• নিজস্ব সংবাদদাতা
সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে

আপত্তি নেই দিলীপের

রূপার জন্য ছবির অফার একতার

rupa

ছ’মাস আগে হাওড়ার ডুমুরজলায় দলীয় সভাপতি অমিত শাহের সভায় দাঁড়িয়ে নিজের ‘অভিনেত্রী’ পরিচয় ঝেড়ে ফেলেছিলেন রূপা গঙ্গোপাধ্যায়। তাঁর নাম ঘোষণার সময় ‘নেত্রী’ এবং ‘অভিনেত্রী’— দুই পরিচয়ই দেওয়ায় বড্ড অভিমান করেছিলেন। বলেছিলেন, ‘‘অভিনয় ছেড়ে দিয়েছি। প্লিজ, আর কখনও অভিনেত্রী বলে পরিচয় করাবেন না।’’

সোমবার বিজেপি-র রাজ্য দফতরে দাঁড়িয়ে সেই রূপাই খুশি খুশি মেজাজে জানালেন, তাঁর কাছে নতুন ছবির অফার আছে! বিগ বাজেট! ছবিটা প্রযোজনা করছেন একতা কপূর। কাস্টিং ডিরেক্টর অপূর্ব জোসেফ তাঁকে মেল করে অভিনয়ের প্রস্তাব দিয়েছেন।

একতার বালাজি টেলিফিল্মস গত দেড় দশক ধরে সোপ অপেরার বড় ব্র্যান্ড। ইদানীং বড় পর্দাতেও একতার নামডাক হয়েছে। তাঁর প্রোডাকশনে রূপা আগে কাজও করেছেন ‘ইয়ে দিল সুন রহা হ্যায়’ ধারাবাহিকে।

রূপা তা হলে পর্দায় ফিরবেন? বিকেলে রূপার জবাব ছিল, ‘‘দেখি, ভাবনাচিন্তা করছি। আসলে অনেক টাকার কাজ তো!’’ সন্ধ্যায় অবশ্য বয়ান বদলে ফেলেন তিনি। ফোনে জানান, ‘‘এ সব নিয়ে আমার ভাবনাচিন্তা করারও সময় নেই।’’

রূপা বিজেপি-তে যোগ দেওয়ার পর এখনও পর্যন্ত কোনও নতুন ছবিতে সই করেননি। আগে যে ক’টা ছবিতে সই করেছিলেন, শুধু সেগুলোই শেষ করেছেন। শেষ অভিনয় করেছেন শতরূপা সান্যালের ‘অন্য অপালা’ ছবিতে। তার পর নিজেই বারবার জানিয়েছেন, দেড় বছরের রাজনৈতিক জীবনে সিনেমা এবং সিরিয়াল মিলিয়ে ১১টা কাজ প্রত্যাখ্যান করেছেন। তাঁর অভিনেত্রী জীবন এখন অতীত, রাজনীতিকের জীবনটাই ঘটমান বর্তমান। সেই নেত্রীর মুখে বড় ছবির অফারের কথা শুনে রাজ্য বিজেপির একাংশ প্রশ্ন তুলছেন, তবে কি বিধানসভা ভোটে হেরে গিয়েই ফের ছবির কথা ভাবতে শুরু করেছেন রূপা?

বিজেপিরই কিছু নেতার দাবি, ভাবনাচিন্তা না করলে ওই অফারের কথা রূপা জানাতেন না। আগে হয়তো ভেবেছিলেন, অভিনয় জীবনের গ্ল্যামার আমজনতার সঙ্গে মেশার পথে অন্তরায় হতে পারে। রাজনীতি করতে হলে ‘আমি তোমাদেরই লোক’ জাতীয় একটা ভাবমূর্তি গড়ে তুলতে হয়। তাই অভিনয় ছাড়ার কথা ঘোষণা করেছিলেন। হতে পারে ভোটে হেরে সিদ্ধান্ত বদলের চিন্তা মাথায় এসেছে।

আবার দলেরই এক রাজ্য নেতা ডুমুরজলা ময়দানের কথা স্মরণ করিয়ে দিয়ে বললেন, ‘‘রূপাদির পক্ষে অভিনয়ে ফেরা মুশকিল। তাঁর ডুমুরজলার বক্তব্য সকলেই শুনেছিল। অত কড়া ভাবে অভিনয় ছেড়ে দেওয়ার কথা ঘোষণা করে এখন আবার ফিরবেন কী ভাবে?’’

শুধু রূপা নন, অভিনয় জীবন থেকে বিজেপি-তে এসেছেন হেমা মালিনী থেকে লকেট চট্টোপাধ্যায়ের মতো অনেক মুখ। একতা কপূরের ‘কিঁউ কি সাস ভি কভি বহু থি’-খ্যাত  স্মৃতি ইরানি এখন কেন্দ্রীয় মন্ত্রী। তাঁকে অনেক দিনই আর অভিনয়ে দেখা যায় না। কিন্তু হেমা সদ্য একটি অ্যালবাম শ্যুট করেছেন। লকেট রাজনীতিতে যোগ দেওয়ার পরেও গোটা দশেক ছবিতে কাজ করেছেন। ভোটের মরসুমেও তাঁকে তৃণমূলের অভিনেতা-প্রার্থী চিরঞ্জিতের সঙ্গে শ্যুটিং করতে দেখা গিয়েছে। লকেটের বক্তব্য, ‘‘অভিনয়ই আমার রুটি-রুজি। ফলে সেটা ছেড়ে দেওয়ার প্রশ্নই নেই। আমি সময় ‘অ্যাডজাস্ট’ করে রাজনীতি এবং সিনেমা— দুটোই করি।’’

এখন  রূপাও ফের অভিনয় শুরু করলে কি দল আপত্তি করবে? বিজেপি-র রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষের বক্তব্য, ‘‘না! না! আপত্তি কীসের? বাবুল সুপ্রিয় মন্ত্রী হয়েও গান করছেন। লকেট সিনেমা করছেন। রাজ্যের এক মন্ত্রী থিয়েটার করছেন। তা হলে রূপা অভিনয় করলে অসুবিধে কী?’’ তবে রূপার সঙ্গে তাঁর এখনও এ বিষয়ে কোনও কথা হয়নি বলেই দিলীপবাবু জানান।

সবাই যা পড়ছেন

সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে
আরও পড়ুন

সবাই যা পড়ছেন

আরও পড়ুন