Advertisement
০৮ ফেব্রুয়ারি ২০২৩

মহারাজের চরিত্রে বিশ্বনাথ

পরিচালক বিশ্বরূপ বিশ্বাসের ‘বিলের ডায়েরি’ ছবিটিতে একেবারে অন্য রকম চরিত্রে দেখা যাবে বিশ্বনাথ বসুকে। এই ছবিতে তিনি রামকৃষ্ণ মিশনের কানু মহারাজ। ‘‘বাংলা ছবি ‘অলীক সুখ’ বা ‘উড়োচিঠি’ এবং ‘সুবর্ণরেখা’-র মতো সিরিয়ালে কাজ করে প্রচুর প্রশংসা পেয়েছি।

ছবিতে বিশ্বনাথ

ছবিতে বিশ্বনাথ

ঊর্মি নাথ
শেষ আপডেট: ২০ এপ্রিল ২০১৭ ০০:২৫
Share: Save:

পরিচালক বিশ্বরূপ বিশ্বাসের ‘বিলের ডায়েরি’ ছবিটিতে একেবারে অন্য রকম চরিত্রে দেখা যাবে বিশ্বনাথ বসুকে। এই ছবিতে তিনি রামকৃষ্ণ মিশনের কানু মহারাজ। ‘‘বাংলা ছবি ‘অলীক সুখ’ বা ‘উড়োচিঠি’ এবং ‘সুবর্ণরেখা’-র মতো সিরিয়ালে কাজ করে প্রচুর প্রশংসা পেয়েছি। যে প্রশংসা আমাকে তৃপ্তি দিয়েছে, আত্মবিশ্বাস বাড়িয়েছে। কিন্তু এটা বলতে অসুবিধা নেই যে, ‘বিলের ডায়েরি’ ছবিটিতে কাজ করে যে অনাবিল আনন্দ পেয়েছি তা আগে কখনও পাইনি। আমার বিচারে এটাই আমার শ্রেষ্ঠ কাজ,’’ বললেন বিশ্বনাথ। পরিচালক বিশ্বরূপের এটি দ্বিতীয় ছবি। তাঁর কথায়, ‘‘আগে বলে নিই, রামকৃষ্ণ মিশন শুনে মোটেও ভাববেন না, খুব জ্ঞান দেওয়া হয়েছে। এটা ছোটদের ছবি। সহজ কিছু কথা সহজ ভাবে বোঝানো হয়েছে। আমি নরেন্দ্রপুর রামকৃষ্ণ মিশনের প্রাক্তন ছাত্র। বেশ কয়েক জন প্রাক্তনী মিলে এই ছবির উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে। ছাত্র-শিক্ষকের বা গুরু-শিষ্যের সম্পর্কটা ক্রমশ নিম্নগামী। কিন্তু এই সম্পর্কটা খুব সুন্দর, শ্রদ্ধার। গুরু মানেই ভয় নয়, সে বন্ধু। শুধু ছাত্র থাকার সময় নয়, জীবনের বিভিন্ন সময়েই তাঁকে মনে পড়বে। এই বিষয়টাই তুলে ধরা হয়েছে। অনাবিল নামে একটি বাচ্চা ছেলে, যার ডাক নাম বিলে, বাড়ি ছেড়ে নরেন্দ্রপুরে আসে। বিলের সঙ্গে পরিচয় হয় কানু মহারাজের। এর পর আর গল্পটা বলব না। আপনারা দেখবেন পরদায়।’’ ছবিতে বিলের ছোটবেলার চরিত্রে অভিনয় করেছে আদিত্যপ্রতাপ সিংহ এবং বড়বেলার চরিত্রে সমদর্শী দত্ত। এরা দু’জনেই নরেন্দ্রপুরের ছাত্র। ‘‘আমার ডেবিউ ফিল্ম করার সময় প্রযোজকের সাহায্য পেয়েছিলাম কিন্তু এই ছবিটা করার সময় নরেন্দ্রপুরের বহু প্রাক্তনীর উৎসাহ পেয়েছি, যাঁরা বিভিন্ন ক্ষেত্রে প্রতিষ্ঠিত,’’ বললেন পরিচালক। নরেন্দ্রপুর রামকৃষ্ণ মিশনের খেলার মাঠ, রান্নাঘর, প্রার্থনাসভা ব্যবহার করা হয়েছে। এই প্রথম কোনও ছবির জন্য রামকৃষ্ণ মিশনের কোনও স্কুলের ভিতরে শ্যুটিং হল। ‘‘এর জন্য অনুমতি পাওয়া সত্যি কঠিন ছিল, অনেক সময় লেগেছে। এ ব্যাপারে সেই সময় মহারাজেরা অনেক সাহায্য করেছিলেন,’’ বললেন বিশ্বরূপ। কানু মহারাজের চরিত্রটির জন্য নাকি আপনি ছ’মাস মাথা ন্যাড়া করে ছিলেন? ‘‘একদম ঠিক। একটা সময় সিকরা কুলীন গ্রামের রামকৃষ্ণ মিশনে খুব যেতাম। তাই মিশনের পরিবেশ আমার কাছে পরিচিত। এই ছবিটা করার সময় নরেন্দ্রপুরে বারবার গিয়েছি। মহারাজদের সঙ্গে কথা বলেছি। কয়েক বছর আগে ‘রামকৃষ্ণের বিলে’ ছবিটিতে বিবেকানন্দের চরিত্রে অভিনয় করেছিলাম। সেই সময় আমি মিশন থেকে দীক্ষাও নিয়েছিলাম,’’ বললেন কানু মহারাজ ওরফে বিশ্বনাথ। এই ছবিতে সংগীত পরিচালনা করেছেন রাজা নারায়ণ দেব। রূপঙ্কর, ঊষা উত্থুপ প্রমুখ প্লেব্যাক করেছেন। ২ জুন ছবিটি মুক্তি পাবে। এই ছবির পরিচালক, কলাকুশলী সকলেরই আশা, বাংলার দর্শকেরা একটা ভাল ছবি পেতে চলেছেন।

(সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের Google News, Twitter এবং Instagram পেজ)
Follow us on: Save:
Advertisement
Advertisement

Share this article

CLOSE
Popup Close
Something isn't right! Please refresh.