• সংবাদ সংস্থা
সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে

মৃত্যুর পর মহাশূন্যে ‘মানুষের’ ঠিকানা কী? এ বার ফোনেই খোঁজ পাবে পরিবার

space
প্রতীকী ছবি।

Advertisement

মৃত্যুর পর কোথায় যায় মানুষ? তা নিয়ে তর্কবিতর্কের শেষ নেই। তবে এ বারে মৃত্যুর পর একজনের নিশ্চিত ঠিকানা হতেই পারে মহাশূন্য। মহাশূন্যে ঘুরে বেড়াতে পারেন তিনি। আর এর চেয়েও আশ্চর্যের বিষয় মৃত্যুর পর তিনি কখন, মহাশূন্যের ঠিক কোন জায়গায় রয়েছেন বাড়িতে বসেই তার খোঁজ রাখতে পারবেন আত্মীয়-পরিজনও!

অবাক হচ্ছেন? যদি মনে মনে এটাকে নির্ঘাত কোনও সিনেমার গল্প ভেবে থাকেন তাহলে ভুল ভাবছেন। কারণ সোমবারই এমন ১০০ জনকে নিয়ে মহাশূন্যে রওনা দেওয়ার কথা একটি স্যাটেলাইট রকেটের। আগামী ৪ বছরের জন্য মহাশূন্যই হতে চলেছে ওই ১০০ জন (যাঁদের প্রত্যেকেরই মৃত্যু হয়েছে আগেই)-এর ঠিকানা।

বিষয়টা একটু খুলে বলা যাক। যে ১০০ জন মৃত মানুষের কথা উল্লেখ করা হয়েছে, প্রকৃত অর্থে স্যাটেলাইট রকেটে তাঁদের চিতাভস্ম উড়িয়ে নিয়ে যাওয়া হবে মহাশূন্যে। মৃত্যুর আগে কোনও ব্যক্তির শেষ ইচ্ছা বা তাঁর পরিবার-পরিজনদের ইচ্ছা পূরণ করার জন্য এই উপায় বাতলেছে সান ফ্রান্সিস্কোর এলিসিয়াম স্পেস নামে এক সংস্থা।

আরও পড়ুন: আদালতের ইংরেজি নির্দেশ বুঝতেই পারল না পুলিশ! ব্যবসায়ীকে পুরল জেলে

সংস্থা সূত্রে জানানো হয়েছে, সোমবার এমন ১০০ জনের চিতাভস্ম স্পেসএক্স ফ্যালকন ৯ রকেটে চেপে রওনা দেওয়ার কথা। যেগুলো কিউবস্যাট স্যাটেলাইটে চেপে মহাশূন্যে ঘুরে বেড়াবে। পৃথিবীতে নিজের বাড়িতে বসে ওই ১০০ জনের পরিবারই স্যাটেলাইট ফোনের মাধ্যমে সব সময় খোঁজ রাখতে পারবেন প্রিয়জনের অবস্থানের।

আরও পড়ুন: মহাপ্রলয় আসন্ন? আট দশকেই জলমগ্ন হবে অধিকাংশ মহাদেশ: রাষ্ট্রপুঞ্জ

কী ভাবে পাঠানো হবে?

সংস্থার প্রতিষ্ঠাতা এবং সিইও টমাস সিভেট জানিয়েছেন, ছোট ছোট ক্যাপসুলের মধ্যে ওই চিতাভস্ম ভরা হয়েছে। তারপর সেগুলো একসঙ্গে রাখা হয়েছে ৪ ইঞ্চির ওই কিউবস্যাট স্যাটেলাইটের মধ্যে। সেই স্যাটেলাইটের সঙ্গেই মহাশূন্যে পৃথিবীর আশেপাশে ভেসে বেড়াবে চিতাভস্মগুলো। এ ভাবে টানা ৪ বছর ভেসে বেড়ানোর পর আবার চিতাভস্মগুলো নিয়ে পৃথিবীতে নেমে আসবে কিউবস্যাট।

কাদের চিতাভস্ম নিয়ে উড়তে চলেছে স্পেসএক্স রকেট?

সাধারণত প্রাক্তন সেনা এবং মহাকাশচারীদের চিতাভস্ম পাঠানো হবে স্পেসএক্স রকেটে। রয়েছে জেমস ইবারলিং নামে ৩৬ বছরের এক যুবকের ভস্মও। দু’বছর আগে মৃত্যু হয়েছিল জেমসের। তাঁর শেষ ইচ্ছা ছিল নিজের চিতাভস্ম মহাশূন্যে পাঠানো। খোঁজ খবর নিয়ে সম্প্রতি তাঁর বাবা-মা এলিসিয়াম স্পেস সংস্থার কথা জানতে পারেন। ছেলের ভস্ম নিয়ে যাওয়ার জন্য আবেদন জানান সংস্থার কাছে। তাঁর আবেদনও গৃহীত হয়েছে।

তবে শুধুমাত্র সেনা বা মহাকাশচারীদের নয়, ২,৫০০ ডলার (ভারতীয় মূল্যে ১ লক্ষ ৭৫ হাজার টাকা) বিনিময়ে যে কোনও ব্যক্তির ভস্ম পাঠানো যেতে পারে। এই ব্যবস্থাকে ব্যবসায়িক ভাবেই কাজে লাগাতে চলেছে এলিসিয়াম স্পেস সংস্থা।

সবাই যা পড়ছেন

Advertisement

সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে
আরও পড়ুন
বাছাই খবর

সবাই যা পড়ছেন

আরও পড়ুন