৬৯-এ পড়লেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। সকাল সকাল নরেন্দ্র মোদীকে জন্মদিনের শুভেচ্ছা জানালেন পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। আগামিকাল বিকেলে দেখা হবে দু’জনের। তার আগেই মঙ্গলবার সকাল ৮টায় ইংরাজি এবং বাংলা দুই ভাষাতেই প্রধানমন্ত্রীকে শুভেচ্ছা জানান তিনি।

রাজ্যের বিভিন্ন বিষয় নিয়ে আজই বিকেলে দিল্লি যাওয়ার কথা মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের। মোদীর সঙ্গে দেখা করার জন্য বুধ বা বৃহস্পতিবার সময় চেয়েছিলেন মুখ্যমন্ত্রী। প্রধানমন্ত্রী দফতর থেকে বুধবারেই তাঁকে সময় দেওয়া হয়েছে। জন্মদিনের পরদিনই যেহেতু তিনি প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে দেখা করবেন, তাই বুধবার জন্মদিনের শুভেচ্ছা ছাড়াও শারদ উপহার নিয়ে যেতে পারেন মুখ্যমন্ত্রী।

সোমবার কল্যাণেশ্বরীতে পুজো দিয়ে গিয়েছেন নরেন্দ্র মোদীর স্ত্রী যশোদাবেন। ওই দিন দুপুর পৌনে ১টা নাগাদ গাড়িতে করে তিনি এসে পৌঁছন মন্দিরে। পুলিশ সূত্রে জানা যায়, ধানবাদের হিরাপুরে একটি অনুষ্ঠানে যোগ দিতে এসেছিলেন যশোদাবেন। সোমবার তিনি প্রথমে ঝাড়খণ্ডের কাতরাশের রামমন্দিরে পুজো দেন। সেখান থেকে সোজা কল্যাণেশ্বরীতে আসেন। সঙ্গে ছিলেন প্রধানমন্ত্রীর আত্মীয় অশোক মোদী।

আরও পড়ুন: কাল দিল্লিতে মোদী ও মমতার বৈঠক, প্রায় আড়াই বছর পরে একান্ত কথা

এ দিন টুইটার ছেয়ে গিয়েছে শুভেচ্ছা বার্তায়। নেতা-মন্ত্রীরা তো রয়েছেনই, তার বাইরে আয়ুষ্মান খুরানা, অজয় দেবগন, সঞ্জয় দত্তের মতো তারকারাও টুইট করে মোদীকে শুভেচ্ছা পাঠিয়েছেন।

 

নরেন্দ্র মোদীর ৬৮তম জন্মদিনও তাঁর নেতা-মন্ত্রীরা এবং সমর্থকেরা বেশ ধুমধাম করে পালন করেছিলেন। ৬৮০ ফুট লম্বা এবং ৬,৮০০ কিলোগ্রাম ওজনের একটি কেক কেটে বিরল নজির গড়েছিল সুরাত। সে বার জন্মদিনের দিন নেতা-মন্ত্রীরা ঝাঁটা হাতে স্বচ্ছ দিবস পালন করেছিলেন।