Advertisement
২৮ জানুয়ারি ২০২৩
Big boss 16 Sajid Khan

সাজিদকে ‘বিগ বস’ থেকে সরাতেই হবে! তথ্য ও সম্প্রচার মন্ত্রককে চিঠি দিল্লি মহিলা কমিশনের

‘বিগ বস’ থেকে সাজিদকে সরানোর দাবিতে কেন্দ্রীয় তথ্য ও সম্প্রচার মন্ত্রী অনুরাগ ঠাকুরকে চিঠি লিখলেন দিল্লির মহিলা কমিশনের প্রধান স্বাতী মালিওয়াল।

 এত নারীর সর্বনাশ করেও নায়ক সাজছেন সাজিদ?

এত নারীর সর্বনাশ করেও নায়ক সাজছেন সাজিদ?

সংবাদ সংস্থা
মুম্বই শেষ আপডেট: ১০ অক্টোবর ২০২২ ১৭:০৫
Share: Save:

এত প্রতিবাদ সত্ত্বেও টিকে গেলেন রিয়্যালিটি মঞ্চে? ‘বিগ বস ১৬’-তে দিব্যি দাপিয়ে বেড়াচ্ছেন প্রতিযোগী সাজিদ খান। সেই দেখে মাঠে নামলেন দিল্লির মহিলা কমিশনের প্রধান স্বাতী মালিওয়াল। কেন্দ্রীয় তথ্য ও সম্প্রচার মন্ত্রী অনুরাগ ঠাকুরকে চিঠি লিখলেন তিনি। ‘বিগ বস’ থেকে পরিচালক সাজিদকে বহিষ্কারের দাবি জানালেন।

Advertisement

২০১৮ সালে ‘মি টু’ আন্দোলনের সময় সাজিদের বিরুদ্ধে যৌন হেনস্থা এবং অশালীন আচরণের অভিযোগ তুলেছিলেন দশ জন মহিলা তারকা। তার পরই ভারতীয় চলচ্চিত্র ও টেলিভিশন পরিচালক সমিতি থেকে এক বছরের জন্য বরখাস্ত করা হয়েছিল সাজিদকে। ২০২২ সালে নতুন ‘বিগ বস’ -এ আবার প্রতিযোগী হয়ে জনসমক্ষে এলেন তিনি। যেন কিছুই হয়নি! এই ব্যাপারটাই মানতে পারছেন না নিগৃহীত তারকারা-সহ আরও অনেকেই। তাঁদের সকলের হয়েই সোমবার নেটমাধ্যমে লিখলেন মহিলা কমিশনের প্রধান। তাঁর কথায়, “‘মি টু’ আন্দোলনের সময় দশ জন মহিলা সাজিদ খানের বিরুদ্ধে যৌন হেনস্থার অভিযোগ করেছিলেন। এ সব অভিযোগ সাজিদের জঘন্য মানসিকতার পরিচয় দেয়। এখন, এই লোকটিকে ‘বিগ বস’-এ জায়গা দেওয়া হয়েছে, যেটা অন্যায়! সাজিদ খানকে এই শো থেকে সরিয়ে দেওয়ার জন্য আমি অনুরাগ ঠাকুরকে লিখিত আবেদন করেছি।” ১ অক্টোবর থেকে সম্প্রচারিত হচ্ছে বিগ বস ১৬। সঞ্চালক সলমন খান। তিনি প্রথম রাউন্ডের প্রতিযোগী হিসাবে সাজিদের সঙ্গে সবার পরিচয় করিয়ে দিতেই গণ্ডগোলের সূত্রপাত।

তীব্র নিন্দায় মুখর হয়েছেন উরফি জাভেদ থেকে শুরু করে সেই দশ নারী। যাঁদের মধ্যে রয়েছেন লেখক সালনি চোপড়া। গায়িকা সোনা মহাপাত্রও সেই পিটিশনে স্বাক্ষর করলেন। তা ছাড়াও মডেল-তারকা র‍্যাচেল হোয়াইট, অভিনেত্রী সিমরান সুরি, শারলিন চোপড়া, ডিম্পল পালের মতো তারকারাও সাজিদকে পর্দায় দেখতে চান না বলে প্রতিবাদ জানিয়েছেন। তাঁরা সকলেই অতীতে সাজিদের যৌন লালসার শিকার হয়েছিলেন বলে জানা যায়।

পাশাপাশি সাজিদকে সাদর অভ্যর্থনা জানিয়েছেন কাশ্মেরা শাহ এবং শেহনাজ গিলের মতো অভিনেত্রীরা। তাঁদের দিকেও আঙুল তোলেন প্রতিবাদী নারীরা। প্রশ্ন ওঠে নীরব থাকা ফারহান আখতারকে নিয়েও।

Advertisement

প্রথমে নেটদুনিয়ায় ঝড় তোলেন উরফিই। টেলিভিশন চ্যানেলের উদ্দেশে বলেন, ‘‘যৌনশিকারিদের তোল্লাই দেওয়ার মঞ্চ বানিয়ে ফেলেছেন এটাকে? যে এত জন অভিনেত্রীর জীবনে ত্রাস হয়ে এসেছে সে এখনও দাঁড়িয়ে রয়েছে কী ভাবে? হাততালি পাচ্ছে কী ভাবে? শুধুমাত্র শো-তে টিআরপি বাড়াতে চাইছেন বলেই?’’

সর্বশেষ ধিক্কার জানিয়েছেন দেবলীনা ভট্টাচার্য। অনুষ্ঠানটির নিন্দা করে বলেছেন, “ওঁকে জাতীয় টেলিভিশনে দেখে আমার হৃদয় দুমড়ে-মুচড়ে যাচ্ছে। নিজেকে নায়ক প্রমাণ করার চেষ্টা করছেন তিনি৷ আমাদের সমাজ এ দিকেই যাচ্ছে দেখে খারাপ লাগছে।”

(সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের Google News, Twitter এবং Instagram পেজ)
Follow us on: Save:
Advertisement
Advertisement

Share this article

CLOSE
Popup Close
Something isn't right! Please refresh.