×

আনন্দবাজার পত্রিকা

Advertisement

১৩ মে ২০২১ ই-পেপার

কয়েক দিনের মধ্যেই আসবে টিকা, দাবি এইমসের ডিরেক্টর গুলেরিয়ার

সংবাদ সংস্থা
নয়াদিল্লি ৩১ ডিসেম্বর ২০২০ ১০:১৪
প্রতীকী চিত্র।

প্রতীকী চিত্র।

নতুন বছরে কি হাতে আসতে চলেছে করোনার টিকা? বুধবার তেমনই ইঙ্গিত দিলেন এইমসের অধিকর্তা রণদীপ গুলেরিয়া। তাঁর দাবি, কয়েক দিনের মধ্যেই করোনার টিকা হাতে পেতে চলেছে দেশ।

সম্প্রতি অক্সফোর্ড বিশ্ববিদ্যালয় এবং অ্যাস্ট্রাজেনেকার তৈরি করোনা টিকা ব্যবহারের জন্য ছাড়পত্র দিয়েছে ব্রিটেন। ওই টিকা ভারতে তৈরি করছে পুণের সিরাম ইনস্টিটিউট অব ইন্ডিয়া। ব্রিটেনের ওই সিদ্ধান্ত নিয়ে গুলেরিয়ার দাবি, ‘‘শুধু ভারত নয়, বিশ্বের বিভিন্ন অংশের পক্ষেই এটা বড় পদক্ষেপ।’’

গুলেরিয়া বলেন, ‘‘এই টিকা ২ থেকে ৮ ডিগ্রি সেলসিয়াস উষ্ণতায় সংরক্ষণ করা যায়। এটা সংরক্ষণ এবং পরিবহণের পক্ষেও সহজ। একটা সাধারণ রেফ্রিজারেটরেই এই টিকা সংরক্ষণ করা যেতে পারে। কিন্তু ফাইজারের টিকার জন্য মাইনাস ৭০ ডিগ্রি সেলসিয়াস তাপমাত্রা প্রয়োজন।’’ এর পরেই তিনি যোগ করেন, ‘‘দেশের একটি বড় অংশে টিকাকরণ কর্মসূচি চলবে। অদূর ভবিষ্যতে আমরা দেশে করোনার টিকা পাব।’’

Advertisement

আরও পড়ুন: চাপের মুখে দর কষাকষিতেও মোদী সরকারের ‘নরম সুর’

আরও পড়ুন: পুরভোটে বিজেপি ধরাশায়ী হরিয়ানায়

টিকাকরণ শুরু হতে কতটা সময় লাগতে পারে? এই প্রশ্নের উত্তরে গুলেরিয়ার দাবি, ‘‘অক্সফোর্ডের ওই টিকা নিয়ে ব্রিটেন, ব্রাজিল এবং দক্ষিণ আফ্রিকায় চলা ক্লিনিক্যাল ট্রায়ালের বিপুল তথ্য সরকারের হাতে এসেছে। মিলেছে সিরাম ইনস্টিটিউটের তথ্যও। আমার মতে, কয়েক দিনের মধ্যেই নিয়ন্ত্রক সংস্থার ওই টিকাকে ছাড়পত্র দেওয়া উচিত।’’

ব্রিটেনের পর, এ দেশেও ব্রিটিশ-সুইডিশ সংস্থা অ্যাস্ট্রাজেনেকার যৌথ ভাবে তৈরি প্রতিষেধক কোভিশিল্ডকে ছাড়পত্র দেওয়া হতে পারে বলে জল্পনা দেখা দিয়েছে। করোনার প্রতিষেধক প্রায় হাতে প্রায় চলে এসেছে, গত কয়েক দিন ধরেই এমন আবহ তৈরি হয়েছে এ দেশে। তাতে ইন্ধন জুগিয়েছে বিশেষজ্ঞদের কমিটির বুধবারের বৈঠক। আগামী ১ জানুয়ারি ফের বৈঠকে বসতে চলেছে ওই কমিটি। সূত্রের খবর, সেখানেই হয়তো মিলতে পারে সবুজ সঙ্কেত।

Advertisement