Follow us on

Download the latest Anandabazar app

© 2021 ABP Pvt. Ltd.

Advertisement

১৭ মে ২০২২ ই-পেপার

URL Copied
Something isn't right! Please refresh.

শবরীমালা উত্তপ্তই, নিগৃহীতা প্রৌঢ়া

মাত্র দু’দিনের জন্য খুলেছিল মন্দিরের দরজা। আয়াপ্পার বিগ্রহ দর্শনকে কেন্দ্র করে আজ ফের উত্তপ্ত হয়ে উঠল শবরীমালার মন্দির চত্বর।

সংবাদ সংস্থা
শবরীমালা ০৭ নভেম্বর ২০১৮ ০৪:৩৫
Save
Something isn't right! Please refresh.
Popup Close

মাত্র দু’দিনের জন্য খুলেছিল মন্দিরের দরজা। আয়াপ্পার বিগ্রহ দর্শনকে কেন্দ্র করে আজ ফের উত্তপ্ত হয়ে উঠল শবরীমালার মন্দির চত্বর।

ঝামেলার সূত্রপাত আজ সকালে। মন্দিরের গর্ভগৃহে ঢোকার ঠিক আগে রয়েছে ১৮টি সিঁড়ি। যাকে আয়াপ্পা ভক্তেরা ‘পবিত্র সিঁড়ি’ বলে থাকেন। সেখানেই বাহান্ন বছরের এক মহিলাকে ঘিরে ধরেন শ’দুয়েক বিক্ষোভকারী। ত্রিশূরের বাসিন্দা ললিতা রবি তাঁর নাতির মুখেভাত অনুষ্ঠান উপলক্ষে পরিবারের আরও কিছু সদস্যকে নিয়ে আয়াপ্পার মন্দিরে পুজো দিতে এসেছিলেন। ললিতাদেবী পঞ্চাশ পেরোননি, এই অভিযোগে তাঁকে ঘিরে ধরেন বিক্ষোভকারীরা। শুরু হয় ধাক্কাধাক্কি। প্রৌঢ়া শেষ পর্যন্ত নিজের আধার কার্ড বার করে দেখান, তাঁর বয়স ৫২। তার পর তাঁকে মন্দিরে ঢুকতে দিতে রাজি হয় বিক্ষোভকারীরা। তত ক্ষণে ঘটনাস্থলে চলে এসেছে বিশাল পুলিশ বাহিনী। ধাক্কাধাক্কিতে অসুস্থ বোধ করেন ললিতাদেবী। তাঁকে কাছের হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়। কিছু ক্ষণ পরে পুলিশি নিরাপত্তার ঘেরাটোপে আয়াপ্পার বিগ্রহ দর্শন করে পুজো দেন ওই প্রৌঢ়া। বেরিয়ে আসার সময় তিনি বলেন, ‘‘এমনটা হবে একেবারেই আশা করিনি।’’ এই ঘটনায় প্রায় ২০০ জন অজ্ঞাতপরিচয় বিক্ষোভকারীর বিরুদ্ধে অভিযোগ দায়ের করেছে কেরল পুলিশ।

ঝামেলার খবর ‘কভার’ করতে গিয়ে মালয়ালি টিভি চ্যানেলের এক চিত্র-সাংবাদিককেও নিগৃহীত হতে হয়। অভিযোগ, বিষ্ণু নামে ওই চ্যানেলের ক্যামেরাম্যান বিক্ষোভকারীদের ছবি তুলতে গেলে তাঁকে মারধর করা হয়। তাঁর দিকে টুল আর নারকেল ছোড়া হয় বলেও অভিযোগ। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণের বাইরে চলে যাচ্ছে দেখে মাঠে নামেন আরএসএস নেতা ভলসন থিল্লাঙ্কেরি। গোটা শবরীমালা চত্বরে এত দিন ধরে তিনি বিক্ষোভকারীদের উস্কানি দিয়ে আসছেন বলে অভিযোগ। কিন্তু তাঁর দাবি, আজ তিনিই গিয়ে জনতাকে শান্ত করেন। আজ আয়াপ্পার পুজো দিতে গিয়ে বিতর্কেও জড়ান আরএসএসের ওই নেতা। আয়াপ্পা দর্শনের সময়ে তাঁর জন্য পুজোর সামগ্রী নিয়ে যাওয়ার নিয়ম। তিনি সে সব না নিয়েই আজ বিগ্রহ দর্শন করেন বলে অভিযোগ। টিভি চ্যানেলগুলি খালি হাতে মন্দিরের পবিত্র সিঁড়িতে দাঁড়িয়ে থাকা ভলসনের ছবি দেখিয়েছে। নেতার দাবি, তিনি সামগ্রী নিয়েই গর্ভগৃহে ঢুকেছিলেন। হায়দরাবাদ থেকে আসা ঋতুযোগ্য মহিলাদের একটি দল বিগ্রহ দর্শন না করেই আজ ফিরে যায়। স্বামী আর দুই সন্তান নিয়ে আয়াপ্পা দর্শনে আসা বছর তিরিশের এক তরুণীও মূল গর্ভগৃহে ঢুকতে পারেননি। তিনি জানিয়েছেন, তাঁর স্বামীই চেয়েছিলেন তিনি আয়াপ্পার আশীর্বাদ নিতে আসুন। কিন্তু ঝামেলার ভয়ে মন্দিরে ওঠার ঝুঁকি নেয়নি ওই পরিবার।

Advertisement

আজ বিজেপি সভাপতি অমিত শাহের বিতর্কিত মন্তব্যের প্রেক্ষিতে তাঁর বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়ার জন্য নির্বাচন কমিশন, সুপ্রিম কোর্ট, প্রধানমন্ত্রী ও রাষ্ট্রপতিকে চিঠি লিখেছেন প্রায় পঞ্চাশ জন প্রাক্তন আইএএস এবং আইএফএস অফিসার। সম্প্রতি কান্নুরের এক সভায় শাহ বলেছিলেন, ‘‘সুপ্রিম কোর্টের রায়ের বিরোধিতা যাঁরা করছেন, সেই বিক্ষোভকারীদের গ্রেফতার করলে এই সরকারকে আমরা উপড়ে ফেলব।’’ এই ধরনের মন্তব্য অসাংবিধানিক বলে চিঠিতে উল্লেখ করা হয়েছে। এর মধ্যে মালয়ালি অভিনেত্রী পার্বতীর একটি মন্তব্য নিয়েও জলঘোলা শুরু হয়ছে। সুপ্রিম কোর্টের রায়কে স্বাগত জানিয়ে তিনি বলেছেন, ‘‘মেয়েদের বোঝানো উচিত, যোনি দিয়ে পবিত্রতার বিচার হতে পারে না।’’



Something isn't right! Please refresh.

আরও পড়ুন

Advertisement