Follow us on

Download the latest Anandabazar app

© 2021 ABP Pvt. Ltd.

Advertisement

২৬ জানুয়ারি ২০২২ ই-পেপার

পুরনো কথা মনে রাখা হবে না, ফিরে আসুন, দলের হয়ে সচিনকে বার্তা চিদম্বরমের

এর আগে রাজস্থান সরকারের অন্দরে টানাপড়েন চলাকালীন চিদম্বরম নিজে ফোন করেছিলেন সচিন পাইলটকে। গতকাল তাঁকে ফোন করেন পাইলট।

সংবাদ সংস্থা
নয়াদিল্লি ১৭ জুলাই ২০২০ ১২:৪৪
সচিনকে দলে ফিরতে অনুরোধ চিদম্বরমের। —ফাইল চিত্র।

সচিনকে দলে ফিরতে অনুরোধ চিদম্বরমের। —ফাইল চিত্র।

গহলৌতের বিরুদ্ধে লড়াইয়ে নেমে আদালত পর্যন্ত ছুটেছেন তিনি। তার পরেও তাঁকে দলে ফেরাতে আপত্তি নেই কংগ্রেস শীর্ষ নেতৃত্বের। রাজস্থান কংগ্রেসের প্রাক্তন সভাপতি তথা গহলৌত সরকারের প্রাক্তন উপ মুখ্যমন্ত্রী সচিন পাইলটকে এ বার এমনই বার্তা দিলেন প্রবীণ কংগ্রেস নেতা পি চিদম্বরম। সচিনকে তিনি জানিয়েছেন, এখনও সময় রয়েছে। ফিরে আসুন তিনি। পুরনো কথা কিছু মনে রাখা হবে না।

বৃহস্পতিবার রাতে চিদম্বরমের সঙ্গে ফোনে কথা হয় সচিন পাইলটের। সেখানেই মনোমালিন্য ভুলে সচিন পাইলটকে ফিরে আসতে অনুরোধ করেন তিনি। সংবাদমাধ্যমে চিদম্বরম বলেন, ‘‘আমি শুধু ওঁকে‌ মনে করিয়ে দিয়েছি যে, দলের শীর্ষ নেতৃত্ব প্রকাশ্যে ওঁকে আলোচনার জন্য আমন্ত্রণ জানিয়েছেন। আলোচনার মাধ্যমে সমস্ত সমস্যারই সমাধান হওয়া সম্ভব। ওঁকে সেই সুযোগটাকে কাজে লাগানোর পরামর্শই দিয়েছি।’’

কংগ্রেসের একটি সূত্রকে উদ্ধৃত করে সংবাদ সংস্থা পিটিআই জানিয়েছে, এর আগে রাজস্থান সরকারের অন্দরে টানাপড়েন চলাকালীন চিদম্বরম নিজে ফোন করেছিলেন সচিন পাইলটকে। গতকাল তাঁকে ফোন করেন পাইলট। সেখানে তাঁকে দলের শীর্ষ নেতৃত্বের বার্তাই পৌঁছে দেন চিদম্বরম। তিনি জানান, সচিন এবং তাঁর অনুগামীদের বিদ্রোহের কথা মনে রাখবে না দল। তাঁর বিরুদ্ধে যে তদন্ত চলছে, তা নিছকই নিয়মমাফিক। তবে সম্পূর্ণ নিঃশর্তে ফিরে আসতে হবে তাঁকে।

আরও পড়ুন: গত ২৪ ঘণ্টায় নতুন আক্রান্ত প্রায় ৩৫ হাজার, দেশে মৃত্যু ছাড়াল ২৫ হাজার​

আরও পড়ুন: নিজেকে সামলান, ধনখড়ের বিরুদ্ধে হুঁশিয়ারির আঙুল তুললেন মমতা​

Advertisement

তবে শুধু চিদম্বরমই নন, এর আগে বুধবার সন্ধ্যায় কংগ্রেসের সাধারণ সম্পাদক প্রিয়ঙ্কা গাঁধী বঢরার সঙ্গেও কথা হয় সচিন পাইলটের। কংগ্রেস নেতা অভিষেক মনু সিঙ্ঘভিও তাঁকে বোঝানোর চেষ্টা করেন। তার পরেও বিজেপি ঘনিষ্ঠ দুই আইনজীবীকে নিয়ে গতকাল রাজস্থান হাইকোর্টের দ্বারস্থ হন সচিন পাইলট। কংগ্রেসের তরফে তাঁর বিধায়ক পদ খারিজের যে আবেদন জানানো হয়েছিল, তার বিরুদ্ধে মামলা করেন। মামলা করেন সচিন অনুগামী ১৮ জন বিধায়কও।

আরও পড়ুন

Advertisement