Advertisement
১৪ জুলাই ২০২৪
Kidnap

বন্দুক ঠেকিয়ে কলেজ থেকে অপহরণ ছাত্রকে, গাড়িতে তুলে নিয়ে গিয়ে মারধর, পালিয়ে বাঁচলেন

ছাত্রের কথায়, “একটা সময় মনে হচ্ছিল আর বোধ হয় বেঁচে ফিরব না। গাড়ির ফুটবোর্ডে উপুড় হয়ে শুয়েছিলাম। সেই সময় একটি লোহার রড দেখতে পাই”।

প্রতীকী ছবি।

প্রতীকী ছবি।

আনন্দবাজার অনলাইন ডেস্ক
কলকাতা শেষ আপডেট: ১১ এপ্রিল ২০২৪ ১২:৪৪
Share: Save:

কলেজের সামনে থেকে এক ছাত্রকে অপহরণ করল দুষ্কৃতীরা। অভিযোগ, চলন্ত গাড়িতে মারধরও করা হয় ছাত্রকে। শেষমেশ অপহরণকারীদের হাত থেকে পালিয়ে বাঁচলেন তিনি। বুধবার ঘটনাটি ঘটেছে উত্তরপ্রদেশের লখনউয়ে।

পুলিশকে ওই ছাত্র জানিয়েছেন, সকাল ৮টা নাগাদ বাড়ি থেকে বার হন। ৯টায় কলেজের সামনে বাস থেকে নামেন। তার পর বাড়িতে ফোন করে জানান, তিনি কলেজে পৌঁছে গিয়েছেন। কলেজে ঢুকতে যাবেন, এমন সময় একটি গাড়ি জোরে ব্রেক কষে তাঁর সামনে দাঁড়ায়। তার পর গাড়ি থেকে কয়েক জন বেরিয়ে তাঁর মাথায় বন্দুক ঠেকিয়ে জোর করে গাড়িতে তুলে নেন।

ছাত্র আরও বলেন, “গাড়ি উঠিয়েই আমাকে মারধর করা হয়। পোশাক ছিঁড়ে দেওয়া হয়। শাসানো হয়, চিৎকার করলে প্রাণে মেরে দেবে বলে। আমাকে যাঁরা অপহরণ করেছিলেন, তাঁদের চিনতে পেরেছি। অপহরণকারীদের মধ্যে ছিলেন রাম নরেশ, তাঁর ছেলে আশিস এবং অরবিন্দ এবং তাঁদের দুই সঙ্গী। সকলেই সীতাপুরের বাসিন্দা।” লখনউয়ের এ দিক-ও দিক বেশ কয়েক ঘণ্টা ধরে গাড়িটি ঘোরে। তার পর একটি শুনশান জায়গায় জঙ্গলের মধ্যে গাড়িটি দাঁড় করান অপহরণকারীরা।

ছাত্রের কথায়, “একটা সময় মনে হচ্ছিল আর বোধ হয় বেঁচে ফিরব না। গাড়ির ফুটবোর্ডে উপুড় হয়ে শুয়েছিলাম। সেই সময় একটি লোহার রড দেখতে পাই। গাড়ি থেকে অপহরণকারীরা নামতেই সেই রড দিয়ে গাড়ির কাচ ভেঙে লাফ মেরে পালাই।” পুলিশ জানিয়েছে, আক্রান্ত ছাত্রের নাম উৎকর্ষ। প্রাথমিক ভাবে মনে করা হচ্ছে, তাঁর বাবার সঙ্গে জমিজমা সংক্রান্ত বিষয়ে কোনও ঝামেলা চলছিল। তার জেরেই ছাত্রকে অপহরণ করা হয়েছিল। অভিযুক্তদের খোঁজে তল্লাশি চালানো হচ্ছে।

(সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের Google News, X (Twitter), Facebook, Youtube, Threads এবং Instagram পেজ)

অন্য বিষয়গুলি:

Kidnap college student Lucknow
সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের মাধ্যমগুলি:
Advertisement

Share this article

CLOSE