• সংবাদ সংস্থা
সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে

রাফাল কেনার নেপথ্যে কাশ্মীরি অফিসার

Hilal
হিলাল আহমেদ রাঠের

চুক্তির চার বছর বাদে আগামী কাল প্রথম পর্বের পাঁচটি রাফাল বিমান হাতে পাবে ভারত। ফ্রান্সের থেকে এই রাফাল যুদ্ধবিমান কেনা নিয়ে কম জলঘোলা হয়নি। নরেন্দ্র মোদী সরকারের বিরুদ্ধে দুর্নীতির অভিযোগে লড়াই গড়িয়েছে সুপ্রিম কোর্ট। আগামী কাল, হরিয়ানার অম্বালায় ভারতীয় বায়ুসেনার ঘাঁটিতে রাফাল বিমানগুলি পৌঁছনোর আগে সেই বিতর্কের প্রসঙ্গ যেমন উঠছে, তেমনই উঠছে কাশ্মীরের বাসিন্দা বায়ুসেনা কমান্ডার হিলাল আহমেদ রাঠেরের নামও।  

ভারতের হাতে যাতে দ্রুত বিমানগুলি পৌঁছয়, তার মধ্যস্থতায় আগাগোড়া গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন  করেছিলেন আদতে কাশ্মীরের অনন্তনাগের বাসিন্দা হিলাল আহমেদ রাঠের। ফ্রান্সে ভারতের রাষ্ট্রদূতের পাশে সর্বদা উপস্থিত থাকা এই ব্যক্তি বর্তমানে প্যারিসে ভারতের মিলিটারি অ্যাটাশে। ভারতের প্রয়োজনের উপযুক্ত করে বিমানগুলির প্রযুক্তি ও পরিকাঠামোগত পরিবর্তনেও যুক্ত ছিলেন হিলাল।

দক্ষিণ কাশ্মীরের অনন্তনাগ জেলার বাকশিয়াবাদের বাসিন্দা হিলাল পাঁচ ভাইবোনের মধ্যে সবচেয়ে ছোট। তাঁর বাবা মহম্মদ আবদুল্লা রাঠের পুলিশের ডেপুটি সুপার পদে ছিলেন। স্থানীয় বেসরকারি স্কুল থেকে পাশ করার পরে নাগরোটার সৈনিক স্কুলে ভর্তি হন হিলাল। এর পর ডিফেন্স সার্ভিস স্টাফ কলেজ থেকে স্নাতক ডিগ্রি পান তিনি। আমেরিকার এয়ার ওয়ার কলেজের ডিগ্রিও আছে তাঁর।

আরও পড়ুন: দেশে করোনা আক্রান্তের সংখ্যা ১৫ লক্ষ পেরিয়ে গেল

১৯৮৮ সালে ফাইটার জেটের পাইলট হিসেবে বায়ুসেনায় যোগ দেন তিনি। ১৯৯৩ সালে হন ফ্লাইট  লেফটেন্যান্ট। কর্মক্ষেত্রে উৎকর্ষতার জন্য ২০১০ সালে ২০১০ সালে উইং কমান্ডার থাকাকালীন ‘বায়ু সেনা মেডেল’ পান তিনি। ২০১৬ সালে গ্রুপ ক্যাপ্টেন থাকাকালীন পান ‘বিশিষ্ট সেনা মেডেল’। কোনও দুর্ঘটনা ছাড়া ৩০০০ ঘণ্টার বেশি যুদ্ধবিমান ওড়ানোর অভিজ্ঞতা রয়েছে তাঁর। 

আরও পড়ুন: ভারতের রাফাল বনাম চিনা জে-২০, যুদ্ধক্ষেত্রে এগিয়ে কে?

আজ বায়ুসেনার তরফে টুইটারে একটি ছবি পোস্ট করা হয়েছে। যেখানে দেখা যাচ্ছে মাঝ-আকাশেই ফ্রান্সের এয়ারফোর্স ট্যাঙ্কার থেকে জ্বালানি ভরা হচ্ছে রাফাল বিমানগুলিতে। পূর্ব পরিকল্পনা অনুযায়ী সংযুক্ত আরব আমিরশাহিতে ফরাসি বায়ুসেনা ঘাঁটিতে ফের জ্বালানি ভরার পরে সেখান থেকে ৭ হাজার মিটার উড়ে আগামী কাল অম্বালায় পৌঁছবে বিমানগুলি। তার আগে আজ থেকেই কড়া নিরাপত্তায় মুড়ে ফেলা হয়েছে বিমানঘাঁটির আশপাশের এলাকা। রাফালগুলি নামার সময়ে বাইরে থেকে কোনও রকম ছবি বা ভিডিয়ো তোলা নিষিদ্ধ। বায়ুসেনা ঘাঁটির তিন কিলোমিটারের মধ্যে ড্রোন ওড়ানোয় নিষেধাজ্ঞা জারি করেছে জেলা প্রশাসন। জারি হয়েছে ১৪৪ ধারাও। বুধবার রাফাল বিমানগুলিকে স্বাগত জানানোর জন্য সন্ধ্যা সাতটা নাগাদ প্রতি বাড়িতে মোমবাতি জ্বালানোর আর্জি জানিয়েছেন অম্বালার বিজেপি বিধায়ক অসীম গয়াল।

সবাই যা পড়ছেন

সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে
আরও পড়ুন

সবাই যা পড়ছেন

আরও পড়ুন