শুধু বিরোধী নয়, শরিক দলের সঙ্গে সমন্বয়ের অভাবে সংসদের প্রথম অধিবেশনে নরেন্দ্র মোদী সরকার ডেপুটি স্পিকার নির্বাচন করতে পারেনি, দাবি করল তৃণমূল। আজ ওই অভিযোগ করে রাজ্যসভায় তৃণমূলের নেতা ডেরেক ও’ব্রায়েন বলেন, ‘‘সমন্বয়হীনতার কারণে সংখ্যা থাকা সত্ত্বেও প্রথম অধিবেশনে লোকসভায় ডেপুটি স্পিকার নির্বাচনে করতে ব্যর্থ সরকার। সাম্প্রতিক অতীতে যা দেখা যায়নি।’’ 

লোকসভার ডেপুটি স্পিকার সাধারণত বিরোধী দল বা সরকারের শরিক দল থেকে বেছে নেওয়া হয়। সে জন্য বিরোধী ও শরিকদের সঙ্গে আলোচনায় বসতে হয় সরকার পক্ষকে। কিন্তু প্রায় দু’মাস অধিবেশন চলা সত্ত্বেও সরকার সংখ্যাগরিষ্ঠতার ‘অহঙ্কার’-এর ফলে ওই বৈঠকে বসতেই রাজি হয়নি বলেই অভিযোগ তৃণমূলের। একই সঙ্গে বিল সংক্রান্ত আলোচনায় বিরোধীরা উপেক্ষিত হন বলেও সরব হন ডেরেক। তাঁর কথায়, ‘‘সরকার দু’ডজন বিল পাশ করেছে বটে কিন্তু যখনই মহিলা সংরক্ষণ বিল, তথ্য সংরক্ষণ আইন নিয়ে বিরোধীরা আলোচনা চেয়েছেন তখনই তা এড়িয়ে গিয়েছে।’’ ডেরেকের দাবি, শুরুর দিন থেকে সংবাদমাধ্যমের স্বাধীনতা নিয়ে রাজ্যসভায় আলোচনা চেয়েছেন বিরোধীরা। কিন্তু কার্যসূচি উপদেষ্টা কমিটি থেকে বলা হয়েছে, অন্য বিষয়ে আলোচনা করুন।