• সংবাদ সংস্থা
সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে

কুমারের আস্থা জয়, ভোটাভুটির যুদ্ধে গেলই না বিজেপি

Kumaraswamy
কুমারেই আস্থা।

কর্নাটকে রাজনৈতিক নাটকের আপাত সমাপ্তি। বিজেপি ওয়াক আউট করায় কর্নাটক বিধানসভার আস্থা ভোটে সহজ জয় পেলেন এইচ ডি কুমারস্বামী। যদিও এর মধ্যেই হুঁশিয়ারি দিয়েছেন বিজেপি নেতা ইয়েদুরাপ্পা। কুমারস্বামীর উদ্দেশে চ্যালেঞ্জ ছুঁড়ে তার বক্তব্য, ‘‘দেখি কত দিন আপনি ক্ষমতায় থাকতে পারেন।’’ এ টুকু বাদ দিলে কর্নাটক বিধানসভায় শুক্রবার উত্তেজনা ছিল না বিন্দুমাত্র।

কংগ্রেস ও জেডি(এস) জোটের আশঙ্কা ছিল, শেষ মুহূর্তে হলেও দল ভাঙানোর চেষ্টা করতে পারে বিজেপি। এ জন্য  দলের বিধায়কদের তাঁরা রীতিমতো আগলে রেখেছিলেন। প্রাথমিক ভাবে স্পিকার পদে কংগ্রেসের কে আর রমেশ কুমারের বিরুদ্ধে সুরেশ কুমারকে প্রার্থী করার সিদ্ধান্ত নেয় বিজেপি। কিন্তু পরিস্থিতি অনুকূল নয় বুঝে তিনি মনোনয়ন পত্র প্রত্যহার করে নেন। ফলে প্রতিযোগিতা ছাড়াই কর্নাটক বিধানসভায় স্পিকার পদটি পেয়ে গিয়েছে কংগ্রেস।

কিন্তু এইচ ডি কুমারস্বামী কি পুরো সময়ের জন্য মুখ্যমন্ত্রী পদে থাকবেন? আস্থা ভোটের আগে সংশয়টা উস্কে দিলেন কর্নাটকের উপমুখ্যমন্ত্রী তথা সে রাজ্যের প্রদেশ কংগ্রেস সভাপতি জি পরমেশ্বর। তিনি জানিয়ে দিয়েছেন, বিষয়টি নিয়ে এখনও সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়নি।

আরও পড়ুন: তিস্তার জল চাই, মুখে না বলে এটাই কি বোঝালেন হাসিনা?

আরও পড়ুন: সরকার বাঁচাতে সতর্ক থাকুন, বার্তা রাহুলের

কর্নাটকে সুশাসনের লক্ষ্যে কাজ করা হবে বলে জানিয়েছে জেডি(এস) এবং কংগ্রেস। কিন্তু মুখ্যমন্ত্রী পদ নিয়ে দু’দলের মধ্যে যে টানাপোড়েন রয়েছে, সেটা তাদের কথা থেকেই স্পষ্ট হয়ে গিয়েছে। কুমারস্বামীই পাঁচ বছরের জন্য মুখ্যমন্ত্রী থাকবেন, এই পদ নিয়ে কোনও রকম ভাগাভাগি হবে না বলে জানিয়েছে জেডি(এস)। কিন্তু পরমেশ্বর অন্য সুরে কথা বলায় জোটের মতপার্থক্য প্রকাশ্যে এসে গেল বলেই একাংশের ধারণা।

সবাই যা পড়ছেন

সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে
আরও পড়ুন

সবাই যা পড়ছেন

আরও পড়ুন