আশ্বিন এসেছে। বদলে গিয়েছে রোদের রং। পুজো আসছে। বাঙালির সবচেয়ে বড় উত্সব।

পুজোর আগেই আরও একটা দিন বাঙালির কাছে খুব স্পেশ্যাল। মহালয়া। রেডিওতে মহিষাসুরমর্দিনী শোনা এখনও বাঙালি বাড়ির রেওয়াজ। ঠিক তার পরেই টিভিতে মহালয়া। কোন বছর কোন নায়িকা দুর্গা হবেন, তা নিয়ে জল্পনা চলে। আর এখন তো বিভিন্ন বেসরকারি চ্যানেলে বিভিন্ন নায়িকা দুর্গা। সেই তালিকায় এ বার থাকছেন দর্শকদের প্রিয় দিতিপ্রিয়া রায়। আর তা নিয়ে উত্তেজিত অভিনেত্রী।

‘রানি রাসমণি’র শুটিং সেট থেকে ফোনে দিতিপ্রিয়া বললেন, “এ বছর দুর্গাও আমি, পার্বতীও আমি। এটা ফার্স্ট টাইম। মহালয়ার অনুষ্ঠানে অংশগ্রহণটাই আমার কাছে প্রথম। এর আগে কোনও ক্যারেক্টরই করিনি। অন্যান্য বছর যখন মহালয়া দেখতাম তখন মনে হত, একটা না একটা ক্যারেক্টার করব। কারণ সব বাঙালি, সারা বাংলা এ দিন টিভিতে মহালয়া দেখে। এই দিনটা নিয়ে আমার সব সময় এক্সাইটমেন্ট থাকে। এ বার দুর্গা, পার্বতী— এত বড় একটা সুযোগ, সত্যিই আমি কৃতজ্ঞ। আর দর্শকদের ভালবাসা তো রয়েইছে। আমার খুব প্রিয় পরিচালক অমিত আঙ্কেল ডিরেকশন দিচ্ছে। তাই আরও ভাল লাগছে।’’

আরও পড়ুন, রাইমা-ঋত্বিকের ‘বিয়ে’ নাকি? নজর রাখুন ‘শুভ শারদীয়া’য়

মহালয়ার জন্য আলাদা করে প্রস্তুতি নিয়েছেন দিতিপ্রিয়া। তিনি জানালেন, অনেকটা নাচ শিখতে হয়েছে। রিহার্সাল করেছেন নিয়ম করে। তার মধ্যেই চলেছে রাসমণির শুটিং। দিতিপ্রিয়ার কথায়, ‘‘রাসমণি আমারপ ফার্স্ট প্রায়োরিটি। কারণ রাসমণির হাত ধরেই দুর্গা হয়েছি। ফলে শুটিং করে তার পর রিহার্সাল বা মহালয়ার শুটিং করছি। খুব ভাল লাগছে।’’

(হলিউড, বলিউড বা টলিউড - টিনসেল টাউনের টাটকা বাংলা খবর পড়তে চোখ রাখুন আমাদের বিনোদনের সব খবর বিভাগে।)