Follow us on

Download the latest Anandabazar app

© 2021 ABP Pvt. Ltd.

Advertisement

১২ অগস্ট ২০২২ ই-পেপার

URL Copied
Something isn't right! Please refresh.

Rahul Gandhi: উড়ানের টিকিট পেতে বেশি সুযোগ উত্তর ভারতীয়দের? অভিযোগ ইউক্রেনে আটকে পড়া পড়ুয়াদের

পড়ুয়াদের দেশে ফেরানোর ক্ষেত্রে উত্তর ভারতীয় ছাত্রদের অগ্রাধিকার দেওয়া হচ্ছে বলেও উঠছে বৈষম্যের অভিযোগ তুলেছেন তামিলনাড়ু ও কেরলের পড়ুয়ারা।

সংবাদ সংস্থা
নয়াদিল্লি ০৬ মার্চ ২০২২ ০৬:০৪
Save
Something isn't right! Please refresh.


ফাইল চিত্র।

Popup Close

যে শৌচাগার পরিষ্কার করবে তাঁকেই আগে দেশে ফেরানো হবে— ইউক্রেনে আটকে পড়া ভারতীয় পড়ুয়াদের দেশে ফেরানোর জন্য এমনই শর্ত রাখা হয়েছিল বলে একটি সংবাদমাধ্যমে জানিয়েছেন এক পড়ুয়া। এই খবর ছড়িয়ে পড়তেই এমন আচরণের তীব্র নিন্দা জানিয়েছেন কংগ্রেস নেতা রাহুল গান্ধী। তাঁর বক্তব্য, এই ঘটনার মাধ্যমে গোটা দেশকে অসম্মান করা হয়েছে। এর পাশাপাশি পড়ুয়াদের দেশে ফেরানোর ক্ষেত্রে উত্তর ভারতীয় ছাত্রদের অগ্রাধিকার দেওয়া হচ্ছে বলেও উঠছে বৈষম্যের অভিযোগ তুলেছেন তামিলনাড়ু ও কেরলের পড়ুয়ারা।

আজ রাহুল টুইট করে লিখেছেন, ‘‘সঙ্কটে পড়া ছাত্রদের সঙ্গে এমন লজ্জাজনক ব্যবহার গোটা দেশেরই অপমান। অপারেশন গঙ্গার এই সত্যি, মোদী সরকারের প্রকৃত চেহারা তুলে ধরেছে।’’ এর সঙ্গে সংশ্লিষ্ট সংবাদমাধ্যমের খবরটিও টুইট করেন রাহুল।

সংশ্লিষ্ট সংবাদমাধ্যমে দেওয়া সাক্ষাৎকারে দিব্যাংশী সচান নামে প্রথম বর্ষের এক পড়ুয়ার অভিযোগ, ১৫ কিলোমিটার হেঁটেছেন তাঁরা। প্রবল ঠান্ডায় চার রাত খোলা আকাশের নীচে কাটাতে
হয়েছে। ওই পড়ুয়ার অভিযোগ, অপারেশন গঙ্গার নামে মোদী সরকার স্রেফ নিজেদের প্রচার করছে। দিব্যাংশীর মন্তব্য, যদি ইউক্রেনে ঢুকে পড়য়াদের উদ্ধার করা হত, সেই ঘটনাকে উদ্ধারকাজ বলা যেত। কিন্তু কঠিন রাস্তা ও গোলাগুলির মধ্যে থেকে প্রাণ হাতে করে অন্য দেশে পৌঁছনোর পরে সরকার শুধু উড়ানে তাঁদের দেশে ফেরত আনছে। দিব্যাংশীর কথায়, ‘‘একে উদ্ধারকাজ বলে না। দেশের মানুষের সত্যিটা জানা উচিত।’’

Advertisement

প্রতিভা নামে এক মেডিক্যাল পড়ুয়া ভারতীয় দূতাবাসের সাহায্য না মেলা ও দুর্ব্যবহারের বিষয়টি জানিয়েছেন। তাঁর কথায়, ‘‘রোমানিয়ায় ভারতীয় দূতাবাসের কর্মীরা খুব খারাপ ব্যবহার করেন। ওঁরা বলেন, ‘যে বাথরুম পরিষ্কার করবে, তাঁকে প্রথমে ভারতে ফেরানো হবে, বাকিদের পরে।’’’ এতেই অবশ্য শেষ নয় অভিযোগের পালা। দেশে ফেরানোর ক্ষেত্রে পক্ষপাতের অভিযোগ তুলেছেন বহু পড়ুয়া। সিপিআইএমএল নেত্রী কবিতা কৃষ্ণণের টুইট, ‘‘তামিলনাড়ুর পড়ুয়ারা জানিয়েছেন, বিদেশ মন্ত্রকের সাহায্য ছাড়াই ইউক্রেন থেকে কোনও মতে পোল্যান্ড পৌঁছনোর পরে উত্তর ভারতের পড়ুয়াদের দেশে ফেরানোর ক্ষেত্রে অগ্রাধিকার দেওয়া হচ্ছে। সরকারি নীতি অনুযায়ী, যিনি প্রথম নাম নথিভুক্ত করবেন, তাঁকে আগে দেশে ফেরানো হবে। কিন্তু কেরল ও তামিলনাড়ুর পড়ুয়ারা আগে পৌঁছলেও তাঁদের নাম তালিকা থেকে মুছে ফেলে উত্তর ভারতীয় পড়ুয়াদের আগে ফেরানো হচ্ছে।’’

প্রসঙ্গত, ইউক্রেনে আটকে পড়া ছাত্রছাত্রীদের দেশে ফেরানোর জন্য অপারেশন গঙ্গা প্রকল্প শুরু করেছে নরেন্দ্র মোদী সরকার। এমনকি চার কেন্দ্রীয় মন্ত্রীকেও ইউক্রেনের সীমান্তবর্তী চারটি দেশে উদ্ধারকাজ খতিয়ে দেখতে পাঠানো হয়। এই উদ্ধারকাজ নিয়ে উত্তরপ্রদেশ নির্বাচনে মহাসমারোহে প্রচার করছেন স্বয়ং নরেন্দ্র মোদী। যার ফলে উদ্ধারকাজের পিছনে মোদী সরকারের ‘উদ্দেশ্য’ নিয়েই প্রশ্ন তুলছেন বিরোধীরা।

(সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের Google News, Twitter এবং Instagram পেজ)


Something isn't right! Please refresh.

Advertisement