Follow us on

Download the latest Anandabazar app

© 2021 ABP Pvt. Ltd.

Advertisement

১৮ জানুয়ারি ২০২২ ই-পেপার

দত্তক নেওয়া ছেলের হিন্দু মতে বিয়ে দিল মুসলিম পরিবার

সংবাদ সংস্থা
দেহরাদূন ১৩ ফেব্রুয়ারি ২০১৮ ১১:১৯
স্ত্রীর সঙ্গে রাকেশ। ছবি: টুইটারের সৌজন্যে।

স্ত্রীর সঙ্গে রাকেশ। ছবি: টুইটারের সৌজন্যে।

ধর্ম পরিচয়ের চেয়ে সন্তান প্রেম যে অনেক বড়, সেটাই প্রমাণ করল দেহরাদূনের এক মুসলমান পরিবার। হিন্দু পরিবার থেকে দত্তক নেওয়া ছেলেকেও যে তারই ধর্ম এবং সংস্কারে বড় করে তোলা যায়, সে দৃষ্টান্ত আগেই তৈরি করেছিলেন দেহরাদূনের বাসিন্দা মউনুদ্দিন এবং তাঁর স্ত্রী কওসার।

এ বার তার বিয়েও দিলেন হিন্দু রীতি মেনেই। গত ৯ ফেব্রুয়ারি, বিয়ে হয় রাকেশ রাস্তোগি নামে ওই যুবকের। তাঁর স্ত্রী সোনি হিন্দু পরিবারের মেয়ে।

সংবাদ সংস্থা এএনআইকে দেওয়া সাক্ষাৎকারে রাকেশ বলেছেন, ‘‘ছোট থেকেই আমি দোল, দিওয়ালি-সহ হিন্দুদের যাবতীয় উৎসব এবং পার্বণে অংশে নিয়েছি। আব্বা-আম্মু কখনও আপত্তি করেনি। ওঁরা আমাকে খুব ভালবাসেন এবং যে কোনও কাজেই উৎসাহ দিয়েছেন। এমনকী আমার বিয়েতেও।’’

Advertisement

সংবাদ সংস্থা এএনআই-এর সেই টুইট


রাকেশের যখন ১২ বছর বয়স, তখন তাকে দত্তক নিয়েছিল মউনুদ্দিন দম্পতি। ছোট থেকে হিন্দু সংস্কৃতি মেনেই রাকেশকে বড় করে তুলেছিলেন তাঁরা। কখনও তার উপর ধর্মীয় নিষেধাজ্ঞা চাপিয়ে দেওয়া হয়নি। তাই দোলের রং হোক বা আলোর উৎসব— নিজের বাড়িতেই পালন করেছেন রাকেশ। তাঁর কথায়, ‘‘আমি বুঝতেই পারিনি একটি মুসলিম পরিবারে বেড়ে উঠছি। পুজোআচ্চাও নিজের মতো করে করতাম।’’

আরও পড়ুন, দলিত ছাত্র খুনে উত্তাল ইলাহাবাদ

আরও পড়ুন, ভাগবতের সেনা মন্তব্যে তুমুল ঝড় দেশ জুড়ে

এই উপমহাদেশে যখন ধর্ম-ভাষা-সংস্কৃতির বিভাজন নিয়ে একটা অংশ মাতোয়ারা, তখন দেহরাদূনের ওই ছোট্ট পরিবারে ঘটে গেল নিঃশব্দ বিপ্লব!

আরও পড়ুন

Advertisement