• সংবাদ সংস্থা
সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে

প্রেমদিবসে প্রেমের বিরুদ্ধে শপথ

no love
প্রতীকী চিত্র।

তাঁরা কারও প্রেমে পড়বেন না বা ভালবেসে বিয়েও করবেন না। 

প্রেমদিবসে এমনই ‘শপথ’ নিতে বাধ্য করা হল মহারাষ্ট্রের অমরাবতীর একটি মহিলা কলেজের পড়ুয়াদের। সোশ্যাল মিডিয়ায় ছড়িয়ে পড়া একটি ভিডিয়োয় দেখা গিয়েছে, শপথ নেওয়ার ভঙ্গিতে সার বেঁধে, হাত সামনে রেখে দাঁড়িয়ে রয়েছেন ছাত্রীরা। সামনে এক শিক্ষকও রয়েছেন। ভিডিয়োটি সামনে আসতেই শুরু হয়েছে প্রবল সমালোচনা।

অমরাবতীর চন্দুর রেলওয়ে এলাকার মহিলা কলা ও বাণিজ্য কলেজে ঘটনাটি ঘটেছে। অনেকে অবশ্য এতে ভুল কিছু দেখছেন না। ঋতিকা রাঙ্গারি নামে ওই কলেজেরই এক ছাত্রীর মতে, প্রেমের বিষয়ে পরিবারের মতামত নিয়ে চলাটা সব সময়েই বুদ্ধিমানের কাজ। ভাবনা তাডে নামে অন্য এক ছাত্রী আবার বলেছেন, ‘‘প্রেমের বিয়ের প্রয়োজনটা কী, আমি বুঝি না। এ বিষয়ে সিদ্ধান্ত নেওয়ার জন্য আমাদের বাবা-মায়েরাই যথেষ্ট।’’ বিষয়টি নিয়ে প্রশ্ন করা হলে মহারাষ্ট্রের নারী ও শিশুকল্যাণ মন্ত্রী যশোমতী ঠাকুর বলেছেন, ‘‘ছাত্রীরা শপথ নিয়েছেন ঠিকই কিন্তু তাঁরা কোনও কিছুতেই বাধ্য নন। ওয়ার্ধার মতো ঘটনা যাতে আর না ঘটে সম্ভবত সে কারণেই কলেজ কর্তৃপক্ষ ছাত্রীদের এই ধরনের শপথগ্রহণ করিয়েছেন।’’

সম্প্রতি ওয়ার্ধায় প্রেমে প্রত্যাখ্যাত হয়ে এক যুবক ২৪ বছরের এক কলেজ শিক্ষিকার গায়ে আগুন ধরিয়ে দেয়। গত সোমবার হাসপাতালে মৃত্যু হয়েছে ওই তরুণীর।

সবাই যা পড়ছেন

সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে
আরও পড়ুন

সবাই যা পড়ছেন

আরও পড়ুন