উন্নাও মামলায় নিগৃহীতা, তাঁর পরিবার বা সাক্ষীদের নাম, ঠিকানা বা পরিচয় কোনও ভাবেই সাংবাদিকেরা প্রকাশ করতে পারবেন না বলে দিল্লি জেলা আদালত বুধবার নির্দেশ দিয়েছে। সুপ্রিম কোর্ট ৪৫ দিনের মধ্যে এই মামলার নিষ্পত্তি করতে হবে বলে আগেই রায় দিয়েছে। তদন্তকারী সিবিআই এ দিন আদালতে এক মাস সময় চাইলেও বিচারক ধর্মেশ শর্মা সেই আর্জি নাকচ করেন। ১৭ অগস্টের মধ্যে সিবিআইকে রিপোর্ট দিতে বলেছেন তিনি।  উন্নাওয়ের মেয়েটির অবস্থা আগের মতোই আশঙ্কাজনক বলে এমস সূত্রে জানা গিয়েছে।

সংবাদসংস্থা পিটিআই, এএনআই এবং জাতীয় সংবাদপত্রের কয়েক জন সাংবাদিককে এই মামলার শুনানি রিপোর্ট করার অনুমতি দিয়েছে আদালত। বিচারক শর্মা এ দিন সাংবাদিকদের জন্য কয়েকটি নির্দেশ দিয়েছেন। সেগুলির মধ্যে রয়েছে, কে কী সাক্ষ্য দিলেন, তা আংশিকও প্রকাশ করা যাবে না। শুনানি চলাকালীন বিচারক বিশেষ কিছু নির্দেশ দিলে জানানো যাবে না তা-ও। রুদ্ধদ্বার শুনানি হবে কি না, সে বিষয়ে পরে সিদ্ধান্ত নেবে আদালত। এ ছাড়া, মামলা সম্পর্কে কোনও মতামত বা মূল্যায়ন প্রকাশ করা যাবে না। সিবিআইয়ের তরফে বিশেষ কৌঁসুলি অশোক ভারতেন্দু এ দিন আর্জি জানান, এই মামলায় অভিযোগকারিণীর বয়ানের উপরই নির্ভর করতে হবে এবং অভিযুক্তদের শাস্তি দিতে হবে। অভিযোগকারিণীর আইনজীবীও একমত। অভিযুক্তদের আইনজীবী অভিযোগ ভিত্তিহীন বলে দাবি জানান।