বছর তেত্রিশের ভারতীয় গবেষক নিখোঁজ হয়ে গিয়েছেন আমেরিকায়। সপ্তাহ দুয়েক ধরে সায়ক বন্দ্যোপাধ্যায় নামে ওই বাঙালি যুবকের আর কোনও খোঁজ মিলছে না বলে বেশ কয়েকটি সংবাদমাধ্যম সূত্রে খবর পাওয়া যাচ্ছে। সোশ্যাল মিডিয়াতেও সায়কের বেশ কয়েকজন বন্ধু-বান্ধব এবং পরিচিত ব্যক্তি তাঁর নিখোঁজ হওয়ার কথা জানিয়ে উদ্বেগ প্রকাশ করেছেন। ক্যালিফোর্নিয়ার সান কার্লোসে থাকতেন সায়ক বন্দ্যোপাধ্যায়। তিনি স্ট্যানফোর্ড বিশ্ববিদ্যালয়ের পোস্ট-ডক্টোরাল গবেষক।

নিউজ ইন্ডিয়া টাইমস নামে একটি সংবাদমাধ্যম ক্যালিফোর্নিয়ার সান ম্যাটেও কাউন্টির শেরিফ অফিসকে উদ্ধৃত করে জানিয়েছে, সায়ক বন্দ্যোপাধ্যায়ের খোঁজ মিলছে না। সায়ক বন্দ্যোপাধ্যায় সম্পর্কে কোনও তথ্য থাকলে তা শেরিফ অফিসে জানানোর জন্য প্রত্যেকের কাছে অনুরোধ রাখা হয়েছে। নিখোঁজ হওয়ার আগে পর্যন্ত সান কার্লোসের লরেল স্ট্রিটের বাড়িতেই থাকছিলেন সায়ক। মার্কারি নিউজ নামের একটি সংবাদমাধ্যম সূত্রের খবর, সায়ক বন্দ্যোপাধ্যায়ের প্রতিবেশীরা তাঁকে শেষ বার দেখেছেন ১৬ এপ্রিল। সায়কের স্ত্রী জানিয়েছেন, ২০ এপ্রিল শেষ বার তাঁর সঙ্গে ফোনে কথা হয়েছে সায়কের।

আরও পড়ুন: বাতিল নোটে এখন হস্তশিল্প

সায়ক নিখোঁজ হওয়ায় সোশ্যাল মিডিয়ায় পোস্ট দিয়ে তাঁর খোঁজ চাইছেন বন্ধু-বান্ধবরা।

লিঙ্কডইন প্রোফাইল বলছে, আইআইটি-কানপুরের প্রাক্তনী সায়ক বন্দ্যোপাধ্যায় ২০১৪ সালে আমেরিকার স্ট্যানফোর্ড ইউনিভার্সিটি থেকে পিএইচডি করেছেন। বর্তমানে তিনি ওই বিশ্ববিদ্যালয়ের অধীনেই জেট ফুয়েলস এবং রকেট ফুয়েলস নিয়ে পোস্ট-ডক্টরেট করছেন। একটি সংস্থায় মেকানিক্যাল ইঞ্জিনিয়ার হিসেবেও সায়ক বন্দ্যোপাধ্যায় কাজ করেন। তিনি মাঝেমধ্যেই ফ্লোরিডা যেতেন বলে জানা গিয়েছে, যেখানে তাঁর স্ত্রী থাকেন। কিন্তু ২০ এপ্রিলের পর থেকে স্ত্রীয়ের সঙ্গেও সায়কের আর কোনও যোগাযোগ হয়নি। গত সোমবার অরল্যান্ডো বিমানবন্দরে পৌঁছনোর কথা ছিল আমেরিকা নিবাসী তরুণ বাঙালি গবেষকের। সেখানেই স্ত্রীয়ের সঙ্গে তাঁর দেখা হওয়ার কথা ছিল। কিন্তু সায়ক অরল্যান্ডো পৌঁছননি। এর পরই তাঁর স্ত্রী পুলিশের দ্বারস্থ হন। সান ফ্রানসিসকো বিমানবন্দর থেকে অরল্যান্ডোর উদ্দেশে রওনা হওয়ার কথা ছিল সান কার্লোস নিবাসী সায়কের। কিন্তু খোঁজ নিয়ে জানা গিয়েছে, নির্দিষ্ট তারিখে সান ফ্রানসিসকো বিমানবন্দর থেকে কোনও বিমানে চড়েননি সায়ক।

সান ম্যাটেও কাউন্টির শেরিফ অফিসের কাছে পৌঁছনো তথ্য অনুযায়ী, সায়ক বন্দ্যোপাধ্যায়কে শেষ বার নিজের গাড়ি চালিয়েই বাড়ি থেকে বেরতে দেখা গিয়েছিল। তার পর থেকে আর খোঁজ নেই। তাঁর নিখোঁজ হওয়াকে ‘অস্বাভাবিক’ আখ্যা দিয়েছে শেরিফের অফিস। কিন্তু এর কারণ কী, তা এখনও স্পষ্ট নয়।

সায়ক বন্দ্যোপাধ্যায়ের খোঁজ না মেলায়, আমেরিকা প্রবাসী ভারতীয়দের একাংশের মধ্যে চাঞ্চল্য ছড়িয়েছে। সায়কের বাঙালি বন্ধু-বান্ধবরা অত্যন্ত উদ্বিগ্ন। ফেসবুক এবং অন্যান্য সোশ্যাল মিডিয়ায় পোস্ট দিয়ে তাঁরা উদ্বেগ প্রকাশ করেছেন। সায়ককে খুঁজে বার করার জন্য সকলের কাছ থেকে তাঁরা সাহায্য চাইতে শুরু করেছেন।