Advertisement
২৮ মার্চ ২০২৩

তামিলে টক্কর দিচ্ছেন কার্তি, উত্তর একটাই—জানি না!

সব মিলিয়ে প্রাক্তন অর্থমন্ত্রী পি চিদম্বরমের পুত্রকে নিয়ে জেরবার সিবিআই অফিসারেরা। কারণ, শাসন করতে গেলেও কার্তি পাল্টা ট্যারা জবাব দিচ্ছেন।

প্রেমাংশু চৌধুরী
নয়াদিল্লি শেষ আপডেট: ০৩ মার্চ ২০১৮ ০৩:২৩
Share: Save:

মুখে একরাশ বিরক্তি। ভ্রু সবসময় কুঁচকে রয়েছেন। প্রশ্ন করলে কার্তি চিদম্বরমের উত্তর একটাই—জানি না!

Advertisement

সকাল-বিকেল আইনজীবীদের সঙ্গে কথা বলার অনুমতি মিলেছে। কিন্তু কার্তি আইনজীবীদের সঙ্গে কথা বলছেন বিশুদ্ধ তামিলে!

সব মিলিয়ে প্রাক্তন অর্থমন্ত্রী পি চিদম্বরমের পুত্রকে নিয়ে জেরবার সিবিআই অফিসারেরা। কারণ, শাসন করতে গেলেও কার্তি পাল্টা ট্যারা জবাব দিচ্ছেন।

বৃহস্পতিবার পাটিয়ালা হাউস কোর্টের বিশেষ সিবিআই আদালতে তোলা হয়েছিল কার্তিকে। এজলাসে তাঁকে এক বন্ধুর সঙ্গে তামিলে কথা বলতে দেখে সিবিআইয়ের এক অফিসার বলেন, ‘যা বলার, ইংরেজিতে বলুন।’ কার্তির জবাব, ‘তা হলে আপনাদেরও সব কথা ইংরেজিতে বলতে হবে।’ ওই অফিসার পাল্টা বলেন, ‘হেফাজতে আপনি রয়েছেন, আমরা নই।’

Advertisement

এতেও দমেননি কার্তি। শুনানির শেষে এজলাসেই বাবা-মায়ের সঙ্গে দেখা করার অনুমতি দেওয়া হয় তাঁকে। সিবিআইয়ের শর্ত ছিল, বাবা-মায়ের সঙ্গে কথাবার্তার সময় তদন্তকারী অফিসার হাজির থাকবেন। কিন্তু বাবা-মায়ের মাঝখানে বসে কার্তি বাবার সঙ্গে এমন নিচু গলায় কথা শুরু করেন যে সিবিআই অফিসার সুবিধা করতে পারেননি। তার মধ্যে আবার অফিসারের সঙ্গে গল্প জুড়ে দেন মা নলিনী। ফলে বাবা ছেলের কানে কানে কী বলছেন, তা বোধগম্য হয়নি ওই অফিসারের। খাওয়াদাওয়া নিয়েও গন্ডগোল! এজলাসে কার্তির জন্য ঠান্ডা জলের বোতল এনে দিয়েছিলেন বন্ধুরা। সিবিআই অফিসারেরা তা সরিয়ে নিয়ে আলাদা জলের বোতল দেন। আবার বাড়ির খাবার খাবেন বলে কার্তির অনুরোধ আদালত গ্রাহ্য করেনি। চিদম্বরম-পুত্র দাবি করেন, অ্যাপ-এ খাবার অর্ডার করতে হবে। অফিসার বলেন, ও সব অ্যাপ তাঁর মোবাইলে নেই। কার্তির দাবি, ‘দেরি না করে অ্যাপ ডাউনলোড করুন।’

(সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের Google News, Twitter এবং Instagram পেজ)
Follow us on: Save:
Advertisement
Advertisement

Share this article

CLOSE
Popup Close
Something isn't right! Please refresh.