Follow us on

Download the latest Anandabazar app

© 2021 ABP Pvt. Ltd.

Advertisement

১৭ মে ২০২২ ই-পেপার

URL Copied
Something isn't right! Please refresh.

মায়ার খেলায় বিপাকে কংগ্রেস, ছত্তীসগঢ়ে অজিতের পাশে বিএসপি

বিএসপি নেত্রী ঘোষণা করেছিলেন, সম্মানজনক আসন না পেলে তিনি কোনও জোটে যাবেন না।

নিজস্ব সংবাদদাতা
নয়াদিল্লি ২০ সেপ্টেম্বর ২০১৮ ২১:০৬
Save
Something isn't right! Please refresh.
কাছাকাছি। অজিত জোগী ও মায়াবতী। ছবি- সংগৃহীত।

কাছাকাছি। অজিত জোগী ও মায়াবতী। ছবি- সংগৃহীত।

Popup Close

শুরু হয়ে গেল মায়ার খেলা!

আজ সবাইকে চমকে গিয়ে অজিত জোগীর নতুন তৈরি করা জনতা কংগ্রেসের সঙ্গে বিএসপি জোট ঘোষণা করে দিল ছত্তীসগঢ়ের আসন্ন বিধানসভা ভোটে। কংগ্রেস যখন মধ্যপ্রদেশ এবং ছত্তীসগঢ়ে মায়াবতীর ভোটব্যাঙ্ককে পাশে পাওয়ার জন্য আপ্রাণ চেষ্টা করছে, তখন এই সিদ্ধান্ত বিরোধী জোটের কাছে একটি ধাক্কা বলেই মনে করা হচ্ছে। রাজনৈতিক শিবিরের এমনও ধারণা, অজিত জোগীর এই নতুন দল বকলমে বিজেপির হয়েই কাজ করছে, যার আসল উদ্দেশ্য বিরোধী ঐক্যে চিড় খাওয়ানো। সে কাজে মায়াবতীকেও কাজে লাগাচ্ছে বিজেপি।

কয়েক দিন আগেই বিএসপি নেত্রী ঘোষণা করেছিলেন, সম্মানজনক আসন না পেলে তিনি কোনও জোটে যাবেন না। আজ ছত্তীসগঢ়ের মোট ৮০টির মধ্যে ৩৫টি আসনেই তিনি লড়বেন বলে জানিয়েছেন। সূত্রের খবর, কংগ্রেস এই রাজ্যে তাঁকে ৯টির বেশি আসন দিতে রাজি ছিল না। কংগ্রেস সূত্রের বক্তব্য, ‘‘সংখ্যাটা এখানে বড় কথা নয়। মায়াবতী নিজেও জানেন যে তাঁর বর্তমান শক্তি নিয়ে এই রাজ্যে ৯টির বেশি আসনে দাঁড়ানো অর্থহীন। তাঁর কংগ্রেসের সঙ্গে না-আসার পিছনে বিজেপির খেলা রয়েছে।’’

Advertisement

উত্তরপ্রদেশেও মায়াবতীকে বিজেপি-বিরোধী জোটে পাওয়ার আশা ক্রমশ ঘোলাটে হয়ে আসছে এসপি-কংগ্রেসের সামনে। অখিলেশ এখনও প্রকাশ্যে সে কথা বলছেন না। বরং তিন দিন আগেও লখনউয়ে সাংবাদিকদের জানিয়েছেন, বিজেপি-বিরোধী ফ্রন্ট গঠন করার জন্য তিনি দু’পা পিছোতেও প্রস্তুত। মায়াবতী চাইলে উত্তরপ্রদেশে যথেষ্ট সংখ্যক আসন দিতে পিছপা হবেন না। এমনটাও বলেছেন যে, প্রধানমন্ত্রী উত্তরপ্রদেশ থেকে হওয়াটাই কাম্য। কিন্তু অখিলেশ যতই আলোচনা করার জন্য উৎসাহ দেখান, টালবাহানা করে চলেছেন নেত্রী।

রাজনৈতিক শিবিরের বক্তব্য, বিজেপি এক দিকে সিবিআই জুজু দেখাচ্ছে মায়াবতীকে। অন্য দিকে তোষামোদের রাস্তাতেও হাঁটছে। কারণ উত্তরপ্রদেশে ৮০টি আসনে যদি বিরোধী মহাজোট শেষ পর্যন্ত হয়, তা হলে গেরুয়া শিবিরে ধস নামার সম্ভাবনা যথেষ্ট। কিছু সূত্রের এ-ও বক্তব্য, ফুলপুর এবং নূরপুরে জোট করে বিজেপিকে হারিয়ে মায়াবতী আসলে বিজেপির কাছেই নিজের গুরুত্বটা বাড়িয়ে নিয়েছেন। আজ ছত্তীসগঢ়ে কংগ্রেসের হাত না ধরে মায়া বিরোধী জোটকে অনেকটাই হতাশ করে দিয়েছেন।

আরও পড়ুন- মায়াবতীর বিরুদ্ধে কুকথার ক্ষত মোদীর উন্নয়নের মলমেও ঢাকছে না​

আরও পড়ুন- ত্রিশঙ্কুর আশঙ্কা, মায়াকে নিয়ে পুরনো কটু মন্তব্য মুছছে বিজেপি​



Something isn't right! Please refresh.

আরও পড়ুন

Advertisement