আর্থিক সঙ্কট নিয়ে দিল্লিতে প্রতিবাদ সভার দিনক্ষণ আবার পিছিয়ে দিল কংগ্রেস। প্রথমে ঠিক হয়েছিল ওই সভা হবে ৩০ নভেম্বর। পরে তা পিছিয়ে করা হয়েছে আগামী ১৪ ডিসেম্বর। 

আগামী ৩০ নভেম্বর আর্থিক সঙ্কট নিয়ে দিল্লির রামলীলা ময়দানে জনসভার পরিকল্পনা করেছিল কংগ্রেস। ওই সভায় বিরোধী দলগুলিকেও শামিল করতে চায় সনিয়া গাঁধীর দল। তার আগে জেলা ও রাজ্যস্তরে আর্থিক সঙ্কট, রুটিরুজির সমস্যা নিয়ে বিক্ষোভ আন্দোলনের পরিকল্পনা করেছিল কংগ্রেস। কিন্তু এর মধ্যেই অযোধ্যা রায় ঘোষণায় বহু এলাকায় ১৪৪ ধারা জারি হওয়ায় জনসভা পিছিয়ে দেওয়া নিয়ে চিন্তাভাবনা শুরু হয়। কিন্তু গত শনিবার দিল্লিতে কংগ্রেসের সব সাধারণ সম্পাদক, গণসংগঠনের প্রধান, রাজ্য সভাপতি, পরিষদীয় দলনেতাদের বৈঠকের পরে সংগঠনের ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক কে সি বেণুগোপাল ঘোষণা করেছিলেন, ৩০ নভেম্বর ‘ভারত বাঁচাও র‌্যালি’র আয়োজন করা হবে। অযোধ্যা রায়ের পরে অনেক জায়গায় ১৪৪ ধারা জারি হওয়া সত্ত্বেও দেশের ৬০ শতাংশ এলাকায় রাজ্য ও জেলাস্তরে মোদী সরকারের জনবিরোধী নীতির বিরুদ্ধে বিক্ষোভ দেখানো হয়েছে।

কিন্তু আজ বেণুগোপালই ফের ঘোষণা করেছেন, ওই জনসভা আগামী ১৪ ডিসেম্বর হবে। জনসভার প্রস্তুতি হয়নি বলেই তা পিছিয়ে দেওয়া হচ্ছে কি না, সে সম্পর্কে অবশ্য কংগ্রেস নেতারা মুখ খুলতে চাননি। তবে কংগ্রেস সূত্রের খবর, ১৩ ডিসেম্বর সংসদের শীতকালীন অধিবেশন শেষ হচ্ছে। সংসদে মোদী সরকারকে যথাসম্ভব কোণঠাসা করার চেষ্টা করে, তার পরেই মাঠে নামা হবে।

আরও পড়ুন: লোকসভায় নেই প্রধানমন্ত্রী মোদী, বৈঠকে ব্যাখ্যা তাঁর কাজের