Pak army killed 3 wanted Taliban terrorists - Anandabazar
  • সংবাদ সংস্থা
সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে

শ্রীলঙ্কা দলের উপর হামলায় জড়িত ৩ তালিবান জঙ্গি নিহত

1
২০০৯ সালের ৩ মার্চ এই বাসটিতে করেই ফিরছিলেন শ্রীলঙ্কা ক্রিকেট দলের খেলোয়াড়রা। —ফাইল চিত্র।

পাক সেনার সঙ্গে সংঘর্ষে নিহত ৩ তালিবান জঙ্গি। ২০০৯-এ পাকিস্তানে খেলতে গিয়ে লাহৌরে জঙ্গি হামলার শিকার হয় শ্রীলঙ্কা ক্রিকেট দল। পাক সেনার দাবি, এই তিন জঙ্গিই সেই হামলার ঘটনায় জড়িত ছিল।

পাকিস্তানের ক্রাইম ইনভেস্টিগেশন এজেন্সির প্রধান উমের বির্ক জানান, সোমবার ভোরে পাক সেনা ওয়াঘা সীমান্ত লাগোয়া ভগবানপুরা এলাকায় অভিযান চালায়। এলাকাটি এমনিতেই বেশ জনবহুল। তাদের খবর ছিল, ওই এলাকার কোনও একটি বাড়িতে গা-ঢাকা দিয়ে আছে জঙ্গিরা। তাঁর কথায়: “সেনাবাহিনী ওই বাড়ির চার পাশ ঘিরে ফেলেছে বুঝতে পেরেই জঙ্গিরা গুলি চালাতে শুরু করে। কম্যান্ডো বাহিনীর তরফেও পাল্টা গুলি চালানো হয়। সংঘর্ষেই প্রাণ হারায় শ্রীলঙ্কা ক্রিকেট দল হামলায় জড়িত ওই তিন জঙ্গি।”

বির্ক আরও জানান, ওই তিন জঙ্গির দেহ শনাক্ত করা হয়েছে। তাদের মধ্যে হাফিজ আলিয়াজ মাহমুদের খোঁজ চলছিল ২০০৯-এর ওই হামলার পর থেকে। অন্য দু’জনের মধ্যে কাশিম আলিয়াজ রফিক ছিল তহরিক-ই-তালিবান গোষ্ঠীর পঞ্জাবের কমান্ডার এবং ইয়াসির ছিল ওই গোষ্ঠীরই অন্যতম সদস্য।

বির্ক বলেন, “ওই তিন জনের সন্ধান দিলে নগদ পুরস্কার দেওয়া হবে বলে ঘোষণা করা হয়। তার মধ্যে হাফিজের মাথার দাম ছিল পাকিস্তানি মুদ্রায় ২০ লাখ। কাশিম আর ইয়াসিরের ক্ষেত্রে ১৫ লাখ করে।” সেনা সূত্রে খবর, জঙ্গিদের ডেরায় তল্লাশি চালিয়ে দু’টি হাতবোমা, দু’টি কালাশনিকভ রাইফেল এবং দু’টি সুইসাইড জ্যাকেট উদ্ধার হয়েছে। ভগবানপুরার ওই বাড়িতে লুকিয়ে থেকে তারা লাহৌরে হামলার পরিকল্পনা চালাচ্ছিল বলে সেনাবাহিনীর দাবি।

সবাই যা পড়ছেন

সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে
আরও পড়ুন

সবাই যা পড়ছেন

আরও পড়ুন