প্রথমেই বলে রাখা ভাল, এ কোনও ছবির শুটিং নয়। তা হলে এখন অপরাজিতা  কোথায় আছেন? 

আসলে চূড়ান্ত ব্যস্ত শিডিউলে শুটিং করার পর আপাতত একটা ছোট ব্রেক নিয়েছেন অপরাজিতা। স্বামী, সেক্রেটারি এবং বান্ধবীকে নিয়ে তিনি অসম বেড়াতে গিয়েছেন।

শিলং থেকে অপরাজিতা বললেন, ‘‘ইভেন্টের কাজে গুয়াহাটি এসেছি ৩ জুন। কাজ শেষ হওয়ার পর একটা ট্যুর করে নিচ্ছি। কামাখ্যা দর্শন করার পর শিলংয়ে এত ঝামেলা হচ্ছিল, ভেবেছিলাম আসতে পারব না। কিন্তু সমস্যার মধ্যেও ঘুরেছি। চেরাপুঞ্জি, মৌসিনরাম, শিলং। গুহাটা অসাধারণ। ৯ তারিখ ফিরছি।’’

সেখানেই তিন কিলোমিটার লম্বা এক গুহায়ও ঢুকেছিলেন অভিনেত্রী। কখনও অক্সিজেনের অভাব, কখনও বা অন্ধকার। ফলে দেড় কিলোমিটার পর্যন্ত গিয়ে ফিরে আসেন।

আরও পড়ুন, পিরিয়ড তো প্রকৃতির নিয়ম, এতে লজ্জার কী আছে?

‘হামি’র সাকসেসের পর এই ট্যুর নিজেকে দেওয়া নিজের ট্রিট অপরাজিতা। তাঁর কথায়, ‘‘এ বছর ছ’টা ছবি শেষ করেছি। হেকটিক শিডিউল ছিল। কয়েক মাস আগে অজন্তা-ইলোরা গিয়েছিলাম। অসম আসার ইচ্ছে ছিল অনেক দিন। সেটা হয়ে গেল।’’

 

কখনও ডাউকি নদীতে বোটিং, কখনও বা চেরাপুঞ্জি যাওয়ার পথের ঝর্না, কখনও বা গুহার ভিতর থেকে নিজের অনুভূতির কথা আমাদের সঙ্গে শেয়ার করলেন অপরাজিতা।

ছবি এবং ভিডিয়ো সৌজন্যে: অপরাজিতা আঢ্য।