• সংবাদ সংস্থা
সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে

পাথর ছোড়া রুখতে এ বার বিশেষ বাহিনী পেল ‘বন্দে ভারত এক্সপ্রেস’

Vande Bharat Express
গত ১৫ ফেব্রুয়ারি আনুষ্ঠানিক ভাবে ‘বন্দে ভারত এক্সপ্রেস’-এর উদ্বোধন করেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। —ফাইল চিত্র।

Advertisement

কখনও ট্রেনের চাকার নীচে চলে এসেছে গরু। কখনও ট্রেন লক্ষ্য করে ছোড়া হয়েছে পাথর। যাত্রা শুরুর পর থেকেই নানা বিপত্তিতে বার বার থমকেছে ‘বন্দে ভারত এক্সপ্রেস’-এর চাকা। এ বার সে সমস্ত বিপত্তি কাটাতে বুধবার গোটা ট্রেনের জন্য বিশেষ বাহিনীই গঠন করে ফেলল ভারতীয় রেল। মূলত, পাথর ছোড়ার হাত থেকে ট্রেনকে রক্ষা করাই উদ্দেশ্য।

রেল সূত্রে খবর, ট্রেনের সুরক্ষার জন্য তৈরি ওই বাহিনীগুলিতে রয়েছেন জিআরপি এবং আরপিএফ জওয়ান। দুষ্কৃতী ধরতেই কাজ করবে বাহিনী। এ ছাড়া, নজরদারির কাজে থানা ও পুলিশ ফাঁড়িতেও থাকবে বিশেষ দল।

গত ১৫ ফেব্রুয়ারি আনুষ্ঠানিক ভাবে এই ট্রেনের উদ্বোধন করেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। তবে সরকারি ভাবে যাত্রা শুরুর আগে থেকেই দুষ্কৃতীদের পাথরের লক্ষ্য হয়ে উঠেছে দেশের দ্রুততম সেমি হাইস্পিড ট্রেন ‘বন্দে ভারত এক্সপ্রেস’। গত ডিসেম্বর থেকে ট্রেন লক্ষ্য করে একাধিক বার পাথর ছোড়া হয়েছে। ২০ ডিসেম্বর দিল্লি থেকে আগরায় পরীক্ষামূলক ভাবে ট্রেন চালানোর সময় প্রথম বার ট্রেন লক্ষ্য করে পাথর ছোড়া হয়। ৩ ফেব্রুয়ারি ইলাহাবাদ থেকে পরীক্ষামূলক ভাবে ওই ট্রেন চালানোর কথা ছিল। ওই দিন দিল্লির শকুর বস্তি থেকে নয়াদিল্লির দিকে রওনা দেয় ট্রেনটি। কিন্তু পাথরের ঘায়ে যাত্রাপথেই থমকে যায় তা। এর পর ২০ ফেব্রুয়ারি উত্তরপ্রদেশের টুন্ডলা জংশন পার করার সময় ট্রেনের জানলায় পাথর ছোড়া হয়।

দিল্লি দখলের লড়াই, লোকসভা নির্বাচন ২০১৯

বিশেষ বাহিনী গঠন করা ছাড়াও ট্রেনের সুরক্ষায় চিন্তাভাবনা শুরু করে দিয়েছে রেল। ইলাহাবাদের এসপি (রেলওয়েজ) হিমাংশু কুমার জানিয়েছেন, যে সব এলাকা থেকে ট্রেনে পাথর ছোড়ার ঘটনা ঘটেছে, সে সব জায়গায় কড়া নজর রাখা হবে। সাদা পোশাকের পুলিশেরা ওই সব এলাকার বিভিন্ন গ্রামে থাকবেন বলেও জানিয়েছেন তিনি। তাঁর কথায়, “বিশেষত কানপুর থেকে বারাণসী রুটে কড়া নজরদারির সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে।”

আরও পড়ুন: বাংলায় এক ব্যক্তির সরকার চলছে, প্রতিশ্রুতির পর প্রতিশ্রুতি, কিছুই হচ্ছে না: মমতাকে বিঁধলেন রাহুল

আরও পড়ুন: বয়কটের মধ্যেই পাক প্রধানমন্ত্রীকে শুভেচ্ছাবার্তা মোদীর! টুইট ইমরানের

ওই সব এলাকার থানায় এক জন সাব-ইনস্পেক্টরের অধীনে দু’জন হেড কনস্টেবল ও চার জন কনস্টেবলের একটি দল গঠন করা হয়েছে। এ ছাড়া, পুলিশ ফাঁড়িতে এক জন হেড কনস্টেবল ও দু’জনের কনস্টেবলের দল নজরদারির কাজ চালাবে।

আরও পড়ুন: ইউপিএ-র পরে এ বার বিহারে এনডিএ ঘোষণা করল তাদের প্রার্থীতালিকা

আরও পড়ুন: জাতীয় রাজনীতিকে মাথায় রেখেই ২৬ মার্চ ইস্তাহার প্রকাশ করবে তৃণমূল​

হিমাংশু কুমার জানিয়েছেন, পাথর ছোড়ার অভিযোগে গত সপ্তাহেই ফতেপুর জেলায় এক যুবককে গ্রেফতার করা হয়েছে। বন্ধুদের সঙ্গে বাজি ধরে সে টার্গেট প্র্যাকটিস করার জন্য ট্রেনে পাথর ছু়ড়েছিল বলে দাবি পুলিশের।

পাথর ছোড়ার অভিযোগে ধরা পড়লে দুষ্কৃতীদের বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা নেবে রেল। হিমাংশু কুমার বলেন, “এক বার ধরা পড়লে সিআরপিসি-র ১১৬ ও ১১৭ ধারায় মামলা রুজু করা হবে। তবে একই অপরাধে বার বার ধরা পড়লে অভিযুক্তের বিরুদ্ধে আরও কড়া ব্যবস্থা নেওয়া হবে।”

(কী বললেন প্রধানমন্ত্রী, কী বলছে সংসদ- দেশের রাজধানীর খবর, রাজনীতির খবরজানতে আমাদেরদেশবিভাগে ক্লিক করুন।)

সবাই যা পড়ছেন

Advertisement

সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে
আরও পড়ুন

সবাই যা পড়ছেন

আরও পড়ুন