সিডনি বিমানবন্দর থেকে এয়ার ইন্ডিয়ার একটি উড়ান নিয়ে তাঁর আসার কথা ছিল দিল্লিতে। উড়ানে যখন যাত্রী ও যাত্রীদের লাগেজ চেকিং চলছে, সেই সময় তিনি সিডনি বিমানবন্দরের একটি ডিউটি-ফ্রি শপ থেকে একটি দামি ওয়ালেট তুলে নেন। কোনও অস্ট্রেলীয় ডলার না দিয়ে। অভিযোগ পেয়ে এয়ার ইন্ডিয়া কর্তৃপক্ষ সাসপেন্ড করেছেন কম্যান্ডার পদের ওই সিনিয়র পাইলটকে। তার কিছু ক্ষণ আগেই বিমানবন্দর থেকে ওই কম্যান্ডারের কাছে ফোন যায়। জানানো হয়, দিল্লিতে তাঁর বাড়ির লোকজন খবর দিয়েছেন তাঁর নাতি হয়েছে। তাঁর আদত বাড়ি কলকাতায়। শনিবারের ঘটনা।

ওই কম্যান্ডারকে সাসপেন্ড করার নির্দেশে এয়ার ইন্ডিয়ার অধিকর্তা (পার্সোনেল) অমৃতা শারন লিখেছেন, ‘‘অস্ট্রেলেশিয়ার রিজিওন্যাল ম্যানেজারের কাছ থেকে খবর পেয়েছি, শনিবার (২২জুন) সিডনি বিমানবন্দর থেকে এআই-৩০১ উড়ানটিকে নিয়ে ওড়ার আগে বিমানবন্দরের একটি ডিউটি-ফ্রি শপ থেকে আপনি মূল্য না চুকিয়ে কিছু জিনিসপত্র তুলে নিয়েছেন। তার প্রেক্ষিতে কোনও তদন্ত বা শাস্তিমূলক ব্যবস্থার আগে আপনাকে এই মুহূর্ত থেকেই সাসপেন্ড করা হল।’’

এয়ার ইন্ডিয়ার মুখপাত্র ধনঞ্জয় কুমার জানিয়েছেন, ওই উড়ানের অন্যতম ক্যাপ্টেন ছিলেন রোহিত ভাসিন। রিজিওনাল ডিরেক্টরেরও দায়িত্বে ছিলেন তিনি। তাঁর কথায়, ‘‘আমরা তদন্ত শুরু করেছি। তবে ইতিমধ্যেই আমরা সাসপেন্ড করেছি ওই কম্যান্ডারকে।’’

আরও পড়ুন- ক্রু-কে লাঞ্চবক্স ধুয়ে দিতে বললেন এয়ার ইন্ডিয়ার পাইলট, সাসপেন্ড ২​

আরও পড়ুন- জল চেয়ে রোজা ভাঙার খাবার পেলেন বিমানসেবিকার কাছে​

রোহিত পরে এয়ার ইন্ডিয়া কর্তৃপক্ষকে বলেছেন, ‘‘আমার পুত্রবধূ মা হয়েছেন শুনে আবেগাপ্লুত হয়ে পড়েছিলাম। পুত্রবধূর জন্য একটি গিফ্‌ট কিনতে গিয়েছিলাম বিমানবন্দরের ওই ডিউটি-ফ্রি শপে। জিনিসটি নেওয়ার পরেই আমি কার্যত দৌড়তে শুরু করি, বিমান ছাড়তে দেরি হয়ে যাবে বলে। ভুলে গিয়েছিলাম দাম মেটানো হয়নি। কিন্তু ওই সময় আর কিছু করার ছিল না আমার। বিমানে উঠে পড়েছি।’’

রোহিতকে পাঠানো এয়ার ইন্ডিয়ার সাসপেনশনের নির্দেশে বলা হয়েছে, যত দিন তিনি সাসপেন্ড থাকবেন, তত দিন কর্তৃপক্ষের লিখিত অনুমতি ছাড়া তিনি এয়ার ইন্ডিয়ার অফিসে ঢুকতে পারবেন না। কর্তৃপক্ষের লিখিত অনুমতি ছাড়া তিনি কলকাতা ছেড়ে কোথাও যেতে পারবেন না। অন্য কোনও চাকরি ওই সময় করতে পারবেন না। কলকাতায় এয়ার ইন্ডিয়ার রিজিওনাল সিকিওরিটির দায়িত্বে রয়েছেন যিনি তাঁর কাছে আইডেন্টিটি কার্ডও অবিলম্বে জমা দিতে বলা হয়েছে অভিযুক্ত পাইলটকে।