কানাডার এক ব্যক্তি দাবি করেছেন, তাঁর পোষা কুকুরটি ঘুষ খাচ্ছে। তাও আবার একটি ভাল্লুকের কাছ থেকে। একটি ভাল্লুক নাকি কুকুরটিকে একটি করে খরগোসের হাড় ঘুস দিয়ে বাড়ির বারান্দায় ঢুকছে।

জেস জর্ডন নামে এক ব্যক্তি টুইটারে গোটা গল্পটি লিখেছেন। তাঁর দাবি, তাঁর ব্রিক নামে কুকুরটির রাত্রে একটি মাত্র কাজ। কোনও কিছু বাড়ির দিকে আসতে দেখলেই ঘেউ ঘেউ করে সজাগ করা। কিন্তু ব্রিক নাকি বিক্রি হয়ে গিয়েছে। একটি ভাল্লুক বুঝতে পেরে গিয়েছে ব্রিককে কিনে নেওয়া যায়। এটা নিয়ে তৃতীয় বার ব্রিককে একটি করে খরগোসের হাড় উপহার দেওয়া হয়েছে। বদলে সে ওই ভাল্লুককে ঘরের বাইরে রাখা ডাস্টবিনে খাবার খুঁজতে দিয়েছে।

জর্ডন কয়েকটি ছবিও শেয়ার করেছেন টুইটারে। সেখানে দেখায় যাচ্ছে ব্রিক একটি হাড় নিয়ে বসে রয়েছে। আর একটি ছবিতে দেখা যাচ্ছে ডাস্টবিনের আবর্জনা বারান্দায় ছড়িয়ে ছিটিয়ে রয়েছে।

জর্ডন আরও লিখেছেন, ওই কালো ভাল্লুকটি ব্রিককে ভয় দেখানোর চেষ্টা করে না। নর্দান ওন্টেরিওতে ভাল্লুক বেশ উপদ্রব। আর এই রকম যদি চলতে থাকে তবে ব্রিককে কোনও ভাবেই রাত্রে বাইরে রাখা যাবে না।

আরও পড়ুন : নিজের জন্মদিনে লাইফ জ্যাকেট পরে নদীতে ঝাঁপ

আরও পড়ুন : গরমে রুমাল দিয়ে মুখ মুছছে ভাল্লুক, ভাইরাল ভিডিয়ো

 

জেস জর্ডন আরও লিখেছেন, এই ঘটনা বেশি দিন চলবে না। কারণ তিনি কিছু দূরেই শহরের কাছে একটি বাড়ি কিনছেন। সেক্ষেত্রে ব্রিকের হয়তো একটু কষ্ট হবে কারণ তার ভাল্লুক বন্ধুকে আর কাছে পাবে না। তবে চিন্তু নেই সেখানে ব্রিক খেলার জন্য আরও অনেক ভাই বোন পেয়েছে যাবে।

জেস জর্ডনের এই কাহিনী কতটা সত্যি তা জানা নেই কারও। ইতিমধ্যেই এই টুইট ভাইরাল হয়েছে সোশ্যাল মিডিয়ায়।