Follow us on

Download the latest Anandabazar app

© 2021 ABP Pvt. Ltd.

Advertisement

২৯ জানুয়ারি ২০২২ ই-পেপার

শুভাপ্রসন্নের হিসেবরক্ষককে ফের সিবিআইয়ের জেরা

টাকার হিসাবের ব্যাখ্যা চেয়ে শুভাপ্রসন্নকে এনফোর্সমেন্ট ডিরেক্টরেট (ইডি) চিঠি পাঠানোর চব্বিশ ঘণ্টার মধ্যেই তাঁর হিসাবরক্ষক রাজেশ গোয়েনকাকে ডে

নিজস্ব সংবাদদাতা
০৩ ফেব্রুয়ারি ২০১৫ ১৫:৩৬
সিবিআই দফতর থেকে বেরিয়ে যাচ্ছেন শুভাপ্রসন্নর হিসেবরক্ষক রাজেশ গোয়েনকা। ছবি: শৌভিক দে।

সিবিআই দফতর থেকে বেরিয়ে যাচ্ছেন শুভাপ্রসন্নর হিসেবরক্ষক রাজেশ গোয়েনকা। ছবি: শৌভিক দে।

টাকার হিসাবের ব্যাখ্যা চেয়ে শুভাপ্রসন্নকে এনফোর্সমেন্ট ডিরেক্টরেট (ইডি) চিঠি পাঠানোর চব্বিশ ঘণ্টার মধ্যেই তাঁর হিসাবরক্ষক রাজেশ গোয়েনকাকে ডেকে পাঠাল সিবিআই। এই নিয়ে তৃতীয় বার তাঁকে তলব করল কেন্দ্রীয় তদন্তকারী সংস্থা। ডাক পেয়ে মঙ্গলবার সকাল ১১টা নাগাদ সিজিও কমপ্লেক্সে হাজির হন রাজেশ। ঘণ্টা দেড়েক পরই সেখান থেকে বেরিয়ে যান তিনি। সিবিআই সূত্রে খবর, চ্যানেল কেনা-বেচা নিয়ে শুভাপ্রসন্ন যে তথ্য তদন্তকারী সংস্থার কাছে দিয়েছেন তাতে অনেক অসঙ্গতি ধরা পড়েছে। সে বিষয়ে জিজ্ঞাসাবাদ করতে এ দিন রাজেশকে তলব করা হয়।

সুদীপ্ত সেনকে জেরা করে শুভাপ্রসন্নের নাম উঠে আসার পরই রাজনৈতিক মহলে তোলপাড় শুরু হয়। অভিযোগ ওঠে, শুভা তাঁর চালু না হওয়া চ্যানেল ‘এখন সময়’ বিক্রি করেছিলেন সারদা কর্ণধারকে। সেই সূত্রেই সারদা কেলেঙ্কারির প্রথম মামলা দায়ের হয়। সুদীপ্ত সেনকে জেরা করে শুভাপ্রসন্নের নাম সামনে আসার পরই সিবিআই তদন্ত শুরু করে। চ্যানেল কেনা-বেচা এবং সম্পত্তি সংক্রান্ত বিষয় নিয়ে আলাদা ভাবে তদন্ত শুরু করে ইডি। এই নিয়ে বেশ কয়েক বার শুভাপ্রসন্ন এবং তাঁর হিসাবরক্ষক রাজেশ গোয়েনকাকে তলব করে তদন্তকারী ওই সংস্থা। ইডি-র আধিকারিকেরা শুভার দেওয়া সমস্ত তথ্য খতিয়ে দেখেন। কিন্তু দেখা যায়, তাঁর দেওয়া তথ্যের মধ্যে অনেক অসঙ্গতি রয়েছে। গত ১৪ অক্টোবর ইডি-কে শুভা জানিয়েছিলেন, সাড়ে ছ’কোটি টাকার বিনিময়ে তিনি সুদীপ্তকে তাঁর চ্যানেলটি বিক্রি করেন। অন্য দিকে, রাজ্য সরকারের বিশেষ তদন্তকারী দল (সিট) সুপ্রিম কোর্টে যে হলফনামা দেয় তাতে বলা হয়েছিল, ওই চ্যানেল কিনতে সাড়ে ১৪ কোটি টাকা খরচ করেছে সারদা। দু’টি বয়ানে হিসাবে অসঙ্গতি লক্ষ করার পরেই ফের শুভাকে তলব করে ইডি। সুদীপ্তকে জেরা করেও ইডির আধিকারিকেরা জানতে পারেন, দু’টি স্টুডিও এবং কর্মচারীদের বেতন দেওয়ার জন্য চুক্তির পাশাপাশি ১০ কোটিরও বেশি টাকা শুভাপ্রসন্নকে দিয়েছিলেন তিনি। এ বিষয়ে আরও তথ্য জানতে শুভাকে সোমবার ফের নোটিস দেয় ইডি। প্রথম থেকেই শুভার দেওয়া তথ্যে অসঙ্গতি নিয়ে টানাপড়েন চলছে। সেই তথ্য সম্পর্কে আরও সুনিশ্চিত হতে এ দিন শুভার হিসাবরক্ষককে ডেকে পাঠায় সিবিআই।

Advertisement

আরও পড়ুন

Advertisement