অ্যাপল জাদু হাজির।আর ২৪ ঘণ্টাও বাকি নেই আর। কিন্তু যাঁরা আর অপেক্ষা করতে পারছেন না, তাঁদের জন্য এক নজরে বিশেষ কিছু খবর। প্রধানত তিনটি নতুন ফোন পেতে চলছে আজকের এই ইভেন্ট। তার সঙ্গে একটা ঘড়ি।একটি আইপ্যাডের আত্মপ্রকাশ হলেও হতে পারে। বিভিন্ন সূত্র থেকে এমনটাই জানা যাচ্ছে।

যে তিনটি ফোন বাজারে আসতে চলেছে, তার মধ্যে সব থেকে দামি দুটোর নাম আইফোন টেন এস এবং টেন এস ম্যাক্স । নামেই আন্দাজ করতে পারছেন, টেন এস ছোট এবং টেন এস ম্যাক্স তার থেকে বড় হবে আকারে। অনুমান করা হচ্ছে, ছোট ফোনটির ডিসপ্লে ৫.৮ ইঞ্চি হবেএবং বড় ফোনটির ডিসপ্লে হবে ৬.৫ ইঞ্চি। এটাইএখনও পর্যন্ত সব থেকে ওজনে ভারী আইফোন হবে বলে মনে করা হচ্ছে। দুটো ফোনেই ডুয়াল ক্যামেরা নচ ইত্যাদি প্রযুক্তি হাজির থাকবে।বেজেল আরও ছোট হয়ে ফোনের ডিসপ্লের অংশ আরও বড় হবে বলে মনে করা হচ্ছে। সম্ভবত সব থেকে ক্ষমতাশালী এ১২ প্রসেসর থাকবে এতে।

আরও বেশি সংখ্যক মানুষের কাছে আইফোন পৌঁছে দিতে এই প্রথম সব থেকে কম দামের আইফোন আসতে চলেছে বাজারে। অনুমান করা হচ্ছে ২ জিবি র‌্যাম, এ১০ প্রসেসর এবং পিছনে সিঙ্গল ক্যামেরা থাকবে তাতে। নাম সম্ভবত আইফোন টেন সি বা টেন আর হতে পারে।সবটাই অনুমান করা হচ্ছে। গত বার আইফোন এইট এবং টেন বেরোনোর পর মানুষের একটা প্রশ্ন ছিল নাইন কোথায় গেল? এবং সেটাও, সম্ভবত এবার প্রকাশ পেতে চলেছে। ৬.১ ইঞ্চির ডিসপ্লে, কোবাল্ট ব্লু এবং আরও ৪-৫টি রঙে প্রকাশ পেতে চলছে আইফোন নাইন। বিভিন্ন সূত্রে জানা যাচ্ছে, এই টেন আর এবং নাইন আলাদা দুটো ফোন হতে পারে।তার মানে মোট চারটি ফোন হয়তো প্রকাশ পেতে পারে ।

আরও পড়ুন: বিশ্বের প্রথম ১০০ ইঞ্চি 4k স্মার্ট টিভি ভারতের বাজারে, দেখে নিন ফিচার

এই প্রথম আইফোনে ডুয়াল সিম কার্ড ট্রে দেখা যেতে পারে।বিভিন্ন সূত্র থেকে তেমনটাই জানা যাচ্ছে।৫টি আলাদা আলাদা রঙের সিমকার্ড ট্রে দেখা যচ্ছে, যার দু’দিকে দুটো করে সিম লাগানো যাবে।

নতুন যে আইওয়াচ আসতে চলছে, আশা করা হচ্ছে প্রতি বছরের মতো এ বারেও আরও বেশি মোটা না করে বরং গতবারের থেকে একটু চ্যাপ্টা, একটু লম্বাটে, আরও শক্তিশালী ৬৪ বিট প্রসেসর ও উন্নত যন্ত্রাংশ দিয়ে বানানো হবে। কোনও ক্ষেত্রেই হয়তো টার্বো বা অতিরিক্ত ক্ষমতাশালী চার্জার দেওয়া হবে না, কাজেই সেটা হয়তো আলাদা করে কিনতে হতে পারে।

আইপ্যাড তৃতীয় জেনারেশন আসতে পারেএবং তাতে সব থেকে বড় পার্থক্য হতে চলেছে নতুন টাইপ সি পোর্ট, যা কিনা এখন সমস্ত ম্যাকবুকে হাজির, বেশির ভাগ নতুন ফোনেও। ফলে ডক লাগিয়ে সেখান থেকে ২-৩ টি মনিটর চালানো, হার্ড ডিস্ক মেমরি কার্ড লাগানো, এমনি ল্যানের তার—সব কিছুই ওই ডকের থেকে চালানো সম্ভব হলেও হতে পারে।

আরও পড়ুন: স্মার্টফোনে ঢুঁ মেরে আপনাকে কেউ ট্র্যাক করছে না তো! জেনে নিন এই সহজ উপায়ে

মজার ব্যাপার, নতুন আইফোনের ওয়ালপেপার ডাউনলোড করার লিংক ও হাজির ইন্টারনেটে https://dribbble.com/shots/5087719-iPhone-XS-Modd। যদিও মনে করা হচ্ছে এবার ফোনের মডেল ও রং অনুযায়ী আলাদা আলাদা ওয়ালপেপার থাকবে।