Advertisement
১৯ জুলাই ২০২৪
Mental Health

মনের কোণে অবসাদ জাঁকিয়ে বসেছে? শান্ত থাকতে সাহায্য করতে পারে ৩ গাছ

মনের মেঘ কাটাতে ভরসা হতে পারে কিছু গাছ। ঘর সাজাতে গাছ ব্যবহার করেন অনেকেই। তবে কোন গাছগুলি মনের খেয়াল রাখবে, সেটি জেনে নেওয়া জরুরি।

মনের যত্ন নিন।

মনের যত্ন নিন। ছবি: সংগৃহীত।

আনন্দবাজার অনলাইন ডেস্ক
কলকাতা শেষ আপডেট: ০৬ জুন ২০২৪ ১৩:২১
Share: Save:

শরীরের যত্নআত্তির বিষয়ে অনেকেই সচেতন। সুস্থ থাকতে নানা নিয়ম মেনেও চলেন। ব্যস্ততা, কর্মক্ষেত্রে অত্যধিক চাপ, ব্যক্তিগত জীবনের টানাপড়েনের প্রভাব যে শুধু শরীরে পড়ে তা নয়, মনেও পড়ে। কিন্তু মনের খেয়াল রাখার বিষয়টি আড়ালেই থাকে। উদ্বেগ, অবসাদ জাঁকিয়ে বসে মনে। তবে মনের মেঘ কাটাতে ভরসা হতে পারে কিছু গাছ। ঘর সাজাতে গাছ ব্যবহার করেন অনেকেই। তবে কোন গাছগুলি মনের খেয়াল রাখবে, সেটা জেনে নেওয়া জরুরি।

পিস লিলি

বাকি গাছগুলির মতো এটিও বাতাস ভারী হতে দেয় না। ফলে অস্বস্তি কম হয়। সামান্য যত্নেই দিব্যি বেঁচে থাকতে পারে এই গাছ। তবে কড়া রোদ আসে, ঘরের এমন জায়গায় এই গাছ না রাখাই ভাল। মাটি একটু ভেজা থাকলে এই গাছ খুব ভাল থাকে। সারা বছর ধরেই এই গাছে সাদা ফুল হয়। যা এই গাছটির জনপ্রিয়তার সবচেয়ে বড় কারণ। সৌন্দর্য বাড়িয়ে তোলার পাশাপাশি ঘরের বাতাস পরিশুদ্ধ রাখতেও সাহায্য করে পিস লিলি।

অ্যান্থুরিয়াম বা ফ্ল্যামিংগো লিলি

এটি ঘরের যে কোনও জায়গায় রাখা যায়। তবে খেয়াল করবেন, আলো ভালবাসে এই গাছ। সারা বছর লাল রঙের ফুল ফোটে। পিস লিলি-র মতো এর মাটিও একটু ভিজে রাখতে পারলে ভাল হয়। বাতাস থেকে বিভিন্ন ধরনের দূষিত পদার্থ শোষণ করে নিতে পারে এই গাছ।

স্নেক প্লান্ট

ঘরের বাতাস থেকে আর্দ্রতা শুষে নেয় স্নেক প্লান্ট। বাতাস ফুরফুরে রাখে। ফলে অস্বস্তি কম হয়। খুব কম জলে বেঁচে থাকে এই গাছগুলি। খুব বেশি আলোরও প্রয়োজন নেই এদের। তাই ঘরের কোণে, যেখানে সরাসরি সূর্যের আলো পৌঁছয় না, সেখানেও রাখতে পারেন এই গাছগুলি। সপ্তাহে এক দিন বা কোনও কোনও সময়ে দশ দিনে এক বার জল দিলেও চলে।

(সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের Google News, X (Twitter), Facebook, Youtube, Threads এবং Instagram পেজ)

অন্য বিষয়গুলি:

Mind Depression
সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের মাধ্যমগুলি:
Advertisement

Share this article

CLOSE