Advertisement
২৬ নভেম্বর ২০২২
Cinnamon Tea for Diabetics

উৎসবের দিনগুলিতে মিষ্টি খাওয়া বেড়ে যায়? রক্তে শর্করার মাত্রা নিয়ন্ত্রণে রাখবেন কী করে?

পুষ্টিবিদরা বলছেন, হাঁটাহাটি, শরীরচর্চা, ওষুধ খাওয়ার পাশাপাশি প্রতিদিন দু’-তিন বার দারচিনি দেওয়া চা খেলে রক্তে শর্করার মাত্রা নিয়ন্ত্রণে থাকবে।

প্রতিদিন দু’-তিন বার দারচিনি দেওয়া চা খেলে রক্তে শর্করার মাত্রা নিয়ন্ত্রণে থাকবে।

প্রতিদিন দু’-তিন বার দারচিনি দেওয়া চা খেলে রক্তে শর্করার মাত্রা নিয়ন্ত্রণে থাকবে। ছবি- সংগৃহীত

নিজস্ব সংবাদদাতা
কলকাতা শেষ আপডেট: ২৮ সেপ্টেম্বর ২০২২ ১৮:২৩
Share: Save:

সারা বছর ডায়াবিটিস নিয়ে যতই মাথাব্যথা থাক, পুজো-পার্বণের দিনেও বেজার মুখে মিষ্টি বিহীন সন্দেশ খেয়ে কাটাতে কার ভাল লাগে? উৎসবের তো শেষ নেই। নিজের বাড়িতে সজ্ঞানে মিষ্টি না খেলেও কারও বাড়িতে পুজোর প্রসাদে মিষ্টি থাকলে কি ফেলে দেবেন? তার পর ঠাকুর দেখতে বেরিয়ে হাবিজাবি খাওয়া এবং তেষ্টা মেটাতে প্রায় রোজই নরম পানীয়ে চুমুক দেওয়া সবই আছে। এ দিকে, অন্য সময়ে ভোরবেলা উঠে যেটুকু যা গা নাড়া দিতেন, রাত জেগে ঠাকুর দেখার পর তাতেও ছেদ পড়েছে। এমন অবস্থায় পুজোর ক’টা দিন কোনওমতে কেটে গেলেও, রক্তে থাকা বাড়তি শর্করার বোঝা, আপনাকে বেশি দিন সুস্থ থাকতে দেবে না।

Advertisement

পুষ্টিবিদরা বলছেন, হাঁটাহাটি, শরীরচর্চা, ওষুধ খাওয়ার পাশাপাশি প্রতিদিন দু’-তিন বার দারচিনি দেওয়া চা খেলে রক্তে শর্করার মাত্রা নিয়ন্ত্রণে থাকবে। শুধু তা-ই নয়, দারচিনির অ্যান্টি-ইনফ্ল্যামেটরি, অ্যান্টি-ডায়াবিটিক, অ্যান্টি-টিউমার, অ্যান্টি-ক্যানসার, অ্যান্টি-হাইপারগ্লাইসেমিক উপাদান বহু দুরারোগ্য ব্যধিতে আক্রান্ত হওয়ার আশঙ্কা কমায়।

দারচিনির সঙ্গে শর্করার যোগ ঠিক কী রকম?

ডায়াবিটিসের বিভিন্ন পর্যায় থাকলেও এই রোগের মূলে রয়েছে পর্যাপ্ত পরিমাণে ইনসুলিন ক্ষরণ না হওয়া। ইনসুলিন ক্ষরণের ক্ষেত্রে এই দারচিনি প্রাকৃতিক উদ্দীপকের দায়িত্ব পালন করে। দারচিনি যে ইনসুলিন ক্ষরণের মাত্রা বাড়িয়ে রক্তে শর্করার মাত্রা নিয়ন্ত্রণ করে, বিভিন্ন দেশের বিভিন্ন গবেষণায় তার প্রমাণ মিলেছে।

Advertisement

কী ভাবে খাবেন দারচিনি?

বাজারে নানা ভেষজ স‌ংস্থা, ক্যাপসুল আকারে দারচিনির নির্জাস বিক্রি করে। যদি তার গুণমান নিয়ে সন্দেহ থাকে, তা হলে বাড়িতেই ভাল মানের দারচিনি কিনে গুঁড়ো করে রাখতে পারেন। প্রতিদিন সকালে খালি পেটে এক থেকে দু’গ্রাম দারচিনি খেতে পারেন। এ ছাড়া, বার বার সাধারণ চা না খেয়ে, দু’-এক বার দারচিনির চা করেও খেতে পারেন।

প্রতিদিন সকালে খালি পেটে এক থেকে দু’গ্রাম দারচিনি খেতে পারেন।

প্রতিদিন সকালে খালি পেটে এক থেকে দু’গ্রাম দারচিনি খেতে পারেন। ছবি- সংগৃহীত

দারচিনির চা বানাবেন কী ভাবে?

১) একটি পাত্রে দু’কাপ জল ফুটতে দিন।

২) জল ফুটে গেলে, তার মধ্যে দিন এক চা চামচ দারচিনি গুঁড়ো।

৩) ২-৩ মিনিট ফোটার পর, জলের রং লালচে হয়ে এলে গ্যাস বন্ধ করে দিন।

৪) ওই অবস্থায় আরও ২ মিনিট চাপা দিয়ে রাখুন।

৫) প্যানের তলায় দারচিনির গুঁড়ো থিতিয়ে পড়লে, পরিবেশনের আগে চামচ দিয়ে নাড়িয়ে নেবেন।

(সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের Google News, Twitter এবং Instagram পেজ)
Follow us on: Save:
Advertisement
Advertisement

Share this article

CLOSE
Popup Close
Something isn't right! Please refresh.