• সুনন্দ ঘোষ
সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে

এয়ার ইন্ডিয়ার মুনাফা বাড়াতে ‘ছক’ কেন্দ্রের

air india
ফাইল চিত্র।

প্রতিযোগিতার বাজারে এয়ার ইন্ডিয়া পিছিয়ে পড়ছিল। কিন্তু বর্তমানে লকডাউনের বাজারে একচেটিয়া ভাবে তাদের কিছু আন্তর্জাতিক উড়ানের টিকিটের দাম বাড়িয়ে মুনাফা করার সুযোগ দেওয়ার অভিযোগ উঠতে শুরু করেছে।

অভিযোগ, ভারতের বিভিন্ন শহর থেকে মূলত পশ্চিম এশিয়ার দেশগুলিতে যে উড়ান যাতায়াত করছে, তার টিকিটের দাম স্বাভাবিকের থেকে অনেক বেশি। এমনকি, কিছু কিছু ক্ষেত্রে ভারত থেকে আমেরিকা এবং ব্রিটেনের টিকিটের যে দাম, তার থেকেও বেশি নেওয়া হচ্ছে বলে ট্র্যাভেল এজেন্টদের একাংশ জানান।

এয়ার ইন্ডিয়ার সাইটে গিয়ে কোচি থেকে দুবাই যাত্রার ভাড়া প্রায় ৯০ হাজার টাকাও দেখিয়েছে! এয়ার ইন্ডিয়া অবশ্য জানিয়েছে, ওই রুটে টিকিটের বুকিং শুরু হওয়ার আগেই ওই ভাড়াটা ভুল দেখিয়েছে। এখন ওই রুটে ৪৫ হাজার টাকায় টিকিট পাওয়া যাচ্ছে। বন্দে ভারত রুটের সমস্ত উড়ানের টিকিটের ভাড়াই ন্যায্য বলে দাবি করেছে উড়ান সংস্থা।

ট্রাভেল এজেন্টদের অভিযোগ, বেশিরভাগ ক্ষেত্রেই এয়ার ইন্ডিয়া একচেটিয়া উড়ান চালানোয় ভাড়া বেড়ে চলেছে। প্রধানত দক্ষিণ ভারত থেকে দুবাই, শারজা, আবুধাবি, বাহরিন, দোহায় প্রচুর শ্রমিক যাচ্ছেন। যে সংস্থায় তাঁরা কাজ করেন, সেই সংস্থাই উড়ানের টিকিট কেটে তাঁদের নিয়ে যাচ্ছে।

ট্রাভেল এজেন্ট ফেডারেশনের পূর্ব ভারতের চেয়ারম্যান অনিল পঞ্জাবিও জানান, যেখানে টিকিটের চাহিদা বেশি সেখানেই দাম বাড়ছে। তাঁর কথায়, “ভারতের সঙ্গে চুক্তি করে কয়েকটি দেশে বাব্‌ল ফ্লাইট চালু হয়েছে। সেই সব দেশে এয়ার ইন্ডিয়া ছাড়াও অন্য বেসরকারি উড়ান সংস্থা চলছে। এমনকি, বিদেশি উড়ান সংস্থাও সেই সব রুটে চলছে। ওই সব রুটে ভাড়া অনেক প্রতিযোগিতামূলক।” তবে কয়েকটি দেশের সঙ্গে ভারতের এই চুক্তি হয়েছে। বাকি সর্বত্র বন্দে ভারতের উড়ানই চলছে। এয়ার ইন্ডিয়ার থেকে এয়ার ইন্ডিয়া এক্সপ্রেসের ভাড়াও বেশি পড়ছে। দক্ষিণ ভারত থেকে পশ্চিম এশিয়ার দেশগুলিতে মূলত এয়ার ইন্ডিয়া এক্সপ্রেসের উড়ান চলছে।

ট্রাভেল এজেন্ট অ্যাসোসিয়েশনের পূর্ব ভারতের চেয়ারম্যান মানব সোনির কথায়, “দক্ষিণ ভারত থেকে বাহরিনে বহু শ্রমিক যাতায়াত করছেন। ফলে টিকিটের চাহিদাও বেশি। ৩৭ হাজার টাকা দিয়ে একপিঠের টিকিট কাটতে হচ্ছে।” অথচ কলকাতা থেকে যে নতুন লন্ডনের সরাসরি উড়ান চালু হয়েছে, তার টিকিট ২৮ হাজার টাকার মধ্যে পাওয়া যাচ্ছে।

এখনও ভারত থেকে স্বাভাবিক আন্তর্জাতিক যাত্রী উড়ান চালু হয়নি। বিদেশে আটকে থাকা ভারতীয়দের দেশে ফিরিয়ে আনার জন্য মে মাস থেকে বন্দে ভারত প্রকল্পে উড়ান চালাতে শুরু করে কেন্দ্র। প্রথমে এয়ার ইন্ডিয়া একচেটিয়া ব্যবসা করলেও পরে বেসরকারি উড়ান সংস্থাগুলি অনুমতি পেয়েছে। তবে একচেটিয়া এখনও বন্দে ভারত প্রকল্পে ৮০ শতাংশ উড়ান এয়ার ইন্ডিয়াই চালাচ্ছে।

সবাই যা পড়ছেন

সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে
আরও পড়ুন

সবাই যা পড়ছেন

আরও পড়ুন