Advertisement
২১ জুলাই ২০২৪
Remedies for grey hair

কুচকুচে কালো কেশরাশিতে বয়স ৩০ হতে না হতেই পাকা চুলের রেখা! কেন এমন হয়, হলে কী করবেন?

অকালেই পেকে যাচ্ছে চুল? রাসায়নিক দেওয়া রঙের বদলে খাদ্যাভ্যাসে বদল এনেও এই সমস্যার সমাধান করা যায়।

Eat these superfoods to prevent premature greying of hair

পাকা চুলের সমস্যা দূর হবে তাড়াতাড়ি, কী করবেন জেনে নিন। ছবি: ফ্রিপিক।

আনন্দবাজার অনলাইন ডেস্ক
কলকাতা শেষ আপডেট: ১২ জুন ২০২৪ ১৫:৫৭
Share: Save:

বয়স ত্রিশ পেরোতে না পেরোতেই মাথাভরা ঢেউখেলানো কুচকুচে কালো কেশরাশিতে পাক ধরছে। আয়নার সামনে দাঁড়িয়ে একমাথা কাঁচাপাকা চুল দেখলেই মনটা বড় খারাপ হয়ে যায়। সেই পাকা চুল ঢাকার ঝক্কিও কম নয়। সাঁলোতে গিয়ে চুল রং করাও, তার পর সেই রং ধরে রাখার জন্য আরও নানা নিয়ম মেনে চলো— ঝঞ্ঝাটের শেষ নেই।

একটা সময় মা-ঠাকুমাদের চুলের ঘনত্ব ছিল দেখার মতো। সেই চুলে পাক ধরতেও অনেক সময় লাগত। আর এখন ত্রিশের যুবক-যুবতীর সিঁথির চারপাশেও উঁকি দেয় ধবধবে সাদা চুল।

অকালপক্কতা বা কম বয়সে চুল পেকে যাওয়ার সমস্যা এখন ঘরে ঘরে। খাদ্যাভ্যাস, অতিরিক্ত নেশা করার অভ্যাস, কম শরীরচর্চা, চুলের যত্ন না নেওয়া— এ সবই তার কারণ।

চিকিৎসকেরা বলছেন, কমবয়সিরা এখন সুষম খাবার খেতে অভ্যস্ত নয়। বাইরের খাবারই তাদের পছন্দের তালিকায় জায়গা করে নিয়েছে। ফলে শরীরের পুষ্টি তো হচ্ছেই না, চুলের পুষ্টিতেও ঘাটতি থেকে যাচ্ছে। তাই চুল পড়া, চুল পেকে যাওয়ার মতো সমস্যা দেখা দিচ্ছে। খাদ্যাভ্যাস বদলালেই এই সমস্যার সমাধান দ্রুত হবে।

প্রতি দিন সকালবেলা মেথি ভেজানো জল খেলে শরীর ঠান্ডা হয়, চুলেরও পুষ্টি হয়। পাকা চুলের সমস্যায় সমাধান মিলতে পারে এই উপায়ে।

আমন্ড খাওয়া চুলের জন্য খুবই ভাল। আমন্ডে থাকে ভিটামিন ই, যা চুলের গোড়া মজবুত করে। চুল পড়া, অকালপক্কতার সমস্যা দূর করে।

গাজরের পুষ্টিগুণ অনেক। গাজরের বিটা ক্যারোটিন ও ভিটামিন এ, চুলের রুক্ষভাব দূর করে। প্রতি দিন গাজরের রস খেলেও পাকা চুলের সমস্যা থেকে মুক্তি পেতে পারেন।

সাদা চুল কালো করতে আমলকির জুড়ি মেলা ভার। আমলকিতে থাকে ভিটামিন সি, যা কোলাজেনের উৎপাদন বাড়ায়। ফলে চুল লম্বা হয় ও চুলের গোড়া মজবুত হয়। আমলকির রস চুলে লাগালে গোড়া থেকে চুল পুষ্টি পায়। এর ভিটামিন ও অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট চুলে পাক ধরা ঠেকাতে পারে। চুলে প্রাকৃতিক উপায়ে রং করতেও আমলকি ব্যবহার করা হয়।

বেরি জাতীয় ফল চুলের পুষ্টি ও বৃদ্ধিতে সাহায্য করে। বেরিতে প্রচুর পরিমাণে ভিটামিন সি ও অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট থাকে, যা পাকা চুলের সমস্যা দূর করতে পারে।

ত্বক, চুল ভাল রাখতে চিকিৎসকেরা বেশি করে সবুজ শাকসব্জি খেতে বলেন। শাকপাতায় প্রচুর পরিমাণে আয়রন, ফোলিক অ্যাসিড, ভিটামিন এ ও সি থাকে যা প্রাকৃতিক ভাবে চুলের পুষ্টি জোগায়।

ছোলায় থাকে বি১২ ও ফলিক অ্যাসিড। সকালে ঘুম থেকে উঠে খালি পেটে ছোলা খেলে সুস্বাস্থ্যের পাশাপাশি চুলও ভাল থাকে।

এই প্রতিবেদন সচেতনতার উদ্দেশ্যে লেখা হয়েছে। কম বয়সে পাকা চুলের সমস্যা দেখা দিলে কী করা উচিত, কী কী খেতে হবে তা চিকিৎসক ও পুষ্টিবিদের থেকে জেনে নেওয়াই ভাল।

(সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের Google News, X (Twitter), Facebook, Youtube, Threads এবং Instagram পেজ)

অন্য বিষয়গুলি:

Hair care Grey Hair
সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের মাধ্যমগুলি:
Advertisement

Share this article

CLOSE