• সংবাদ সংস্থা
সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে

মহীন্দ্রা চান এই শব্দ নিষিদ্ধ হোক, নেটাগরিকরাও সহমত! শব্দটি কী জানেন?

Anand mahindra
আনন্দ মহীন্দ্রা। ছবি টুইটার থেকে নেওয়া।

করোনাভাইরাস লকডাউনের জেরে অধিকাংশ সংস্থার কর্মীই বাড়ি থেকে করছেন অফিসের কাজ। বাড়ি থেকে কাজ করার সুবিধা ও অসুবিধার কথা নিজের টুইটার হ্যান্ডেলে তুলে ধরছেন ভারতীয় শিল্পপতি আনন্দ মহীন্দ্রা। বৃহস্পতিবার তিনি একটি টুইট করেছেন। সেই টুইটে সাম্প্রতিক কালে বহুল ব্যবহৃত একটি শব্দকে নিষিদ্ধ করা সম্ভব নাকি তা জানতে চেয়েছেন অনুগামীদের কাছে।   

শব্দটি হল ‘ওয়েবিনার’। নেটদুনিয়ায় ভিডিয়ো কনফারেন্সিংয়ের মাধ্যমে আয়োজিত সেমিনারকে বলা হয় ওয়েবিনার। ওয়েবিনারের ধারণা আগে থাকলেও লকডাউনে তার ব্যবহার কয়েক গুণ বেড়ে গিয়েছে। সেই শব্দটি নিয়েই আপত্তি মহীন্দ্রার।

সেই টুইটে নিজের ৭৮ লক্ষ ফলোয়ারের উদ্দেশে তিনি লিখেছেন, ‘‘এই শব্দকে নিষিদ্ধ করার জন্য পিটিশন জমা দেওয়া সম্ভব?’’ অভিধান থেকেও তিনি এই শব্দকে বাদ দেওয়ার জন্য বলেছেন। দেখুন সেই টুইট—

আরও পড়ুন: ২৪ ঘণ্টায় ৭৪৬৬, আক্রান্তের সংখ্যায় ভারত উঠে এল ন’নম্বরে

সেই টুইটে ইতিমধ্যেই পড়েছে তিন হাজার লাইক। সঙ্গে দাবির সঙ্গে সহমত পোষণ করে নিজেজের মতামতও লিখেছেন নেটাগরিকরা।  কেউ কেউ এই শব্দটি নিয়ে মজা করতেও ছাডে়ননি। এক জন লিখেছেন, ‘‘কোনও গুরুর দ্বারা ওয়েবিনার হলে তা হবে স্বামীনার।’’ আর এক জন লিখেছেন, ‘‘চার জন মিলে ওয়েবিনার হলে তা হবে চারমিনার।’’ যদিও ঠিক কী কারণে ওয়েবিনার শব্দটিকে নিষিদ্ধ করতে চান, সে ব্যাপারে কিছু জানাননি তিনি।

আরও পড়ুন: ছোট্ট ঘরে ১৫ হাজার টাকা দিয়ে শুরু, মাইক্রোগ্রিন ফলিয়ে প্রতি মাসে রোজগার ৮০ হাজার!

সবাই যা পড়ছেন

সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে
আরও পড়ুন

সবাই যা পড়ছেন

আরও পড়ুন