২৩ মে লোকসভার ভোটের ফল প্রকাশ হতেই দেখা গিয়েছে মোদী ঝড়ে ফের বেসামাল বিরোধী শিবির। সেই ঝড়ে ভেসে গিয়েছেন উত্তরপ্রদেশের পারসাপুর এলাকার মহরাউর গ্রামের মুসলিম পরিবারের এক গৃহবধুও। নরেন্দ্র মোদীর ক্যারিশ্মায় মুগ্ধ ওই গৃহবধু সম্প্রতি একটি পুত্র সন্তানের জন্ম দিয়েছেন। লোকসভার নির্বাচনের ফল বেরনোর দিনে তিনি ঠিক করলেন তাঁর সদ্যোজাত পুত্রের নাম রাখবেন ‘নরেন্দ্র দামোদরদাস মোদী’।

সম্প্রতি সন্তানের জন্ম দেওয়া উত্তরপ্রদেশের ওই মহিলার নাম মৈনাজ বেগম। ২৩ তারিখ ছেলের নাম ঠিক করার দিন মোদীর নামই মাথায় আসে তাঁর। আর সেই নামেই নিজের ছেলের নাম ঠিক করেন তিনি। আশপাশের সবাই তাঁকে মত বদলাতে বললেও, তিনি অনড় থাকেন বলে এক সংবাদ সংস্থাকে জানিয়েছেন তাঁর শ্বশুরমশাই। দুবাইতে কর্মরত তাঁর স্বামী মুস্তাক আহমেদকে খবর দেওয়া হলে তিনিও চেষ্টা করেন স্ত্রীর মত বদলাতে। কিন্তু শেষ পর্যন্ত স্ত্রীর ইচ্ছেকে মেনে নেন তিনি।

এরপরই ওই পরিবারের পক্ষ থেকে জেলা শাসককে উদ্দেশে লেখা একটি হলফনামা জমা দেওয়া হয়েছে পঞ্চায়েতের সহ উন্নয়ন আধিকারিক ঘনশ্যাম পাণ্ডের কাছে। শুক্রবার ওই হলফনামা পেয়ে ঘনশ্যাম পাণ্ডে বলেছেন, ‘‘আবেদনটি গ্রাম পঞ্চায়েতের সম্পাদকের কাছে পাঠিয়ে দেওয়া হয়েছে। উনিই জন্ম ও মৃত্যু নথিবদ্ধ করার বিষয়টি দেখেন।’’

ওই হলফনামায় মৈনাজ বেগম মোদী এবং তাঁর সরকারের উন্নয়ন যোজনার প্রশংসা করেছেন। বিশেষ করে দরিদ্র মানুষদের জন্য বিনামূল্যে গ্যাসের সংযোগ ও শৌচাগার নির্মাণের আর্থিক সহায়তা দেওয়ার প্রকল্পটির ভূয়সী প্রশংসা করেন। মোদী সরকারের দেশের জন্য যে খুব ভাল কাজ করেছেন সে কথাও জানাতে ভোলেননি তিনি।

নাম রাখার বিষয়টি নিয়ে মৈনাজের পরিবারের তরফে তাঁর শ্বশুর ইদ্রিশ বলেছেন,‘‘শিশুর নাম রাখার বিষয়টি পরিবারের ব্যক্তিগত ব্যাপার। তাই অন্যদের এতে নাক গলানো উচিত নয়।’’

আরও পড়ুন: ‘যৌথ পরিবারে স্বামীর মৃত্যুতে নির্যাতিতাকে খোরপোশ দিতে হবে ভাসুর, দেওরকেও’: সুপ্রিম কোর্ট