• নিজস্ব প্রতিবেদন
সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে

ম্যাগি বিতর্ক

দিল্লিতে নিষিদ্ধ, ক্লিনচিট মহারাষ্ট্র-গোয়ায়

3
বিতর্কের মধ্যেও চলছে বিক্রি। বুধবার নয়াদিল্লিতে। ছবি: এএফপি।

উধাও দু’মিনিটের ম্যাজিক। বরং নেস্‌লে সংস্থার চটজলদি নুডল্‌স ম্যাগি নিয়ে দেশজুড়ে চড়ছে আতঙ্কের পারদ! রাজ্যে রাজ্যে চলছে ম্যাগির নমুনা পরীক্ষা। কোথাও ক্লিনচিট মিললেও বেশিরভাগ ক্ষেত্রেই কাঠগড়ায় উঠছে জনপ্রিয় এই নুডল্‌স। সব মিলিয়ে বিপদ বাড়ছে ম্যাগির। বিক্রি কমায় অশনি সঙ্কেত দেখাচ্ছে শেয়ার বাজারও। আজ ৯ শতাংশ পড়েছে নেস্‌লের শেয়ার দর!  

সম্প্রতি উত্তরপ্রদেশের খাদ্য দফতরের তদন্তে জানা যায়, ম্যাগিতে  মাত্রাতিরিক্ত মনোসোডিয়াম গ্লুটামেট (এমএসজি বা আজিনামোতো) এবং সিসা রয়েছে। তার পর জল গড়িয়েছে বহুদূর। কেরলে ইতিমধ্যেই ম্যাগি বিক্রি নিষিদ্ধ হয়েছে। আজ, ১৫ দিনের জন্য রাজধানীতে ম্যাগি বিক্রি নিষিদ্ধ করেছে দিল্লি সরকার। পুরনো  স্টক বাতিলের নির্দেশও দেওয়া হয়েছে। সেনাবাহিনীর সদস্যদের ম্যাগি না খাওয়ার জন্য আজ একটি নির্দেশিকা জারি করেছে ভারতীয় সেনা। সেনা এবং আধা সেনাদের ক্যান্টিনগুলিতেও আপাতত ম্যাগি বিক্রি বন্ধ থাকছে। ১৫০০-টি কেন্দ্রীয় পুলিশ ক্যান্টিনেও নিষিদ্ধ করা হয়েছে নেস্‌লের পণ্য। এর প্রভাবে গোটা দেশে বিক্রি কমেছে ম্যাগির। দেশে খুচরো ব্যবসায় অন্যতম সংস্থা ফিউচার গ্রুপ আজ জানিয়েছে, বিগ বাজার-সহ ২৪৩টি শহরে তাদের মোট ৫৭০টি বিপণিতে আজ থেকে বন্ধ করা হয়েছে ম্যাগি বিক্রি। দু’মিনিট নুডল্‌সের বিকিকিনি বন্ধ করেছে কয়েকটি কো-অপারেটিভও।

মেঘালয় সরকার আজ জানিয়েছে, সে রাজ্যে পরীক্ষায় ডাহা ফেল করেছে ম্যাগি। অবিলম্বে ম্যাগি বিক্রি বন্ধের কথাও ভাবছে তারা। আজই ম্যাগির নমুনা পরীক্ষাগারে পাঠিয়েছে ওড়িশা এবং হরিয়ানা। রাঁচির খাদ্য নিয়ামক প্রবীণ চন্দ্র জানিয়েছেন, ম্যাগি-পরীক্ষায় নমুনা পাঠিয়েছেন তাঁরাও। যদিও মহারাষ্ট্র এবং গোয়া এ দিন ক্লিনচিট দিয়েছে ম্যাগিকে। তাদের পরীক্ষায় মাত্রাতিরিক্ত সিসা বা আজিনামতো পাওয়া যায়নি বলেই জানিয়েছে ওই দুই রাজ্য। যদিও মহারাষ্ট্র সরকার জানিয়েছে, নতুন ব্যাচ থেকে ম্যাগির নমুনা ফের পরীক্ষা করে তবেই নিশ্চিত ভাবে ফল ঘোষণা হবে।

আজ নেস্‌লের প্রতিনিধিদের সঙ্গে বৈঠকে বসেন দিল্লির স্বাস্থ্যমন্ত্রী সত্যেন্দ্র জৈন। মন্ত্রীর দাবি, নেস্‌লের কাছে কোনও সন্তোষজনক ব্যাখ্যা মেলেনি। তবে ম্যাগির সাম্প্রতিকতম নমুনা পরীক্ষা করে ১৫ দিন পরে ফের সিদ্ধান্ত নেবে দিল্লির প্রশাসন। ‘ক্ষতিকারক’ ম্যাগি বিক্রির অভিযোগে ‘নেস্‌লে ইন্ডিয়া’র বিরুদ্ধে  আইনি পদক্ষেপ করার সিদ্ধান্ত থেকেও সরছে না দিল্লি। স্বাস্থ্যমন্ত্রী এ-ও জানিয়েছেন, ম্যাগির পাশাপাশি বাজারের অন্য চটজলদি নুডল্‌সের নমুনাও পরীক্ষা করা হবে। তাঁর কথায়, ‘‘ভেজাল মেশানো কোনও মতেই বরদাস্ত করা হবে না। এই নিয়ে কড়া পদক্ষেপ করবে সরকার।’’ জম্মু ও কাশ্মীরের সরকারও আজ নাগরিকদের ম্যাগি না খাওয়ার আর্জি জানিয়েছে।

