• সংবাদ সংস্থা
সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে

মুসলিমদের মঙ্গল গ্রহে পাঠানো উচিত: ট্রাম্প

trump

ফের মুসলিম-বিরোধী কথা বলে বিতর্কে ডোনাল্ড ট্রাম্প। এ বার আরও এক ধাপ এগিয়ে তিনি বলেন, “পৃথিবীতে শান্তি ফিরিয়ে আনতে মুসলিম সম্প্রদায়কে মঙ্গল গ্রহে পাঠিয়ে দেওয়া উচিত।”  এ ব্যাপারে তিনি একটি শর্তসাপেক্ষে প্রস্তাবও দিয়েছেন বিজ্ঞানী ইলন মাস্ককে। মাস্ককে তিনি প্রস্তাব দেন, যদি তিনি তাঁর রকেটে করে মুসলিমদের মঙ্গলে পাঠিয়ে দিতে পারেন, তা হলে তাঁকে ট্রান্সপোর্টেশন সেক্রেটারির পদ দেবেন। ট্রাম্পের মতে, এতে যেমন মুসলিমদের উপকার হবে, তেমনই বিশ্বে শান্তির আবহ ফিরে আসবে। তিনি আরও জানান, আমেরিকাকে ধর্ষক মুক্ত করতে এর থেকে ভাল এবং কার্যকরী উপায় হতে পারে না। তবে এখানেই থেমে থাকেননি মার্কিন প্রেসিডেন্ট পদপ্রার্থী। মুসলিমদের কটাক্ষ করে তিনি বলেন, “বিশ্বাস করুন মুসলিমদের আমি ভালবাসি। আর সে কারণেই আমেরিকায় তাদের অনুপস্থিতি আমার হৃদয়কে আনন্দে ভরিয়ে তুলবে।” ট্রাম্পের এই মুসলিম বিরোধী মন্তব্যে ফের সরগরম মার্কিন রাজনীতি।

ট্রাম্পের ঘোরতর এই মুলিম-বিরোধী মন্তব্যের তীব্র বিরোধিতা করে এসেছেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট বারাক ওবামা। দু’দিন আগেই মার্কিন অভিবাসন নীতিকে তীব্র আক্রমণ করে ট্রাম্প বলেছিলেন, “ভুল অভিবাসন নীতির ফলেই দলে দলে সম্ভাব্য জঙ্গি এসে ঢুকছে আমেরিকায়।” ট্রাম্পের একের পর এক মুসলিম-বিরোধী মন্তব্যে এ বার মুখ খুলেছেন আমেরিকার প্রাক্তন প্রেসিডেন্ট জর্জ বুশও। তিনি বলেন, “আধুনিক মার্কিন ইতিহাসে ট্রাম্প একজন মুসলিম-বিরোধী আইকন।”

প্রেসিডেন্ট হওয়ার দৌড়ে নেমে শুরু থেকেই মুসলিমদের আক্রমণ শুরু করেছিলেন ট্রাম্প। যেমন, গত বছর ডিসেম্বরে সান বার্নাদিনোয় জঙ্গি হামলার পরে ট্রাম্প বলেছিলেন, “পুরো আমেরিকায় মুসলিমদের ঢোকা বন্ধ করে দেওয়া উচিত।” তিনি আরও বলেছিলেন, “যাঁদের কাছে মানুষের জীবনের কোনও মূল্য নেই, যাঁরা শুধুমাত্র জেহাদে বিশ্বাস করে, আমেরিকা এমন লোকেদের আক্রমণের লক্ষ্য হতে পারে না।” সেই শুরু। তার পরে একের পর এক মুসলিম-বিরোধী মন্তব্যে মার্কিন রাজনীতিতে বিতর্কের ঝড় তুলে দিয়েছেন রিপাবলিকানদের এই প্রথম সারির নেতা।

আরও পড়ুন...

ট্রাম্প গণতন্ত্রের বিরোধী, জবাবে জানালেন ওবামা

সবাই যা পড়ছেন

সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে
আরও পড়ুন

সবাই যা পড়ছেন

আরও পড়ুন