Advertisement
১৮ জুন ২০২৪
Aam Aadmi Party

আবগারি দুর্নীতির চার্জশিটে ‘অভিযুক্ত’ আপ, সুপ্রিম কোর্টকে ইডি বলল, টাকা পেয়েছে কেজরীর দল

দিল্লি হাই কোর্টে এর আগে ইডি জানিয়েছিল, আবগারি দুর্নীতি মামলার চার্জশিটে দিল্লির মুখ্যমন্ত্রী অরবিন্দ কেজরীওয়ালের দল আম আদমি পার্টি (আপ)-কে ‘অভিযুক্ত’ করা হবে।

প্রতিনিধিত্বমূলক ছবি।

আনন্দবাজার অনলাইন ডেস্ক
কলকাতা শেষ আপডেট: ১৭ মে ২০২৪ ১৭:৪৩
Share: Save:

দিল্লির আবগারি দুর্নীতি সংক্রান্ত বেআইনি আর্থিক লেনদেনের মামলা। ‘অভিযুক্ত’ হিসাবে ‘আম আদমি পার্টি’ (আপ)-র নাম চার্জশিটে রাখা হবে। শুক্রবার তদন্তকারী সংস্থা এনফোর্সমেন্ট ডিরেক্টরেট(ইডি)-এর তরফে সুপ্রিম কোর্টকে এ কথা জানানো হয়েছে। সে ক্ষেত্রে আপই হবে দেশের প্রথম স্বীকৃত রাজনৈতিক দল, দুর্নীতির মামলায় যাকে ‘অভিযুক্ত’ হিসেবে দেখানো হবে।

আবগারি দুর্নীতির মামলায় দিল্লির মুখ্যমন্ত্রী অরবিন্দ কেজরীওয়াল, প্রাক্তন উপমুখ্যমন্ত্রী মণীশ সিসৌদিয়া-সহ আপের শীর্ষ নেতৃত্বের অনেককেই জড়িয়েছে ইডি। এ বার আবগারি দুর্নীতির টাকা দলের কাজে খরচ করার অভিযোগ এনে সেই বৃত্তে আপকেও নিয়ে আসছে কেন্দ্রীয় তদন্তকারী সংস্থাটি। শুক্রবার শীর্ষ আদালতে কেজরীর গ্রেফতারি সংক্রান্ত মামলার শুনানিতে ইডির আইনজীবী, অতিরিক্ত সলিসিটর জেনারেল এসভি রাজু জানান, বিশেষ আদালতে বিচারাধীন আবগারি দুর্নীতির মামলায় ‘অভিযুক্ত’ হিসাবে কেজরীর তৈরি দলের নামও উল্লিখিত হয়েছে। তিনি বলেন, ‘‘ওই মামলায় একটি অতিরিক্ত চার্জশিট জুড়ে দিয়ে আপকে দুর্নীতিতে অভিযুক্ত করা হবে।’’

ভোটের প্রচারের জন্য সুপ্রিম কোর্ট কেজরীওয়ালকে অন্তর্বর্তী জামিন দেওয়ার পর ইডির তরফে এমন পদক্ষেপ করার কথা জানানো হল। প্রসঙ্গত, এর আগে দিল্লির আবগারি দুর্নীতি মামলায় বেআইনি আর্থিক লেনদেনের মামলার শুনানিতে আপকে একটা ‘কোম্পানি’র সঙ্গে তুলনা করেছিল ইডি। শুধু তা-ই নয়, কেজরীওয়ালকে সেই ‘কোম্পানি’র ডিরেক্টর বলেও উল্লেখ করেছিল কেন্দ্রীয় সংস্থাটি। তাদের যুক্তির ব্যাখ্যা দিতে গিয়ে ইডি বেআইনি ভাবে অর্থ লেনদেন বা পিএলএমএ আইনের ৭০ নম্বর ধারার কথা উল্লেখ করেছিল।

কোনও কোম্পানির ডিরেক্টর, ম্যানেজার, সেক্রেটারি বা অন্য কোনও উচ্চপদস্থ কর্তা যদি কোনও ভাবে আর্থিক তছরুপের সঙ্গে জড়িত থাকেন, তবে ওই ধারা লঙ্ঘিত হয়। গত ২১ মার্চ দিল্লির আবগারি দুর্নীতি মামলায় ইডির হাতে গ্রেফতার হয়েছিলেন কেজরীওয়াল। তাঁর গ্রেফতারিকে ‘বেআইনি’ বলে দাবি করে প্রথমে দিল্লি হাই কোর্টের দ্বারস্থ হয়েছিলেন কেজরী। কিন্তু দিল্লি হাই কোর্টের বিচারপতি স্বর্ণকান্তা শর্মা চলতি মাসের গোড়ায় সেই আবেদন খারিজ করে দেওয়ায় শীর্ষ আদালতের শরণাপন্ন হয়েছেন আপ প্রধান। সেই মামলারই শুনানি ছিল শুক্রবার। ইডির যুক্তি শোনার পরে রায় ঘোষণা স্থগিত রেখেছে সুপ্রিম কোর্ট। পাশাপাশি, অন্তর্বর্তী জামিনে মুক্ত কেজরীকে স্থায়ী জামিনের জন্য নিম্ন আদালতে আবেদনেরও অনুমতি দিয়েছে।

(সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের Google News, X (Twitter), Facebook, Youtube, Threads এবং Instagram পেজ)
সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের মাধ্যমগুলি:
Advertisement

Share this article

CLOSE