• সংবাদ সংস্থা
সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে

নেটওয়ার্ক নেই, শেষে এ ভাবে ফোন করলেন কেন্দ্রীয় মন্ত্রী!

Arjun Ram Meghwal
রাজস্থানের বিকানেরের ধুলিয়া গ্রামে সভা ছিল অর্জুন রাম মেঘওয়ালের। ছবি: ইউটিউবের সৌজন্যে।

চেষ্টার কোনও খামতি ছিল না। কখনও চেয়ার ছেড়ে উঠে দাঁড়িয়ে, কখনও বা এ-পাশ ও-পাশ পাইচারি। বার কয়েক মোবাইলটিকে থাবড়েও ছিলেন। কিন্তু, কোনও লাভ হয়নি। শেষে গাছের গায়ে মই বাধিয়ে, তাতে ওঠার পর নেটওয়ার্ক মিলল! তা-ও আবার খাপছাড়া।

ফোনের নেটওয়ার্ক নিয়ে এমন সমস্যায় যিনি পড়লেন, তিনি যেমন তেমন মানুষ নন! কেন্দ্রীয় অর্থ প্রতিমন্ত্রী অর্জুন রাম মেঘওয়াল। রবিবার নিজের নির্বাচনী কেন্দ্র রাজস্থানের বিকানেরের ধুলিয়া গ্রামে সভা করছিলেন অর্জুন। শুনছিলেন গ্রামবাসীদের অভাব-অভিযোগের কথা। এর মধ্যেই এক জন তাঁকে গ্রামের হাসপাতালের দুরাবস্থার কথা জানান। অভিযোগ তোলেন, স্থানীয় হাসপাতালে পর্যাপ্ত নার্স নেই।

এর পরেই মন্ত্রী এক স্বাস্থ্য আধিকারিককে ফোন করতে যান। সমস্যাটি টের পান তখনই। কিছুতেই পাচ্ছিলেন না মোবাইলের সিগন্যাল। সে সময় এক গ্রামবাসী মেঘওয়ালকে গাছে ওঠার পরামর্শ দেন। খুঁজে নিয়ে আসা হয় বিশাল এক মই। ওই মইয়ে চেপেই এক আধিকারিককে ফোন করেন মন্ত্রী।

আরও পড়ুন: বিরল অস্ত্রোপচার কেরলে, দুই হৃদ্‌পিণ্ডে নবজীবন পেলেন ইনি

সেই ফোন করতেই তার নাস্তানাবুদ অবস্থা। প্রায় গাছে চড়ে অর্জুনের এই ফোন করার ভিডিও ইতিমধ্যেই ভাইরাল হয়ে গিয়েছে। এই ভিডিওকে হাতিয়ার করে গোটা দেশে মোবাইল নেটওয়ার্কের দুরবস্থা নিয়ে প্রশ্ন তুলতে শুরু করেছে বিরোধীরা। পরিকাঠামো নেই, অথচ ডিজিটাল ইন্ডিয়ার পক্ষে কেন্দ্রীয় সরকারের এত প্রচার কেন, উঠছে সেই প্রশ্নও।

দেখুন সেই ভিডিও

তবে, মোবাইল নেটওয়ার্কের সমস্যাটি নজরে আসতেই অর্জুন উপস্থিত আধিকারিকদের ওই এলাকায় আগামী তিন মাসের মধ্যে মোবাইল টাওয়ার এবং বিদ্যুতের খুঁটি বসানোর নির্দেশ দেন। এ জন্য ১৩ লক্ষ টাকা বরাদ্দও করেন তিনি।

সবাই যা পড়ছেন

সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে
আরও পড়ুন

সবাই যা পড়ছেন

আরও পড়ুন