ভেবেছিলেন, নিজের বুক করা উবার-এ উঠেছেন। কিন্তু ইউনিভার্সিটি অব সাউথ ক্যারোলাইনার সেই ছাত্রী ভুল গাড়িতে উঠে পড়েছিলেন। আর ফেরেননি। পরে জানা যায়, চালক নাথানিয়েল রোল্যান্ডের (২৪) হাতে খুন হয়েছেন ২১ বছরের ছাত্রী সামান্থা জোসেফসন। নাথানিয়েলের বিরুদ্ধে অপহরণ ও খুনের অভিযোগ আনা হয়েছে। আপাতত সে পুলিশের হেফাজতে।

শুক্রবার ভোরের দিকে কলম্বিয়ার ফাইভ পয়েন্টস বার-এর বাইরে শেষ দেখা গিয়েছিল সামান্থাকে। কলম্বিয়ার পুলিশপ্রধান উইলিয়াম হলব্রুক এই তথ্য দিয়ে জানিয়েছেন, নিখোঁজ হওয়ার খবর সামান্থার বন্ধুরাই প্রথমে দিয়েছিলেন। বার থেকে বেরনোর পরে শুক্রবারের ভোর থেকে টানা ১২ ঘণ্টা আর দেখা যায়নি সামান্থাকে। হলব্রুকের বক্তব্য, ‘‘আমাদের মনে হচ্ছে উনি ভুল করে উবার ভেবে অন্য গাড়িতে উঠে পড়েছিলেন।’’ পুলিশে ফোন আসার কয়েক ঘণ্টা পরেই কলম্বিয়া থেকে দূরে একটি জঙ্গলের পাশে মেঠো রাস্তার ধারে উদ্ধার হয় সামান্থার দেহ। ভিডিয়ো ফুটেজ থেকে প্রথমে খুঁজে বার করা হয় সেই গাড়িটি, যাতে উঠেছিলেন সামান্থা। সেই সূত্র থেকেই উদ্ধার হয় দেহ।

নিউ জার্সির রবিনসভিল থেকে ছাত্রীর বাবা সেমুর জোসেফসন ফেসবুকে লিখেছেন, ‘‘মন ভেঙে গিয়েছে। খুব দুঃখের সঙ্গে লিখছি। একটা পরিবার যখন জানতে পারে, তার সব চেয়ে প্রিয়জন খুন হয়েছে, তাদের আর উঠে দাঁড়ানোর অবস্থা থাকে না। সারা জীবন আমার ছোট্ট মেয়েটাকে মিস করব।’’