স্বামীর সঙ্গে ফোনে কথা বলার সময় না দেখেই সাপের উপরে বসে পড়েছিলেন। সাপের কামড়ে এক ঘণ্টার মধ্যেই মৃত্যু হল ওই মহিলার। গীতা সিংহ নামে ওই মহিলার বাড়ি উত্তরপ্রদেশের গোরক্ষপুরের রিয়ানভ গ্রামে।

ওই মহিলার স্বামী কর্মসূত্রে তাইল্যান্ডে থাকেন। স্বামীর সঙ্গেই ফোনে কথা বলছিলেন তিনি। ফোনে এতটাই ব্যস্ত ছিলেন যে ঘরে প্রবেশের পর বুঝতেই পারেননি তাঁর বিছানা কব্জা করেছে দু’টো বিষাক্ত সাপ। সাপ দু’টি সঙ্গমে লিপ্ত ছিল। বিছানার চাদরটাও প্রিন্টেড ছিল। সেই রঙের সঙ্গে সাপ দু’টো অনেকটাই মিশে গিয়েছিল।

ফোনে কথা বলতে বলতে দুর্ভাগ্যবশত তিনি বিছানায় সাপ দুটোর উপরেই বসে পড়েন। আর তখনই দু’টি সাপ একসঙ্গে তাঁকে কামড়ে দেয়। কামড়ানোর কয়েক মিনিটের মধ্যেই জ্ঞান হারান গীতাদেবী। বাড়ির লোকেরা তাঁকে তৎক্ষণাৎ হাসপাতালে নিয়ে যান। কিন্তু বিষের প্রভাব এতটাই বেশি ছিল যে বাঁচানো সম্ভব হয়নি। চিকিৎসা চলাকালীনই হাসপাতালে তাঁর মৃত্যু হয়।

আরও পড়ুন: লাদাখে ফের মুখোমুখি দুই দেশ, ভারতীয় সেনার রাস্তা আটকাল চিন, আলোচনায় কমল উত্তেজনা

আরও পড়ুন: বায়ুমণ্ডল ফুঁড়ে বেরিয়ে আসছে জলের ধোঁয়া! রয়েছে প্রাণ? অবাক করা ভিন গ্রহের হদিশ

বাড়ির লোকেরা হাসপাতাল থেকে ফিরে দেখেন তখনও বিছানার উপরে রয়েছে দুটো সাপ। রাগের চোটে তাদের পিটিয়ে মেরে দেন তাঁরা। তবে সাপ দুটো কোন প্রজাতির ছিল তা জানা যায়নি।