা এ বছরের পাঁচটি উল্লেখযোগ্য বই

নিজস্ব প্রতিবেদন
কলকাতা ৩১ ডিসেম্বর ২০১৯ ১৪:২৯
অলঙ্করণ: শৌভিক দেবনাথ।

অলঙ্করণ: শৌভিক দেবনাথ।

১) রচনাসংগ্রহ (দুই খণ্ড)/ রণজিৎ গুহ/ আনন্দ/ ২০০০ টাকা

কী রয়েছে—

ইতিহাসবিদ রণজিৎ গুহের বাংলায় লিখিত রচনার সংগ্রহ। এক অর্থে দুর্লভ। কেননা, তুলনায় অখ্যাত বিভিন্ন পত্রিকায় বিক্ষিপ্ত ভাবে বেরিয়েছিল। স্বাভাবিক ভাবে বেশির ভাগ লেখা হারিয়ে গিয়েছিল। একত্র হওয়ার ফলে লেখাগুলি পড়ার সুযোগ আসে।

Advertisement



কেন পড়ব—

প্রথম শ্রেণির বাঙালি অধ্যাপকেরা সাধারণত ইংরেজিতেই লেখেন। রণজিৎবাবু একমাত্র ভারতীয়, যিনি তাঁর মাতৃভাষায় মৌলিক লেখা লিখেছেন। অর্থাৎ, ইংরেজিভাষী উৎসুক ছাত্র যদি রণজিৎবাবুর লেখা পড়তে চান, তাঁকে বাংলা থেকে ইংরেজিতে অনুবাদ করতে হবে। চিন্তার জগতে এটি একটি উলটপুরাণ।

২) আমি বিনয় মজুমদার/ অংশুমান কর/ ধানসিড়ি/ ২০০ টাকা

কী রয়েছে—

কবি বিনয় মজুমদারের জীবনের উপরে আধারিত উপন্যাস। কখনও মানসিক চিকিৎসালয়ের অন্তরালে, কখনও বা শিমুলপুরের প্রকৃতির মাঝখানে অতিবাহিত তাঁর জীবনকে আশ্রয় করে লেখা এই উপন্যাসে কৌতূহল আর কিংবদন্তির এক বোঝাপড়া ঘটাতে চেয়েছেন লেখক।



কেন পড়ব—

কবির জীবনী নয়, প্রকৃতই এক জীবনোপন্যাস লিখতে চেয়েছিলেন অংশুমান। ‘লিটেরারি বায়োগ্রাফি’ বাংলা ভাষায় খুব বেশি নেই। এই উপন্যাস সে দিক থেকে দেখলে এক ব্যতিক্রমী প্রয়াস।

৩) অনুবাদিত পদ্য/ শক্তি চট্টোপাধ্যায়/ সিগনেট প্রেস/ ৪০০ টাকা

কী রয়েছে—

কবি শক্তি চট্টোপাধ্যায়ের অনুবাদিত যাবতীয় কবিতা। লোরকা, মায়াকভস্কি, নেরুদা, কালিদাস, হাইনে, গালিব, ওমর খৈয়াম থেকে ভাগবদ্গীতার অনুবাদ পর্যন্ত ধরা রয়েছে দু’মলাটে। রয়েছে ভারতের আঞ্চলিক ভাষার কবিদের কবিতার অনুবাদও।



কেন পড়ব—

শক্তি বিশ্বাস করতেন অনুবাদও ‘মৌলিক’ হওয়া প্রয়োজন। অনুবাদ কবিতারও ‘কবিতা’ হয়ে ওঠাটা জরুরি। অনুবাদের ক্ষেত্রে শক্তি কতটা মূলানুগ, সে প্রশ্ন কেউ করবেন না। কারণ, শক্তির অনুবাদে বাঙালি পাঠক এক বিপুল কবিতা-বিশ্বকে একান্ত ভাবে আপনার করে নিয়েছিল।

আরও পড়ুন: শুনি তব উদার বাণী

৪) পাণ্ডুলিপি থেকে ডায়েরি: জীবনানন্দের খোঁজে (প্রথম খণ্ড)/ গৌতম মিত্র/ ঋত/ ৩২৫ টাকা

কী রয়েছে—

জীবনানন্দের অপ্রকাশিত রচনা সম্পাদনার কাজ করতে গিয়ে লেখকের প্রত্যক্ষ পরিচয় ঘটেছিল তাঁর পাণ্ডুলিপি আর ডায়েরির সঙ্গে। এই দুই সূত্র থেকে তিনি খুঁজে বের করে এনেছেন এমন এক জীবনানন্দকে, যিনি পাঠকের কাছে প্রায় অচেনা।



কেন পড়ব—

দেশে-বিদেশে তাঁকে নিয়ে গবেষণা সত্ত্বেও কবি-ঔপন্যাসিক-মানুষ জীবনানন্দ পাঠকের কাছে প্রহেলিকা হয়েই থেকে যান। পাণ্ডুলিপি আর ডায়েরি ঘাঁটতে ঘাঁটতে গৌতমবাবু আবিষ্কার করেন এক জীবনানন্দকে, যাঁকে সহজে উন্মোচন করা যায় না। জীবনানন্দের পাণ্ডুলিপির পাশাপাশি তাঁর ডায়েরির পাঠকে ফেলে বের করে আনতে চেয়েছেন অচেনা এক জীবনানন্দকে।

আরও পড়ুন: লোকের চোখে ধুলো দিয়ে

৫) গল্পসমগ্র/ জয় গোস্বামী/ দে’জ/ ৪৯৯ টাকা

কী রয়েছে—

গত পঁচিশ বছরে লিখিত আটত্রিশটি গল্পের সংকলন।



কেন পড়ব—

প্রসিদ্ধি কবি হিসেবে। উপন্যাস রচনাতেও তিনি সিদ্ধহস্ত। তাঁর আখ্যানচর্চার আর একটি দিক প্রায় অনুচ্চারিতই থেকে যায়। সেটি তাঁর ছোটগল্প। সংখ্যায় খুব বেশি না হলেও জয় আড়াই দশক ধরে গল্প লিখছেন। এই পঁচিশ বছরের গল্পচর্চার ফসলকে দুই মলাটের মধ্যে নিয়ে আসা হল এ বার।

আরও পড়ুন

Advertisement