• সংবাদ সংস্থা
সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে

কংগ্রেস ভোটে ফের গোহারা ডেমোক্র্যাটরা

democrat

কানসাসে কুপোকাত। গত মাসে মুখ ফিরিয়েছিল মন্টানা-ও। আর এ বার সাউথ ক্যারোলাইনা তো সুযোগই দিল না! এমনকী রেকর্ড পরিমাণ অর্থ ঢালা হয়েছিল যে জর্জিয়ায়, সেখানেও সমর্থন জুটল না ডেমোক্র্যাট প্রার্থীদের। ৪-০ গোলে ম্যাচ জিতে বেরিয়ে গেল সেই ডোনাল্ড ট্রাম্পের রিপাবলিকান পার্টিই।

ভোট ছিল মার্কিন কংগ্রেসের বিশেষ চারটি আসনে। ট্রাম্পের মন্ত্রিসভায় যোগ দিয়ে মাস কয়েক আগে যেগুলি ফাঁকা করে গিয়েছিলেন রিপাবলিকান সদস্যরা। প্রেসিডেন্ট-বিরোধী হাওয়া তুলে এই সবক’টি আসনেই জয় ছিনিয়ে আনতে মরিয়া ছিল ডেমোক্র্যাট। কিন্তু এমন ভরাডুবির পর প্রশ্ন উঠে গেল তাদের ভবিষ্যৎ নিয়েই।

টম প্রাইস স্বাস্থ্যমন্ত্রী হয়ে চলে যাওয়ার পরে জর্জিয়ার ৬ নম্বর নির্বাচনী কেন্দ্রেই সব চেয়ে বড় বাজি ধরেছিলেন ডেমোক্র্যাট নেতারা। প্রার্থী হয়েছিলেন জন অসোফ। সূত্রের খবর, ভোটে জিততে এখানে প্রায় সাড়ে ৫ কোটি ডলার ঢেলেছিল তাঁর দল। পার্টির তরফে বলা হচ্ছিল, এখান থেকেই ২০১৮ সালের মধ্যবর্তী নির্বাচনে মার্কিন কংগ্রেসের নিয়ন্ত্রণ ছিনিয়ে নেওয়ার প্রচার শুরু করবে ডেমোক্র্যাটরা। কিন্তু গত কাল ফল বেরোতেই দেখা গেল, ৫৩ শতাংশ ভোট পেয়ে বাজিমাত করেছেন ট্রাম্পের ‘প্রিয় পাত্রী’ ক্যারেন হ্যান্ডেল। সাউথ ক্যারোলাইনায় ডেমোক্র্যাট প্রার্থী আর্চি পারনেলকে হারিয়েছেন রালফ নরম্যান। আজ দুই জয়ী প্রার্থীকেই অভিনন্দন জানিয়েছেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট।

এপ্রিলে কানসাস, আর মে মাসে  মন্টানার ভোট জিতে কংগ্রেসে নিজেদের আসন ধরে রেখেছিল রিপাবলিকান। তবু জর্জিয়া, সাউথ ক্যারোলাইনা নিয়ে দলে চাপা একটা উদ্বেগ ছিলই। তাই ডেমোক্র্যাটদের ধরাশায়ী হতে দেখেই নড়ে বসেছে ট্রাম্প শিবির। নেতা নিজে আজ টুইট করে বলেন, ‘‘ভুয়ো খবর ছড়িয়ে, আর ডলার ঢেলে যে ভোটে জেতা যায় না, তা ফের প্রমাণ হয়ে গেল। প্রমাণ হয়ে গেল, মানুষ ‘মেক আমেরিকা গ্রেট এগেন’-রই পক্ষে।’’ নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক হোয়াইট হাউসের এক কর্তার কথায়, ‘‘ট্রাম্পকে কী ভাবে হারাতে হবে, ডেমোক্র্যাটরা তা বুঝেই উঠতে পারছে না।’’

বিরোধীরা যদিও হতাশা প্রকাশে নারাজ। তাঁদের দাবি, ট্রাম্প জিতবেন জেনেই এই চারটি আসন থেকে মন্ত্রী করে নিয়ে গিয়েছিলেন চার রিপাবলিকানকে। ৪৭% ভোট পাওয়া জন অসোফ শেষমেশ তবু বলেই ফেললেন, ‘‘এ বার সত্যিই আমাদের ঠেকে শেখার সময় এসেছে।’’

সবাই যা পড়ছেন

সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে
আরও পড়ুন

সবাই যা পড়ছেন

আরও পড়ুন