Follow us on

Download the latest Anandabazar app

© 2021 ABP Pvt. Ltd.

Advertisement

২৯ সেপ্টেম্বর ২০২২ ই-পেপার

URL Copied

বিনোদন

বলিউডের ‘জগ্গু দাদা’ জ্যাকি শ্রফকে হুমকি দিতে হবে শুনে পিছিয়ে গিয়েছিলেন দাউদও!

নিজস্ব প্রতিবেদন
০৬ মে ২০২০ ১১:৪৮
জ্যাকি শ্রফের জীবন ‘গলি থেকে রাজপথ’ উপমার আদর্শ উদাহরণ। মুম্বইয়ের মালাবার হিলসে তাঁর জীবন শুরু। মালাবার হিলস অভিজাত এলাকা হলেও জ্যাকি সেখানে থাকতেন একটি ঘিঞ্জি বস্তিপ্রায় বাড়িতে।

অভাবের সঙ্গে যুদ্ধ করেই কেটেছে শৈশব। স্থানীয়দের কাছে তিনি পরিচিত ছিলেন ‘দাদা’ বলে। কারণ পাড়ার বিভিন্ন ঝামেলায় তিনি হামেশাই জড়িয়ে পড়তেন। এমনকি, এখনও তিনি ইন্ডাস্ট্রিতে পরিচিত ‘জগ্গু দাদা’ বলে।
Advertisement
শুধু ইন্ডাস্ট্রি-ই নয়। জ্যাকি শ্রফকে নাকি সমঝে চলতেন অন্ধকার দুনিয়ার বাদশা দাউদ ইব্রাহিমও। এক বার নাকি দু’জনের মুখোমুখি মোলাকাতে পিছু হটেছিলেন দাউদ-ই।

সে সময় বলিউডের উপরে অন্ধকার দুনিয়ার গভীর প্রভাব। অনেক সময়েই টিনসেল টাউনের পাতা নড়ত আন্ডারওয়ার্ল্ডের অঙ্গুলিহেলনে। এ রকম এক পরিস্থিতিতে জ্যাকি শ্রফ একটি সিনেমায় অভিনয় করেছিলেন যার পরিচালক ছিলেন আসরানি।
Advertisement
দিব্যা ভারতী এবং জ্যাকি শ্রফ অভিনীত এই ছবির প্রযোজক ছিলেন সমীর হিঙ্গোরা ও হানিফ কাদাওয়ালা। ছবির শুটিং প্রায় হয়েই গিয়েছিল। বাকি ছিল শেষ পর্যায়ের কিছু কাজ। যেখানে জ্যাকি শ্রফের শুটিংই বেশি বাকি ছিল।

কিন্তু শেষ পর্যায়ের সেই কাজের জন্য জ্যাকি কিছুতেই সময় বার করতে পারছিলেন না। ফলে আটেক যাচ্ছিল ছবির মুক্তি। প্রযোজকদের আর্থিক ক্ষতি হচ্ছিল। তাঁদের সঙ্গে বেশ কয়েক বার কথা হয় জ্যাকির।

কিন্তু জ্যাকি স্পষ্ট জানিয়ে দেন, তিনি কিছুতেই সেই মুহূর্তে সময় দিতে পারবেন না। কারণ তত দিনে তাঁর অন্য ছবির জন্য ডেট দেওয়া হয়ে গিয়েছিল।

এর পর দুই প্রযোজক নাকি দাউদের দ্বারস্থ হন। বলেন, নায়কের জন্য তাঁদের ছবির মুক্তি পিছিয়ে যাচ্ছে। তাঁকে যেন একটি ‘বুঝিয়ে দেওয়া হয়’। দাউদ এর পর অভিনেতার নাম জানতে চান। কিন্তু তিনি যখন শোনেন, অভিনেতার নাম জ্যাকি শ্রফ, তিনি পিছিয়ে যান।

ইন্ডাস্ট্রিতে গুঞ্জন, দাউদ নাকি দুই প্রযোজককে বলেন, জগ্গু দাদাকে তিনি চেনেন বিগত বহু বছর ধরে। তিনি কোনও ভাবেই জ্যাকিকে হুমকি দিতে পারবেন না। ফলে প্রযোজকরা যত টাকা-ই দিন না কেন, এই কাজের প্রস্তাব ফিরিয়ে দেন দাউদ ইব্রাহিম।

পরিস্থিতি বুঝে হাল ছেড়ে দেন দুই প্রযোজকও। তাঁরা সব ছেড়ে দেন জ্যাকির উপরেই। বুঝতে পারেন, জ্যাকি নিজের ইচ্ছেয় যত দিন না শুটিং করবেন, তত দিন ছবির কাজ শেষ হবে না।

খোদ দাউদ ইব্রাহিম যাঁকে সমঝে চলেন, সেই অভিনেতাকে ঘাঁটিয়ে লাভ নেই, বুঝে গিয়েছিল ইন্ডাস্ট্রি। ফলে জ্যাকি বরাবর কাজ করে গিয়েছেন দাপটের সঙ্গেই।

শেষ অবধি অবশ্য সমীর-হানিফকে জ্যাকি শ্রফ শুটিংয়ের জন্য ডেট দেন। ১৯৯২ সালের ১৭ সেপ্টেম্বর মুক্তি পায় জ্যাকি শ্রফ-দিব্যা ভারতী অভিনীত ‘দিল হি তো হ্যায়’। মুক্তি অনেক পিছিয়ে গেলেও বক্স অফিসে সফল হয়েছিল এই সিনেমা।