‘নর্তকী স্বপ্নাকে বিয়ে করুন রাহুল, রাজীবও তাই করেছিলেন’, কদর্য আক্রমণ বিজেপি বিধায়কের
সম্প্রতি স্বপ্না চৌধুরীর কংগ্রেসে যোগ দেওয়ার খবর চাউর হয় সোশ্যাল মিডিয়ায়।
surendra singh

রাহুল গাঁধী, স্বপ্না চৌধুরী, সুরেন্দ্র সিংহ। ছবি: টুইটার থেকে সংগৃহীত।

ফের কুরুচিকর মন্তব্য বিজেপি নেতা সুরেন্দ্র সিংহের। এ বার সনিয়া গাঁধীর সঙ্গে হরিয়ানার ‘নর্তকী’ স্বপ্না চৌধুরীর তুলনা টানলেন তিনি। তাঁর কথায়, ‘‘ইতালি থেকে নর্তকী সনিয়াকে বিয়ে করে এনেছিলেন রাজীব গাঁধী। সনিয়ার সঙ্গে স্বপ্নার পেশা মেলে। তাই তাঁকে বিয়ে করা উচিত রাহুল গাঁধীর।’’

পেশায় ‘নর্তকী’ স্বপ্না চৌধুরী। সলমন খানের সঞ্চালনায় রিয়্যালিটি শো বিগ বসে যোগ দিয়ে রাতারাতি জনপ্রিয় হয়ে ওঠেন। ইতিমধ্যে একাধিক ছবিতেও মুখ দেখিয়েছেন। সোশ্যাল মিডিয়ায় সম্প্রতি তাঁর কংগ্রেসে যোগ দেওয়ার খবর চাউর হয়। প্রিয়ঙ্কা গাঁধীর সঙ্গে তাঁর একটি ছবিও সামনে আসে।

সেই নিয়ে মন্তব্য করতে গিয়েই ইউপিএ চেয়ারপার্সন সনিয়াকে নিয়ে অশালীন মন্তব্য করে বসেন উত্তরপ্রদেশের রোহানিয়ার বিজেপি বিধায়ক সুরেন্দ্র সিংহ। সংবাদ সংস্থা এএনআইকে দেওয়া সাক্ষাত্কারে বলেন, ‘‘পারিবারিক ঐতিহ্য বজায় রাখছেন রাহুল গাঁধী। তাই স্বপ্না চৌধুরীর মতো নর্তকীকে দলে নিয়েছেন। ইতালিতে ওঁর মাও একই পেশায় যুক্ত ছিলেন। ওঁর বাবা সনিয়াকে বিয়ে করে এনেছিলেন। রাহুলেরও উচিত স্বপ্নাকে বিয়ে করা। একই পেশার সুবাদে মিলেমিশে থাকবেন শাশুড়ি-বউমা।’’

সুরেন্দ্র সিংহের সাক্ষাত্কার।

আরও পড়ুন: ‘আমার স্ত্রীর ব্যাগে ২ গ্রাম সোনা ছিল দেখাতে পারলে রাজনীতি ছেড়ে দেব’

রাহুল গাঁধীর নেতৃত্বের পাশাপাশি স্বপ্না চৌধুরীর চরিত্র নিয়েও প্রশ্ন তোলেন সুরেন্দ্র সিংহ। তিনি বলেন, ‘‘রাজনীতিকদের উপর আর আস্থা নেই রাহুল গাঁধীর। তাই নর্তকীদের রাজনীতিতে টেনে আনছেন।’’ সত্ এবং চরিত্রবান নরেন্দ্র মোদীর জায়গায় কোনও নর্তকীকে দেশবাসী মেনে নেবে না বলেও জানান তিনি।

অন্য দিকে, একটি সর্বভারতীয় সংবাদমাধ্যমকে দেওয়া সাক্ষাত্কারে তাঁর কংগ্রেসে যোগ দেওয়ার খবর উড়িয়ে দিয়েছেন স্বপ্না চৌধুরী। সোশ্যাল মিডিয়ায় প্রিয়ঙ্কা গাঁধীর সঙ্গে তাঁর যে ছবি ছড়িয়ে পড়েছে, সেটি বহুদিন আগের বলেও দাবি করেছেন তিনি। তবে তাঁর দাবি উড়িয়ে দিয়েছে কংগ্রেস। শনিবার স্বপ্না ও তাঁর দিদি এক সঙ্গে কংগ্রেসের সদস্যপদ গ্রহণ করেন বলে পাল্টা দাবি করেন উত্তরপ্রদেশের কংগ্রেস সম্পাদক নরেন্দ্র রাঠি। প্রমাণস্বরূপ স্বপ্নার স্বাক্ষর করা দলের আবেদনপত্র সংবাদমাধ্যমের সামনে তুলে ধরেন তিনি।

কোনও রাজনৈতিক দলে যোগ দেননি, দাবি স্বপ্নার।

আরও পড়ুন: দমদমের পর খাস কলকাতা, চোর সন্দেহে গাছে বেঁধে যুবককে পিটিয়ে খুনের অভিযোগ কালীঘাটে​

স্বপ্না সদস্যপদ গ্রহণ করেছেন বলে দাবি কংগ্রেসের।

নরেন্দ্র মোদীর সমালোচনা করায় কয়েকদিন এর আগে উত্তরপ্রদেশের প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী এবং বহুজন সমাজ পার্টি নেত্রী মায়াবতীকেও অশালীন ভাষায় আক্রমণ করেন সুরেন্দ্র সিংহ। চুলে কলপ লাগিয়ে মায়াবতী যুবতী সাজার চেষ্টা করছেন বলে মন্তব্য করেছিলেন এই বিজেপি বিধায়ক।

(কী বললেন প্রধানমন্ত্রী, কী বলছে সংসদ- দেশের রাজধানীর খবর, রাজনীতির খবর জানতে আমাদের দেশ বিভাগে ক্লিক করুন।)

২০১৯ লোকসভা নির্বাচনের ফল

আপনার মত