সকলের চোখের সামনেই কাঁদতে কাঁদতে রাবড়ীদেবীর সরকারি বাংলো থেকে বেরিয়ে গেলেন লালুপ্রসাদের বৌমা ঐশ্বর্য। শুক্রবার বিকেলের ঘটনা।

স্বামী তেজপ্রতাপের দায়ের করা বিবাহবিচ্ছেদের মামলা ঝুলে রয়েছে। তবে দুই পরিবারই তেজপ্রতাপের সিদ্ধান্তের বিপক্ষে। প্রতিদিনই ১০ সার্কুলার রোডে, শাশুড়ির বাংলোয় আসেন ঐশ্বর্য। বেশ খানিকক্ষণ কাটিয়ে ফিরে যান কয়েকশো মিটার দূরে বাবা চন্দ্রিকা রাইয়ের বাড়িতে। এ দিনও এসেছিলেন।

প্রত্যক্ষদর্শীদের বক্তব্য, তবে ঘণ্টাখানেকের মধ্যেই দু’টি ব্যাগ নিয়ে চোখ মুছতে মুছতে তিনি গাড়িতে উঠে বেরিয়ে যান। বিষয়টি নিয়ে শুরু হয়েছে জল্পনা। দুই পরিবারের ঘনিষ্ঠ মহল থেকে বলা হয়েছে ‘বিষয়টি ব্যক্তিগত’। তবে জানা গিয়েছে, জামাই ও তাঁর পরিবারের আচরণে বিরক্ত চন্দ্রিকাও। আরজেডি বিধায়ক হলেও তিনি দলের সদস্যপদ নবীকরণও করাননি।