সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে

‘বামা বড় হয়ে গেল, আমি কেন বড় হলাম না?’

সারাক্ষণ ছটফট করছে। এক জায়গায় বসে থাকার সময় নেই তার। কখনও নাচছে, কখনও গান করছে, কখনও ক্রু মেম্বারদের সঙ্গে গল্পগুজবে সময় কাটছে।‘মহাপীঠ তারাপীঠ’-এ ছোট তারা। অদ্রিজা মুখোপাধ্যায়। বয়স দশ।তার মুখোমুখি মৌসুমী বিলকিস

ADRIJA MUKHOPADHYAY
ছোট তারার ভূমিকায় অদ্রিজা মুখোপাধ্যায়

Advertisement

 

‘মহাপীঠ তারাপীঠ’ ধারাবাহিকে তুমিকী চরিত্র করছ?

আমি ছোট বালিকা করছি, ছোট তারা।

 

এই চরিত্রটা কী কী করে?

আমার ক্যারেক্টারটা হচ্ছে... আমি সবাইকে হেল্প করি... মাঝে মাঝে সবার কাছে হঠাৎ করে চলে যাই।

 

বামাকে কী হেল্প করছ?

বামাকে তো আমি সব সময় হেল্প করি (হাসি)। বামা বড় হয়ে গেছে, এতদিন ছোট ছিল। তখনও হেল্প করেছি, এখনও করছি। আমার একটাই প্রশ্ন, বামা বড় হয়ে গেল, আমি কেন বড় হলাম না (দু’হাত নাড়িয়ে কথা বলতে বলতে একটু হতাশ)?

 

কেন?

মা তারা চাইছেন না,সেজন্য বড় হচ্ছি না।

 

শুটিংয়ের ফাঁকে কী কর?

এগজাম থাকলে শুটিংয়ের ফাঁকে পড়াশোনা করি। এগজাম না থাকলে গল্প করি, গান শুনি, নাচি।

শুটিংয়ের ফাঁকে বামা খ্যাপা ও ছোট তারা 

বামার সঙ্গে গল্প হয় না?

হ্যাঁ, তা তো করিই।

 

দুষ্টুমি কর না?

হ্যাঁ, দুষ্টুমি করতে প্রচণ্ড ভালবাসি।

 

কী দুষ্টুমি কর?

আমি তো অনেককিছু করি... লাফাই, মেকআপ রুমে নাচি... নাচতে খুব ভালবাসি। আমি নাচ শিখি।

 

কী নাচ শেখ?

ভরতনাট্যম। কিন্তু আমাকে কেউ নাচতে বললে আমি ওয়েস্টার্ন ডান্স করি। ভাললাগে ওয়েস্টার্ন।

 

কোন ক্লাসে পড়?

আমি ফাইভে পড়ি।

 

কোন স্কুলে?

জিজিএস স্কুল, সাদার্নঅ্যাভিনিউ।

 

স্কুলের বন্ধুরা তোমার অভিনয় দেখে?

হ্যাঁ। আমার একটা বন্ধু আছে, ওর নাম অঞ্চয়িতা, ও দেখে। বলে, আজকে তো এই করলি, আজকে তো ওই করলি। আমি বলি, ‘ও আচ্ছা, আচ্ছা। ঠিক আছে ঠিক আছে।’

 

পরিচালক কী বলেন?

শুভেন্দু আঙ্কেল? উনি তো খুব ভালই। শুধু বলেন, ‘রোলিং, অ্যাকশন’।

 

আর কিছু বলেন না?

আমি খুব মুভি দেখি। তো শুভেন্দু আঙ্কেল রোজ জিজ্ঞেস করেন, ‘আজ কী মুভি দেখলি?’

 

কী মুভি দেখ?

আজ দেখিনি। কাল দেখেছি ‘অ্যানাবেল’। আমি হরর মুভি দেখতে খুব ভালবাসি।

 

ভয় পেতে ভালবাস?

হুঁ। ভয় পেতে ভালবাসি।

 

কী ধরনের দৃশ্য দেখতে ভাললাগে?

এমনিতে কিছু ভয় নেই, কিন্তু ওই যাচ্ছে যাচ্ছে যাচ্ছে, ধম্‌ করে একটা আওয়াজ... ওটাই ভাললাগে। ‘নান’ আর ‘দ্য কনজিউরিং ওয়ান’ আছে না... ওই দুটো দেখতে খুব ভাললাগে।

 

‘নান’ কেন ভাললাগে?

ওটা খুব ভয়ঙ্কর।

 

শুটিংয়ে সবাই কী বলছে?

এখানে তো সবাই আমাকে বিভিন্ন নামে ডাকে... ঝাপসা বলে।

 

সেকি! কেন?

আমি ঝাপসা, তাই (হাসি)। ওরা এই নাম দিয়েছে। ঝাপসা মানেএকটু ধোঁয়া ধোঁয়া হয়ে যাওয়া, একটু আউট অব ফোকাস... হি হি...

 

তুমি সব সময় আউট অব ফোকাস?

না না... হা হা হা... ইউনিটের লোকজন এরকম নাম দিয়েছে। আমি ফোকাসেই থাকি।

 

বাড়িতে কী কর?

বাড়িতে আমি সব সময় খেলি। আমার একটা ভাই আছে, ওর নাম রায়েন, আমার ফ্ল্যাটের ওপরে থাকে, ওর সঙ্গে সব সময় খেলি।ও খুব দুষ্টু। ওর কাছে গেলেই আমাকে মারে। কিন্তু ও আমাকে ডেকে ডেকে নিয়ে যায়।

অন্য সাজে অদ্রিজা

এর আগে কী কী কাজ করেছো?

আমার ফার্স্ট কাজ ‘ঝুমুর’। গোখেলে পড়তাম। তখন শিবপ্রসাদ আর নন্দিতা আন্টিরা এসেছিলেন। আমি সেদিন অ্যাবসেন্ট ছিলাম। তো আমার এসকর্ট কার্ড থেকে ফটো ছিঁড়ে স্কুল থেকে দেওয়া হয়েছিল। ওনারা আমাকে অডিশনে ডেকেছিলেন ‘প্রাক্তন’-এর জন্য। কিন্তু আমার হাইট ম্যাচ না করায় চান্স পাইনি। পরে‘ভানুমতির খেল’, ‘দেবী চৌধুরানী’, ‘বেদের মেয়ে জ্যোৎস্না’, ‘আরব্য রজনী’ করেছি। তারপর তো এই সিরিয়ালে চান্স পেলাম।

 

‘প্রাক্তন’ থেকে বাদ পড়ার জন্য দুঃখ হয়নি?

না। আমার দুঃখ হয় না। তাছাড়া আমার তখন অ্যানুয়াল এগজাম ছিল।

 

বড় হয়ে কী হতে চাও?

বড় হয়ে অ্যাক্ট্রেস হব। আর যদি সম্ভব হয় তো বিজনেস করব।

 

কী বিজনেস?

লিপস্টিক... মানে কসমেটিক্সের। আর আমার খুব স্ল্যাম ভাল লাগে।

 

সেটা কী?

সেটা ক্লে মতো... নরম, হাতে নিয়ে চাপ দেওয়া যায়।

সবাই যা পড়ছেন

Advertisement

সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে
আরও পড়ুন
বাছাই খবর

সবাই যা পড়ছেন

আরও পড়ুন