পশ্চিমবঙ্গের ক্রেতা সুরক্ষা মন্ত্রী সাধন পাণ্ডে আজ জানান, বাংলায় ম্যাগি নিষিদ্ধ করা হবে কি না, তা নির্ভর করছে মুখ্যমন্ত্রীর সিদ্ধান্তের উপর। তবে নবান্ন সূত্রে খবর, কেন্দ্রীয় সরকারের পরীক্ষাগারে ম্যাগি-পরীক্ষার রিপোর্ট হাতে পেয়েছে রাজ্য। সরকারের এক মুখপাত্র জানান, আরও নমুনা সংগ্রহ করে আরও এক দফা পরীক্ষা করা হবে। দ্বিতীয় রিপোর্ট দেখার পরেই চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত নেবে রাজ্য সরকার।

সবিস্তার জানতে ক্লিক করুন।

ম্যাগির খাদ্যমান নিয়ে আজ জাতীয় ক্রেতা সমস্যা প্রতিকার কমিশন বা এনসিডিআরসি-র কাছে অভিযোগ দায়ের করেছে কেন্দ্র। কেন্দ্রীয় খাদ্য ও ক্রেতাসুরক্ষা মন্ত্রী রামবিলাস পাসোয়ান জানান, এনসিডিআরসি ম্যাগির নমুনা পরীক্ষা করে সিদ্ধান্ত নেবে। তাঁর কথায়, ‘‘ফাস্ট ফুড বেশি খাওয়ায় স্বাস্থ্যের ক্ষতি হয়। মুম্বইয়ের মতো শহরে ২৫ শতাংশ মানুষ সারাদিনে বাড়ির খাবারই খান না। আর ম্যাগি তো শিশুরাই বেশি খায়।’’ কেন্দ্রীয় খাদ্য নিরাপত্তা নিয়ন্ত্রক সংস্থা ‘ফুড সেফটি অ্যান্ড স্ট্যান্ডার্ডস অথরিটি অব ইন্ডিয়া’ (এফএসএসএআই) ইতিমধ্যেই প্রায় সব রাজ্য থেকে ম্যাগির নমুনা সংগ্রহ করেছে। পাসোয়ান বলেন, ‘‘এফএসএসএআই-এর পরীক্ষার ফল কী হবে জানি না। যদি সেখানেও ম্যাগির খাদ্যমানে সমস্যা ধরা পড়ে, তবে তা খুবই গুরুতর বলে বিবেচিত হবে।’’ অনিয়ম প্রমাণ হলে
ম্যাগি বির্তকে জড়িতদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া হবে বলেও আজ জানিয়েছেন পাসোয়ান।

ছোটপর্দায় ম্যাগির বিজ্ঞাপনে মুখ দেখিয়ে বিপাকে পড়েছেন অমিতাভ বচ্চন, মাধুরী দীক্ষিত, প্রীতি জিন্টার মতো তারকারও। বিজ্ঞাপনের দাবি অসত্য প্রমাণ হলে ওই ব্র্যান্ডের অ্যাম্বাসাডররাও রেহাই পাবেন না বলে আগেই জানিয়েছে কেন্দ্র। আজ এই নিয়ে প্রথম বার মুখ খুলেছেন অমিতাভ বচ্চন। তাঁর দাবি, বর্তমানে তিনি কোনও ভাবেই ম্যাগির সঙ্গে যুক্ত নন। দু’বছর আগেই ওই নুডল্‌সের বিজ্ঞাপন করা বন্ধ করেছেন তিনি। তাঁর কথায়, ‘‘এখনও কোনও আইনি নোটিস হাতে পাইনি। পেলেই  আইনজীবীদের সঙ্গে কথা বলে আইনি প্রক্রিয়ায় সম্পূর্ণ সহযোগিতা করব।’’ এই নিয়ে টুইটারে ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন প্রীতিও। তাঁর টুইট, ‘‘১২ বছর আগে ম্যাগির বিজ্ঞাপন করার জন্য আমার নামে এফআইআর! কী ভাবে!’’ ম্যাগি-বিতর্ক নিয়ে আজ সুর চড়িয়েছেন কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্যমন্ত্রী জে পি নড্ডাও। তিনি জানিয়েছেন, বিভিন্ন রাজ্যে ম্যাগি-পরীক্ষার রিপোর্টের ভিত্তিতে উপযুক্ত ব্যবস্থা নেবে স্বাস্থ্য মন্ত্রক। এই নিয়ে কাউকে রেয়াত করা হবে না বলে জানিয়ে দিয়েছেন মন্ত্রী।

সবাই যা পড়ছেন

সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে
আরও পড়ুন

সবাই যা পড়ছেন

আরও পড়ুন